corona virus btn
corona virus btn
Loading

রাজ্যে JEE পরীক্ষায় উপস্থিতির হার মাত্র ২৫ শতাংশ, জানালেন মুখ্যমন্ত্রী

রাজ্যে JEE পরীক্ষায় উপস্থিতির হার মাত্র ২৫ শতাংশ, জানালেন মুখ্যমন্ত্রী
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷File Photo

করোনা অতিমারির মধ্যে এই পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়ার দাবি তুলেছিল বিরোধীরা৷

  • Share this:

#কলকাতা: মঙ্গলবার হওয়া JEE (Main) পরীক্ষায় রাজ্যের নথিভুক্ত পরীক্ষার্থীর মাত্র ২৫ শতাংশ পরীক্ষা দিয়েছেন৷ আজ অর্থাত্‍ বুধবার নবান্নে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ একই সঙ্গে তিনি দাবি তুলেছেন, যাঁরা পরীক্ষা দিতে পারলেন না, সেই ছাত্রছাত্রীদের কথা ভেবে দেখুক কেন্দ্র৷

মঙ্গলবার থেকে গোটা দেশেই JEE(Main) পরীক্ষা শুরু হয়েছে৷ যা আগামী ৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলার কথা৷ করোনা অতিমারির মধ্যে এই পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়ার দাবি তুলেছিল বিরোধীরা৷ যদিও সেই আবেদনে সাড়া না দিয়ে নির্ধারিত দিনেই পরীক্ষা হবে বলে জানিয়ে দেয় ন্যাশনাল টেস্টিং এজেন্সি বা NTA৷

মুখ্যমন্ত্রী এ দিন বলেন, রাজ্যে জেইই পরীক্ষার জন্য যত ছাত্রছাত্রী নাম নথিভুক্ত করেছিলেন, সোমবারের পরীক্ষায় তার মধ্যে মাত্র ২৫ শতাংশ পরীক্ষা দিতে উপস্থিত হয়েছিলেন৷ তাঁর দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, রাজ্যে মোট ৪৬৫২ জন পরীক্ষার্থী জেইই পরীক্ষার জন্য নাম নথিভুক্ত করেছিলেন৷ সোমবার তাঁদের মধ্যে পরীক্ষা দিয়েছেন ১১৬৭ জন৷

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'যেভাবে বলা হয়েছিল, সেভাবেই আমরা সবরকম ব্যবস্থা করেছি৷ তার পরেও তো ৭৫ শতাংশ পরীক্ষার্থী পরীক্ষা দিতে পারলেন না৷ এতে তো তাঁরা বঞ্চিত হল৷ এত জেদ, অহং ভাব কেন? কয়েকটা দিন পরীক্ষা পিছিয়ে দিলে কোন মহাভারত অশুদ্ধ হয়ে যেত! ছাত্রছাত্রীদের ভবিষ্যৎ নষ্ট করার অধিকার কে দিল? কেরিয়ার তৈরি করতে গিয়ে যদি জীবনটাই চলে যায়, আমরা কী ভুল বলেছিলাম? যাঁরা পরীক্ষা দিতে পারলেন না, তাঁদের জন্য আমার খুব দুঃখ হচ্ছে৷'

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, শুধুমাত্র এ রাজ্য থেকেই ৭৫ শতাংশ পরীক্ষার্থী যেখানে পরীক্ষা দিতে পারেননি, সেখানে অন্যান্য রাজ্যেও পরীক্ষার্থীরা একই সমস্যায় পড়েছেন৷ কতজন পরীক্ষার্থী গোটা দেশে পরীক্ষা দিতে পারেননি, তা খতিয়ে দেখার জন্যও কেন্দ্রকে অনুরোধ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ যাঁরা পরীক্ষা দিতে পারেননি, তাঁদের কথা যাতে কেন্দ্র পুনর্বিবেচনা করে, সেই দাবিও তুলেছেন মুখ্যমন্ত্রী৷

Published by: Debamoy Ghosh
First published: September 2, 2020, 7:09 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर