কলকাতা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

শতবর্ষে ডাকেনি বিশ্বভারতী, অভিযোগ মমতার! 'আমন্ত্রণপত্র' ঘিরে দাবি পাল্টা দাবি

শতবর্ষে ডাকেনি বিশ্বভারতী, অভিযোগ মমতার! 'আমন্ত্রণপত্র' ঘিরে দাবি পাল্টা দাবি
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে এই আমন্ত্রণ পত্র পাঠানো হয় বলে দাবি বিজেপি নেতা অমিত মালব্য়র৷ Photo-Twitter
  • Share this:

#কলকাতা: শতবার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানে তাঁকে বিশ্বভারতী থেকে কোনও আমন্ত্রণ জানানো হয়নি বলে অভিযোগ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ এ দিনই বিশ্বভারতীর শতবার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানে ভার্চুয়াল বক্তৃতা দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ অনুষ্ঠানে অংশ নেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ও৷ কিন্তু সেই অনুষ্ঠানে দেখা যায়নি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে৷ এর পরই তৃণমূলের তরফে ব্রাত্য বসু অভিযোগ করেন, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে অনুষ্ঠানে অংশ নিতে আমন্ত্রণই জানায়নি বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ৷ এ দিন বিকেলে নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে এই অভিযোগেই সিলমোহর দেন মুখ্যমন্ত্রী৷

যদিও সোশ্যাল মিডিয়ায় বিশ্বভারতীর তরফে মুখ্যমন্ত্রীকে পাঠানো একটি আমন্ত্রণপত্রের ছবি ছড়িয়েছে৷ সেই চিঠিতে অবশ্য বিশ্বভারতীর উপাচার্যের সই রয়েছে৷ ওই আমন্ত্রপত্রের ছবি ট্যুইটারে শেয়ার করে বিজেপি নেতা অমিত মালব্য দাবি করেছেন, বিশ্বভারতীর তরফে মুখ্যমন্ত্রীকে গত ৪ ডিসেম্বর আমন্ত্রণ জানানো হলেও তিনি তা প্রত্যাখ্যান করেছেন৷ মুখ্যমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সৃষ্টি করা বিশ্বভারতীর অপমান করেছেন বলেও অভিযোগ বিজেপি নেতার৷ যদিও এই চিঠির সত্যতা যাচাই করেনি News18 Bangla৷

বিশ্বভারতীর আমন্ত্রণ বিতর্কে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'কবে ডাকল, কখন ডাকল? বিজেপি যা বলবে তাই শুনতে হবে? আমার তো একটা অফিস আছে৷ আমার কিছু জানা নেই৷' মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, বুধবার রাতে তাঁর কাছে বিশ্বভারতীর উপাচার্যের তরফে একটি অনুরোধ এসে পৌঁছয়৷ ২৮ ডিসেম্বর বোলপুর সফরের সময় তাঁর সঙ্গে দেখা করার সময় চান উপাচার্য৷ কিন্তু আগে থেকে নির্ধারিত ব্যস্ত সূচির মধ্যে তাঁর পক্ষে সময় দেওয়া সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন মমতা৷ একই সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'আজকে একশো বছরের উদযাপনে ওরা আমাকে কোনও আমন্ত্রণ জানায়নি, ফোনও করেনি৷ ' ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, 'আজকে একজন দু' জন হঠাৎ এসে গিয়ে বিশ্বভারতীকে শেষ করে দিতে পারেন না৷ একশো বছর ধরে অনেকে বিশ্বভারতীকে তৈরি করেছেন, রক্ষা করেছেন৷ অনেক ছাত্র, শিক্ষক, প্রণাম্য ব্যক্তিরা বেরিয়েছেন৷ আমরা তাঁদের ধন্যবাদ, কৃতজ্ঞতা, ধন্যবাদ জানাই৷ এখন যাঁরা আছেন তাঁদের দিন ফুরিয়ে এসেছে৷ '

আমন্ত্রণ বিতর্ক নিয়ে এ দিন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ও মুখ্যমন্ত্রীর দাবি কার্যত খারিজ করে দিয়েছেন৷ তিনি বলেন, 'আমাকে কোনও অপ্রিয় কথা বলে উত্তেজনা বাড়াতে বাধ্য করবেন না৷ আপনারা আগে খোঁজ নিয়ে দেখুন৷'

বিশ্বভারতীর একশো বছর পূর্তিতে একটি ট্যুইটও করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন, কেন বিশ্বভারতীতে পৌষ মেলা বন্ধ করা হল, কেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মস্থান নিয়ে ভুল তথ্য দেওয়া হল তা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হবে৷

মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশে লেখা বিশ্বভারতীর যে আমন্ত্রণপত্রের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে, তার সত্যতা নিয়েই প্রশ্ন তুলেছে তৃণমূল৷ ব্রাত্য বসু বলেন, 'চিঠিতে উপাচার্যের সই রয়েছে, কিন্তু নবান্নের প্রাপ্তি স্বীকারের প্রমাণ দেখাতে পারবেন? কে বলতে পারে ওই চিঠি বিশ্বভারতীর উপাচার্য না পাঠিয়ে নিজের কাছেই রেখে দেননি৷'

Published by: Debamoy Ghosh
First published: December 24, 2020, 5:59 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर