Mamata Banerjee: 'সিদ্ধান্তে চার মাস দেরি, মাশুল দিল বহু প্রাণ', বিনামূল্যে টিকা নিয়ে মোদিকে খোঁচা মমতার

মোদির সমালোচনায় মমতা৷

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee)খোঁচা, তাঁর পরামর্শ শুনতে চার মাস সময় লেগে গেল প্রধানমন্ত্রীর (Narendra Modi)৷

  • Share this:

    #কলকাতা: দেশের প্রত্যেক নাগরিককে বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দেওয়ার দাবি জানিয়ে ফেব্রুয়ারি মাসেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি দিয়েছিলেন তিনি৷ তার পরেও একাধিকবার প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখে এবং মৌখিক ভাবে একই দাবি জানিয়ে আসছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী৷ অবশেষে এ দিন প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করলেন, ১৮ ঊর্ধ্বদেরও বিনামূল্যে ভ্যাকসিনের ব্যবস্থা করবে কেন্দ্রীয় সরকার৷ মোদির এই ঘোষণার পরই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের খোঁচা, তাঁর পরামর্শ শুনতে চার মাস সময় লেগে গেল প্রধানমন্ত্রীর৷ একই সঙ্গে তাঁর আশা, এবার শুধু প্রচার না করে যথাযথ ভাবে মানুষের টিকাকরণের ব্যবস্থা করা হবে৷

    এ দিন ট্যুইটারে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লেখেন, 'ফেব্রুয়ারি মাসে এবং তার পর একাধিকবার আমি প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখে সবাইকে বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দেওয়ার জন্য আমাদের দীর্ঘদিনের দাবির কথা জানিয়েছিলাম৷ ক্রমাগত চাপ দেওয়ার পর তিনি আমাদের পরামর্শ শুনেছেন, যদিও তাতে চার মাস সময় লেগে গেল৷ তবুও এতদিন ধরে আমরা যে কথা বলে আসছিলাম তা কার্যকর হতে চলেছে৷'

    মুখ্যমন্ত্রী আরও লিখেছেন, 'অতিমারির শুরু থেকেই সাধারণ মানুষের স্বার্থের কথা সবার আগে ভাবা উচিত ছিল৷ কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক ভাবে প্রধানমন্ত্রীর এই বিলম্বিত সিদ্ধান্তের মাশুল দিল বহু প্রাণ৷ আশা করি এবার টিকাকরণ কর্মসূচি সঠিক ভাবে রূপায়ণ করা হবে এবং প্রচারের বদলে মানুষের কথা ভাবা হবে৷'

    শুধু পশ্চিমবঙ্গ নয়, বিনামূল্যে টিকাকরণের জন্য বিরোধী শাসিত প্রায় সব রাজ্যই দাবি জানিয়েছিল৷ কারণ ১৮ থেকে ৪৪ বয়সিদের টিকাকরণের ভার রাজ্যগুলির উপরেই চাপিয়েছিল কেন্দ্র৷ কিন্তু টিকা কিনতে গিয়ে বিপাকে পড়ছিল রাজ্যগুলি৷ কারণ একদিকে ভ্যাকসিন সরবরাহে ঘাটতির অভিযোগ উঠছিল, অন্যদিকে ভ্যাকসিন কেনার বিপুল খরচ জোগাড় করতে গিয়েও হিমসিম খাচ্ছিল তারা৷ কারণ অধিকাংশ রাজ্যই বিনামূল্যে টিকা দেওয়ার কথা জানিয়েছিল৷ এ দিন প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, রাজ্যগুলিকে আর টিকা কিনতে হবে না৷ ফলে টিকাকরণ নিয়ে রাজ্যগুলির চিন্তাও অনেকটা কমল৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: