Mamata Banerjee: কেন্দ্রীয় বাহিনীর প্রতি তিনি শ্রদ্ধাশীল, মানুষকে প্ররোচিত করেননি! কমিশনকে জবাব মমতার

Mamata Banerjee: কেন্দ্রীয় বাহিনীর প্রতি তিনি শ্রদ্ধাশীল, মানুষকে প্ররোচিত করেননি! কমিশনকে জবাব মমতার

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ Photo-File

মমতা আরও অভিযোগ করেছেন, প্রথম, দ্বিতীয় এবং তৃতীয় দফার ভোটে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন জায়গায় ভোটারদের ভয় দেখানো, একটি নির্দিষ্ট দলকে ভোট দেওয়ার জন্য চাপ দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে৷

  • Share this:

    #কলকাতা: কেন্দ্রীয় বাহিনীর প্রতি তাঁর সর্বোচ্চ সম্মান রয়েছে৷ কিন্তু কেন্দ্রীয় বাহিনী সহ কেউ যদি ভোট দানের অধিকার প্রয়োগে বাধা দেয়, তাঁদেরকেই তিনি গণতান্ত্রিক ভাবে ঘেরাও করার কথা বলেছেন মহিলাদের৷ কেন্দ্রীয় বাহিনীকে ঘেরাও করা নিয়ে মন্তব্যের জন্য নির্বাচন কমিশনের শো কজের জবাবে এই ব্যাখ্যাই দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ একই সঙ্গে তিনি অভিযোগ করেছেন, প্রথম, দ্বিতীয় এবং তৃতীয় দফায় একাধিক জায়গায় ভোটারদের ভয় দেখিয়েছে কেন্দ্রীয় বাহিনী, একটি নির্দিষ্ট দলকে ভোট দেওয়ার জন্য চাপ দিচ্ছে তারা৷

    গত ৭ এপ্রিল কোচবিহারের জনসভা থেকেই মুখ্যমন্ত্রী মহিলাদের উদ্দেশে বলেন, কোনও ভাবে কেন্দ্রীয় বাহিনী গন্ডগোল করলে তাদের যেন ঘেরাও করে রেখে পালা করে ভোট দেন মানুষ৷ প্রয়োজনে পুলিশে এফআইআর করতেও বলেন তিনি৷ কেন্দ্রীয় বাহিনীকে ঘেরাও করার এই নিদান দেওয়ার জন্যই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নোটিস পাঠায় নির্বাচন কমিশন৷ এ দিন সেই শো কজ নোটিসেরই জবাব দিয়েছেন তৃণমূলনেত্রী৷

    নির্বাচন কমিশনকে লেখা চিঠিতে মুখ্যমন্ত্রী দাবি করেছেন, 'কেন্দ্রীয় সশস্ত্র আধা সামরিক বাহিনীর প্রতি আমার সর্বোচ্চ সম্মান রয়েছে৷ দেশের সুরক্ষা ও নিরাপত্তায় তাদের যা অবদান, তাকে আমি শ্রদ্ধা এবং প্রশংসা করি৷ ' তবে মুখ্যমন্ত্রী চিঠিতে লিখেছেন, গত ৬ এপ্রিল তৃতীয় দফার ভোটের দিন তারকেশ্বরের রামনগরে এক নাবালিকাকে হেনস্থার অভিযোগ ওঠে৷ সেই ঘটনায় তিনি স্তম্ভিত হয়ে যান৷ পুলিশে অভিযোগ জানানোর পাশাপাশি রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের কাছেও এই ঘটনার প্রতিবাদে অভিযোগ জানায় তৃণমূল কংগ্রেস৷ কিন্তু তার পরেও এখনও পর্যন্ত এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে কমিশন কোনও ব্যবস্থা তো নেয়ইনি, এমন কি, এই ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি রুখতে কোনও নির্দেশিকাও জারি করা হয়নি৷

    মমতা আরও অভিযোগ করেছেন, প্রথম, দ্বিতীয় এবং তৃতীয় দফার ভোটে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন জায়গায় ভোটারদের ভয় দেখানো, একটি নির্দিষ্ট দলকে ভোট দেওয়ার জন্য চাপ দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে৷ তিন দফায় কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে যথাক্রমে ৬, ১৮ এবং ১৩৪টি অভিযোগ দায়ের করেছে তৃণমূল৷ কিন্তু হাতেগোণা কয়েকটি ক্ষেত্রে ছাড়া কোনও অধিকাংশ অভিযোগেরই সুরাহা হয়নি৷ অথচ বিজেপি-র করা অভিযোগের ভিত্তিতে রাজ্যের ডিজি, এডিজি আইনশৃঙ্খলা সহ বিভিন্ন জেলায় পুলিশের বহু পদাধিকারীদের সরিয়ে দেওয়া হয়েছে৷

    মমতা দাবি করেছেন, কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে কোনওভাবেই তিনি মানুষকে প্ররোচিত করেননি৷ এমন কি, ঘেরাও বলতে যা বোঝায়, তা না করে তিনি শুধুমাত্র কথার মাধ্যমে কেন্দ্রীয় বাহিনীর সঙ্গে আলোচনা করার পরামর্শ দিয়েছেন মহিলাদের৷ তাঁর একমাত্র উদ্দেশ্য ছিল মানুষ যাতে নিজের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করতে পারেন, তা নিশ্চিত করা৷ কেন্দ্রীয় বাহিনী সহ কোনও শক্তিই ভোটারদের বাধা দিলে বা ভয় দেখালে তা মেনে নেওয়া সম্ভব নয় বলেও দাবি করেছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ ফলে তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ ভিত্তিহীন বলেই দাবি করেছেন মমতা৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: