কলকাতা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

পুলিশ অফিসারদের ফাঁসিয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হচ্ছে, চাঞ্চল্যকর অভিযোগ মমতার

পুলিশ অফিসারদের ফাঁসিয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হচ্ছে, চাঞ্চল্যকর অভিযোগ মমতার
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

কয়েকদিন ধরেই রাজ্য প্রশাসনের অফিসারদের নিরপেক্ষতা নিয়ে সরব হয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ও৷ ফলে এ দিন নাম না করে তাঁকেও মুখ্যমন্ত্রী নিশানা করলেন বলে মনে করা হচ্ছ৷

  • Share this:

#কলকাতা: রাজ্যের আইএস এবং আইপিএস অফিসারদের কেন্দ্রীয় এজেন্সি-র নাম করে হুমকি দেওয়া হচ্ছে৷ এমনই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ কেন্দ্রীয় সরকারের দিকে ইঙ্গিত করে তাঁর অভিযোগ, পুলিশ অফিসারদের ইনকাম ট্যাক্স, ভিজিলেন্স কমিশন দিয়ে হেনস্থার ভয় দেখানো হচ্ছে৷ শুধু তাই নয়, রাজ্যে কর্মরত আইএএস এবং আইপিএস অফিসারদের স্ত্রীদেরও ভিন রাজ্যের প্রত্যন্ত এলাকায় বদলি করেও দেওয়ার হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন মুখ্যমন্ত্রী৷

কয়েকদিন ধরেই রাজ্য প্রশাসনের অফিসারদের নিরপেক্ষতা নিয়ে সরব হয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ও৷ ফলে এ দিন নাম না করে তাঁকেও মুখ্যমন্ত্রী নিশানা করলেন বলে মনে করা হচ্ছে ৷ মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, অতীতে কোনওদিন ভারতবর্ষে এ ভাবে পুলিশ অফিসারদের ভয় দেখানো হয়নি ৷ সরকারি ভাবে সাংবাদিক বৈঠক করেও পুলিশ অফিসারদের হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তিনি৷

তবে রাজ্যের অফিসারদের আশ্বস্ত করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'আপনারা রাজ্যের অধীনে কাজ করেন৷ আপনারা যেমন রাজ্যকে সার্ভিস দেন, রাজ্যও আপনাদের সার্ভিস দিতে তৈরি৷ কীভাবে আমাদের অফিসারদের হেনস্থা করছে, এর পর আমরা গোটা ভারতবর্ষকে জানাতে বাধ্য হব৷ আপনারা ভদ্রতা রেখে কাজ করুন, আমরাও আমাদের ভদ্রতা রেখে কাজ করব৷ প্রত্যেকে নিজেদের লক্ষ্মণরেখায় থেকে কাজ করুন৷ সাংবিধানিক দায়বদ্ধতা মেনে সবাই যাতে কাজ করতে পারি, একথা মাথায় রাখতে হবে৷' মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, বিভিন্ন জায়গায় দু'-একটি রাজনৈতিক দল নিয়মিত মহামারি আইন ভেঙে মিটিং, মিছিল করছে৷ তা সত্ত্বেও তাঁদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়নি পুলিশ৷ মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, তার পরেও পুলিশ অফিসারদের কেউ কেউ শাসাচ্ছেন৷

করোনা পরিস্থিতি সামলানোর জন্য এ দিন রাজ্য এবং জেলা প্রশাসনের অফিসার ও সরকারি কর্মীদের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ তিনি বলেন, রাজ্যে করোনার মোকাবিলা করতে গিয়ে অনেক বিডিও, পুলিশকর্মী, চিকিৎসকরা মারা গিয়েছেন৷ তা সত্ত্বেও রাজ্যে কাজ থেমে থাকেনি৷ দুর্গা পুজোর পরেও রাজ্যে করোনা পরিস্থিতিও নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রাখা গিয়েছে৷

Published by: Debamoy Ghosh
First published: November 5, 2020, 3:29 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर