নেই গাড়ি, ব্যক্তিগত সম্পত্তির পরিমাণ কত? মনোনয়নের হলফনামায় যা জানিয়েছেন মমতা

নেই গাড়ি, ব্যক্তিগত সম্পত্তির পরিমাণ কত? মনোনয়নের হলফনামায় যা জানিয়েছেন মমতা

বুধবারই নমিনেশান জমা দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বুধবার হলফনামা পেশ করায় তাঁর সম্পত্তির পরিমাণও জানা গিয়েছে।

  • Share this:

#কলকাতা: নেই গাড়ি। নেই চাষের জমি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মনোনয়ন পেশের সাঙ্গে যে হলফনামা জমা দিয়েছেন তাতে এমনই উল্লেখ আছে। নন্দীগ্রামের প্রার্থী হিসাবে ১০ মার্চ মনোনয়ন জমা দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। হলদিয়ায় গিয়ে তিনি মনোনয়ন জমা করার পরে রাজ্য রাজনীতিতে বহু উথালপাতাল ঘটে গিয়েছে।  পাশাপাশি বুধবার হলফনামা পেশ করায় তাঁর সম্পত্তির পরিমাণও জানা গিয়েছে।

নন্দীগ্রামে এবার তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।। গত দু'দিন ধরে তিনি নন্দীগ্রামে প্রচার চালিয়েছেন। এই মুহূর্তে তিনি ভোট প্রচারে গিয়ে  আহত হয়ে আপাতত এস এস কে এম হাসপাতালে ভর্তি। ১০ মার্চ তিনি মনোনয়ন জমা দিয়ে দিয়েছেন। সেই মনোনয়নে তিনি উল্লেখ করেছেন, তার হাতে নগদ টাকার পরিমাণ রয়েছে ৬৯ হাজার ২৫৫ টাকা। তবে ব্যাঙ্ক ও ন্যাশনাল সেভিং সার্টিফিকেট তাঁর রয়েছে। সেখানে তার ১৬ লাখ ৭২ হাজার ৩৫২ টাকা ৭১ পয়সা আছে। যা অস্থাবর সম্পত্তি হিসাবে আছে।

এছাড়া অলঙ্কার তাঁর কাছে আছে ৯ গ্রাম ৭৫০ মিলিগ্রাম পরিমাণের। হলফনামায় উল্লেখ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।।মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হলফনামায় উল্লেখ করেছেন তার নিজের কোনও গাড়ি নেই। চাষ করার মতো কোনও জমি নেই তার। ব্যবসা করার জন্যে বা বাণিজ্যিক ভাবে ব্যবহারের জন্যে কোনও জায়গা নেই তার।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কোথাও কোনও ঋণ নেই। তিনি পরিবার সূত্র ধরে কোনও পৈতৃক সম্পত্তি তিনি পাননি। কোনও ইনকাম ট্যাক্স বাকি নেই তাঁর। পুরসভা সংক্রান্ত কোনও কর বা জিএসটি সংক্রান্ত কোনও কর তার বাকি নেই। হলফনামায় উল্লেখ করা হয়েছে, ২০১৮-১৯ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বছরে আয় ছিল ২০ লাখ ৭১ হাজার ১০ টাকা। ২০১৯-২০ সালে তা কমে দাঁড়িয়েছে ১০ লাখ ৩৪ হাজার ৩৭০ টাকা। আর্থিক বছরের যাবতীয় আয় ব্যয়ের সব হিসেব দেওয়া হয়েছে এই হলফনামায়।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর শিক্ষাগত যোগ্যতা প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি পান। যোগেশ চন্দ্র চৌধুরী কলেজ থেকে তিনি আইনে স্নাতক হয়েছেন। মমতার মনোনয়নে প্রস্তাবক হিসাবে চার জনের নাম জমা দেওয়া হয়েছে। যাঁরা প্রস্তাবক হয়েছেন তারা হলেন, আবদুস সামাদ, স্বদেশরঞ্জন দাস, মহাদেব বাগ৷ এছাড়া নন্দীগ্রাম আন্দোলনে শহীদ ভগীরথ মাইতির স্ত্রী সুষমা মাইতি তিনিও প্রস্তাবক হিসাবে থাকছেন। এছাড়া নন্দীগ্রামে মমতা বন্দোপাধ্যায়ের মুখ্য নির্বাচনী এজেন্ট করা হয়েছেন ভূমি উচ্ছেদ প্রতিরোধ কমিটির নেতা শেখ সুফিয়ান'কে।

Published by:Arka Deb
First published: