#Coronavirus: বিনামূল্যে চাল দেবে রাজ্য, কেন্দ্রের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ মমতার

#Coronavirus: বিনামূল্যে চাল দেবে রাজ্য, কেন্দ্রের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ মমতার
করোনা মোকাবিলায় একগুচ্ছ ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর৷ PHOTO- FILE

করোনা ভাইরাসের জেরে তৈরি হওয়া পরিস্থিতি সামাল দিতে বিনামূল্যে চাল দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার৷ এ দিন নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই ঘোষণা করেন৷

  • Share this:

করোনা ভাইরাসের জেরে তৈরি হওয়া পরিস্থিতি সামাল দিতে বিনামূল্যে চাল দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার৷ এ দিন নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই ঘোষণা করেন৷ নিম্নবিত্ত মানুষকে স্বস্তি দিতেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য৷ এর সঙ্গে আরও একগুচ্ছ ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ কেন্দ্রের বিরুদ্ধে পরিকাঠামোগত সাহায্য না করার অভিযোগ তুললেও করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় একযোগে কাজ করার বার্তাই দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ একনজরে দেখে নেওয়া যাক, সাংবাদিক বৈঠকে কী কী বললেন মুখ্যমন্ত্রী-

১. আগামী সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত রাজ্য সরকার ২ টাকা কেজির চাল সম্পূর্ণ বিনামূল্যে দেবে৷ যেহেতু করোনা ভাইরাসের জেরে অর্থনীতির উপরে মারাত্মক প্রভাব পড়েছে এবং নিম্নবিত্ত মানুষের উপার্জনেও টান পড়ছে, সেকারণেই বিনামূল্যে চাল দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার৷ এই মুহূর্তে মাসে পাঁচ কেজি করে চাল এবং গম ২ টাকা কিলো দরে উপভোক্তাদের দেওয়া হবে৷ প্রতি মাসে রাজ্যের সাড়ে সাত কোটি মানুষ ২ টাকা কেজির চাল পান৷

২. রাজ্য সরকারি অফিসে কর্মীদের উপস্থিতি যথাসম্ভব কমিয়ে ফেলা হবে৷ ই অফিসের মাধ্যমে কাজ করা হবে৷ পঞ্চাশ শতাংশ কর্মীদের ঘুরিয়ে ফিরিয়ে অফিসে এনে কাজ করানো হবে৷

৩. বেসরকারি অফিসের ক্ষেত্রেও পঞ্চাশ শতাংশ কর্মীদের দিয়ে কাজ করানোর পরামর্শ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী৷ সরকারের মতোই ঘুরিয়ে ফিরিয়ে কর্মীদের অফিসে এনে কাজ করানোর আর্জি জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

৪. স্টেট ইমার্জেন্সি রিলিফ ফান্ড তৈরি হচ্ছে৷ প্রচুর পরিকাঠামো তৈরি করা হচ্ছে৷ মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, এই পরিকাঠামো তৈরি করতে এখনও কোনও অর্থ রাজ্যকে বরাদ্দ করা হয়নি৷ তাই সোমবার থেকে এই তহবিল চালু হচ্ছে৷ সেখানে সাধারণ মানুষও অনুদান দিতে পারবেন৷

৫. চিকিৎসক, নার্স, পুলিশ, জঞ্জাল অপসারণের সঙ্গে যুক্ত যাঁরা ঝুঁকি নিয়ে মানুষের জন্য কাজ করছেন, পুজোর পর তাঁদের জন্য বিশেষ ছুটির ব্যবস্থা করবে রাজ্য সরকার৷

৬. কলকাতায় দুবাই, ব্যাঙ্কক থেকে বিমান আসছে৷ প্রায় এক লক্ষ মানুষ বিদেশ থেকে এ রাজ্যে ফিরেছেন বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷

৭. মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, বিদেশ থেকে যাঁরা ফিরছেন, তাঁরা যেন হোম আইসোলেশনে থাকেন৷ জরুরি প্রয়োজন ছাড়া যেন কেউ বাইরে না বেরোন৷ নিষেধ না মানলে সরকার সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে সরকারি আইসোলেশন সেন্টারে নিয়ে আসা হবে৷ এদিনই  রাজ্যের মুখ্যসচিব মহামারি আইনেপ বিজ্ঞপ্তি জারি করেছেন বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী৷

৮. মুখ্যমন্ত্রী বলেন, জানুয়ারি মাসের ২০ বা ২১ তারিখে প্রথমবার করোনা আক্রান্তের খবর পাওয়া গেলেও এখনও পর্যন্ত কেন্দ্রের তরফে কোনও পরিকাঠামোগত সাহায্য করা হয়নি৷

 
First published: March 20, 2020, 3:15 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर