প্রিয় ববির বাড়িতে মমতা, 'ও যেন শরীরের যত্ন নেয়' স্নেহমাখা নির্দেশ নেত্রীর

‌ফিরহাদ হাকিমের বাড়িতে গেলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল চিত্র

Mamata Banerjee at Firhad Hakim's Residence: উদ্বিগ্ন তৃণমূলনেত্রী খোঁজ নিলেন ফিরহাদ হাকিমের স্বাস্থ্যের, খুঁটিয়ে জানতে চান তাঁর জ্বর কমেছে কিনা, পেটের সংক্রমণের অবস্থা কেমন।

  • Share this:

#কলকাতা: দুপুরেই উদ্বেগ চেপে রাখতে পারেননি মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায় (Mamata Banerjee)। সাংবাদিক বৈঠকে বলেছিলেন তাঁর কথা।  সন্ধ্যেয় নবান্ন থেকে কালীঘাট ফেরার পথে   প্রিয় 'ববি'র স্বাস্থ্যের খোঁজ নিতে চেতলায় পৌঁছে গেলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। চেতলায় ফিরহাদ হাকিমের বাড়িত গিয়ে এদিন ফিরহাদের মেজো মেয়ে সাবা হাকিমের সঙ্গে কথা বলেন মমতা। উদ্বিগ্ন তৃণমূলনেত্রী খোঁজ নিলেন ফিরহাদ হাকিমের স্বাস্থ্যের, খুঁটিয়ে জানতে চান তাঁর জ্বর কমেছে কিনা, পেটের সংক্রমণের অবস্থা কেমন।

বৃহস্পতিবার নবান্ন থেকে কালীঘাটে যাওয়ার পথে তিনি হঠাৎ করেই চলে যান চেতলায়। কনভয় দাঁড়িয়ে রাস্তায়। তিনি  পৌঁছে যান  ফিরহাদ হাকিমের বাড়ির সামনে। যদিও সেই সময়ে ববি'র স্ত্রী ও বড় মেয়ে বাড়িতে ছিলেন না। দু'জনেই ছিলেন প্রেসিডেন্সি সংশোধনাগারে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ফিরহাদ হাকিমের বাড়িতে পৌঁছে এই বিষয়ে জানতে পারেন। তিনি কথা বলেন সাবা হাকিম ও আফসা হাকিমের সাথে। ববির দুই মেয়ের  থেকেই তিনি জানতে চান তাঁদের বাবা কেমন আছেন। শারীরিক সমস্যা কী কী আছে, সেগুলি পুঙ্খানুপুঙ্খ আপডেট নেন। এর পরে তিনি ফোন করেন ফিরহাদ হাকিমের স্ত্রী'কে।

তিনি বাড়িতে এসেছেন জানতে পেরে, ফিরহাদের মেয়ে প্রিয়দর্শিনীকে তড়িঘড়ি যেতে বলেন ফিরহাদ হাকিমের স্ত্রী। কিন্তু ততক্ষণে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেখান থেকে বেরিয়ে আসেন। তবে ফোনে তিনি কথা বলেন ফিরহাদ কন্যার সঙ্গেই।

সূত্রের খবর সেখানে মমতা বন্দোপাধ্যায় বলেন,  ববি'কে যেন জানানো হয়, তিনি বলছেন শরীরের যত্ন নিতে। প্রয়োজনে হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে। তিনি মনে করিয়ে দিয়েছেন, এটা একটা রাজনৈতিক লড়াই। রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতেই এসব করা হচ্ছে। তিনি যে ববি'র পাশে আছেন সেটা বুঝিয়ে দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কঠিন এই সময়ে দলনেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী বাড়িতে আসায় আশ্বস্ত ফিরহাদ হাকিমের পরিবার।

-Reported by Abir Ghoshal.

Published by:Arka Deb
First published: