• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • ফের কল্পতরু মুখ্যমন্ত্রী, এই সমস্ত সরকারি কর্মচারীদের জন্য ভাতা বৃদ্ধি ও নয়া ভাতার ঘোষণা

ফের কল্পতরু মুখ্যমন্ত্রী, এই সমস্ত সরকারি কর্মচারীদের জন্য ভাতা বৃদ্ধি ও নয়া ভাতার ঘোষণা

প্রাণিবন্ধু ও প্রাণিমিত্র, ভিআরপি কর্মীদের ভাতা বাড়ানোর ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী ৷

প্রাণিবন্ধু ও প্রাণিমিত্র, ভিআরপি কর্মীদের ভাতা বাড়ানোর ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী ৷

প্রাণিবন্ধু ও প্রাণিমিত্র, ভিআরপি কর্মীদের ভাতা বাড়ানোর ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী ৷

  • Share this:

    #কলকাতা: নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে থেকে ফের সরকারি কর্মচারীদের জন্য কল্পতরু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ প্রাণিবন্ধু ও প্রাণিমিত্র, ভিআরপি কর্মীদের ভাতা বাড়ানোর ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী ৷ একইসঙ্গে দুয়ারের সরকার প্রকল্পে কাজ করছেন যেসব কর্মীরা তাদের জন্যেও বিশেষ টিফিন ভাতার ঘোষণা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷

    সোমবার সাংবাদিক সম্মেলন চলাকালীন সরকারি কর্মচারীদের দুয়ারে সরকার প্রকল্পের কাজ করার জন্য ভূয়সী প্রশংসা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এ প্রসঙ্গে টিফিন বাবদ বিশেষ ভাতা দেওয়ার ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘খুব ভাল করেছেন আমার সরকারি কর্মচারী ভাইবোনেরা। বিডিও থেকে শুরু করে, এসডিও,এডিএম থেকে শুরু করে, ডিএম থেকে শুরু করে, আইসি থেকে শুরু করে, এসপি থেকে শুরু করে - সবাই। আমার লাইন ডিপার্টমেন্ট থেকে শুরু করে সমস্ত সরকারি কর্মচারী ভাইবোনেরা খুব ভাল কাজ করেছেন এবং আমার উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা থেকে শুরু করে মুখ্যসচিবের নেতৃত্বে সব প্রিন্সিপাল সেক্রেটারিরা - দুর্দান্ত কাজ করেছেন।’

    কর্মীদের কাজে খুশি হয়ে তাদের জন্য বিশেষ টিফিন ভাতার ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী ৷ বলেন, ‘যে সব সরকারি কর্মচারী এবং বিভিন্ন সংস্থার স্বেচ্ছাসেবকরা এই ক্যাম্পে কাজ করছেন দিন থেকে রাত, কর্মসূচি শেষ হয়ে গেলে তাঁদের একটি শংসাপত্র তো দেবই। একইসঙ্গে ঠিক করেছি, তাঁদের দু'মাস ৫,০০০ টাকা করে টিফিন অ্যালোয়েন্স দেব। কারণ তাঁরা সকাল থেকে রাজ পর্যন্ত কাজ করছেন, তাই তাঁরা পান, সেটা আমরা চাই।’

    এছাড়াও প্রাণী বন্ধু ও প্রাণী মিত্র হিসেবে কাজ করেন যেসব কর্মীরা তাদেরও ভাতা বাড়িয়ে ১৫০০ টাকা থেকে ৩০০০ টাকা করে দেওয়ার ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী ৷ এছাড়া ভিলেজ রিসোর্স পার্সন অর্থাৎ ভিআরপি কর্মীদের জন্য এদিন মাসিক ভাতার ঘোষণা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ বলেন, ‘ওরা অনেকদিন ধরেই ৩০ দিনের ভাতার কথা বলে আসছিল ৷ ওদের দাবি মেনে ৩০ দিনের জন্য ৫২৫০ টাকা করে দিলাম ৷’

    দুয়ারে সরকার কর্মসূচি অভূতপূর্ব সাফল্য ফেলে দিয়েছে। সোমবার নবান্ন থেকে এমনটাই ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গত পয়লা ডিসেম্বর থেকে 'দুয়ারে সরকার' কর্মসূচি শুরু করেছে রাজ্য সরকার। চারটি পর্যায়ে আগামী ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত এই কর্মসূচি চলবে। আগামী ২৪ ডিসেম্বর দ্বিতীয় পর্যায়ের কর্মসূচি শেষ হবে। দুয়ারে সরকার কর্মসূচির মাধ্যমে ১২ টি সরকারি প্রকল্পের সুবিধা পাওয়া যাচ্ছে।

    নবান্নে সোমবার সাংবাদিক সম্মেলন চলাকালীন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘২০ ডিসেম্বর পর্যন্ত দুয়ারে সরকার কর্মসূচির জন্য এক কোটি ১২ লক্ষেরও বেশি মানুষ ১১,০৫৬ টি শিবিরে উপস্থিত হয়েছেন ।’ স্বাস্থ্য সাথী, খাদ্যসাথী, কন্যাশ্রী, শিক্ষাশ্রীর মতো রাজ্যের প্রকল্পের সুবিধা ভোটের আগে মানুষের কাছে আরও একবার পৌছে দেওয়ার উদ্যোগ। একেবারে দরজায় গিয়ে জনতার হাতে সুবিধা তুলে দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েই দুযারে সরকার প্রকল্প নিয়ে রাজ্য। প্রথম দিন থেকেই পালটা আসরে নেমেছে বিজেপি। আর নয় অন্যায়, গৃহ সম্পর্ক অভিযানে বাড়ি বাড়ি যাচ্ছেন বিজেপি নেতারা। তৃণমূল নেতারাও রিপোর্ট কার্ড হাতে যাচ্ছেন বাড়ি বাড়ি। সামনেই ভোটের বছর। কুড়ির শেষে বাংলার দরজায় এখন শুধুই রাজনীতির তরজা।

    Published by:Elina Datta
    First published: