পুলিশ অফিসারদের ফাঁসিয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হচ্ছে, চাঞ্চল্যকর অভিযোগ মমতার

পুলিশ অফিসারদের ফাঁসিয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হচ্ছে, চাঞ্চল্যকর অভিযোগ মমতার
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

কয়েকদিন ধরেই রাজ্য প্রশাসনের অফিসারদের নিরপেক্ষতা নিয়ে সরব হয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ও৷ ফলে এ দিন নাম না করে তাঁকেও মুখ্যমন্ত্রী নিশানা করলেন বলে মনে করা হচ্ছ৷

  • Share this:

    #কলকাতা: রাজ্যের আইএস এবং আইপিএস অফিসারদের কেন্দ্রীয় এজেন্সি-র নাম করে হুমকি দেওয়া হচ্ছে৷ এমনই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ কেন্দ্রীয় সরকারের দিকে ইঙ্গিত করে তাঁর অভিযোগ, পুলিশ অফিসারদের ইনকাম ট্যাক্স, ভিজিলেন্স কমিশন দিয়ে হেনস্থার ভয় দেখানো হচ্ছে৷ শুধু তাই নয়, রাজ্যে কর্মরত আইএএস এবং আইপিএস অফিসারদের স্ত্রীদেরও ভিন রাজ্যের প্রত্যন্ত এলাকায় বদলি করেও দেওয়ার হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন মুখ্যমন্ত্রী৷

    কয়েকদিন ধরেই রাজ্য প্রশাসনের অফিসারদের নিরপেক্ষতা নিয়ে সরব হয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ও৷ ফলে এ দিন নাম না করে তাঁকেও মুখ্যমন্ত্রী নিশানা করলেন বলে মনে করা হচ্ছে ৷ মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, অতীতে কোনওদিন ভারতবর্ষে এ ভাবে পুলিশ অফিসারদের ভয় দেখানো হয়নি ৷ সরকারি ভাবে সাংবাদিক বৈঠক করেও পুলিশ অফিসারদের হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তিনি৷

    তবে রাজ্যের অফিসারদের আশ্বস্ত করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'আপনারা রাজ্যের অধীনে কাজ করেন৷ আপনারা যেমন রাজ্যকে সার্ভিস দেন, রাজ্যও আপনাদের সার্ভিস দিতে তৈরি৷ কীভাবে আমাদের অফিসারদের হেনস্থা করছে, এর পর আমরা গোটা ভারতবর্ষকে জানাতে বাধ্য হব৷ আপনারা ভদ্রতা রেখে কাজ করুন, আমরাও আমাদের ভদ্রতা রেখে কাজ করব৷ প্রত্যেকে নিজেদের লক্ষ্মণরেখায় থেকে কাজ করুন৷ সাংবিধানিক দায়বদ্ধতা মেনে সবাই যাতে কাজ করতে পারি, একথা মাথায় রাখতে হবে৷' মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, বিভিন্ন জায়গায় দু'-একটি রাজনৈতিক দল নিয়মিত মহামারি আইন ভেঙে মিটিং, মিছিল করছে৷ তা সত্ত্বেও তাঁদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়নি পুলিশ৷ মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, তার পরেও পুলিশ অফিসারদের কেউ কেউ শাসাচ্ছেন৷


    করোনা পরিস্থিতি সামলানোর জন্য এ দিন রাজ্য এবং জেলা প্রশাসনের অফিসার ও সরকারি কর্মীদের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ তিনি বলেন, রাজ্যে করোনার মোকাবিলা করতে গিয়ে অনেক বিডিও, পুলিশকর্মী, চিকিৎসকরা মারা গিয়েছেন৷ তা সত্ত্বেও রাজ্যে কাজ থেমে থাকেনি৷ দুর্গা পুজোর পরেও রাজ্যে করোনা পরিস্থিতিও নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রাখা গিয়েছে৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: