কলকাতা

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

পঞ্চায়েতে দুর্নীতি সিপিএম আমলের অভ্যাস, ৯০ শতাংশ আটকেছি: মমতা

পঞ্চায়েতে দুর্নীতি সিপিএম আমলের অভ্যাস, ৯০ শতাংশ আটকেছি: মমতা
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

এই প্রসঙ্গ তুলে মুখ্যমন্ত্রী এ দিন অভিযোগ করেন, আমফানের ক্ষতিপূরণ ও ত্রাণ বিলি নিয়ে রাজনৈতিক স্বার্থেই অভিযোগ তুলছেন বিরোধীরা৷

  • Share this:

#কলকাতা: বাম আমলে রাজ্যের পঞ্চায়েতগুলি ১০০ শতাংশ দুর্নীতিগ্রস্ত ছিল৷ বর্তমান সরকারের আমলে তার ৯০ শতাংশই কমানো সম্ভব হয়েছে৷ আমফানে ক্ষতিপূরণ বিলি নিয়ে শাসক দল সহ রাজনৈতিক নেতাদের দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়ার অভিযোগে এমনই দাবি করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ এ দিন হাজরায় কলকাতা পুলিশের সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ কর্মসূচির উদ্বোধনে এসে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'পঞ্চায়েতে দুর্নীতি বাম আমলের অভ্যাস, সারতে সময় লাগবে৷'

রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে আমফানে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য সরকারি আর্থিক ক্ষতিপূরণ বিলি নিয়ে দুর্নীতির অসংখ্য অভিযোগ সামনে এসেছে৷ অধিকাংশ ক্ষেত্রেই অভিযোগের তির শাসক দলের নেতাদের বিরুদ্ধে৷ কিছু ক্ষেত্রে বিরোধীদের হাতে থাকা পঞ্চায়েতগুলির বিরুদ্ধেও একই অভিযোগ উঠেছে৷ একের পর এক অভিযোগ সামনে আসার পর বহু জায়গাতেই দলীয় নেতা এবং পঞ্চায়েত সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে শাসক দল৷ প্রশাসনিক স্তরেও অন্যায্য ভাবে যারা ক্ষতিপূরণ নিয়েছে, তাদের চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে৷

এই প্রসঙ্গ তুলে মুখ্যমন্ত্রী এ দিন অভিযোগ করেন, আমফানের ক্ষতিপূরণ ও ত্রাণ বিলি নিয়ে রাজনৈতিক স্বার্থেই অভিযোগ তুলছেন বিরোধীরা৷ তিনি বলেন,  'সিপিএমের আমলে পঞ্চায়েতে ১০০ শতাংশ চুরি হতো৷ আমরা তো ৯০ শতাংশই আটকাতে পেরেছি৷ কারণ দুর্নীতির অভিযোগ পেলে আমি নিজের দলকেও ছাড়ি না৷ একবারে তো সব চোরকে উৎখাত করা সম্ভব নয়৷ মানুষের টাকা যাতে কেউ না নেয়, এটাই আমাদের নির্দেশ৷ অভিযোগ পেলেই পুলিশ এফআইআর করছে৷ কোথাও কোথাও হয়তো ৭-৮ শতাংশ আছে, সেটাও আস্তে আস্তে বন্ধ হয়ে যাবে৷ এই মেকানিজমটা সিপিএম ৩৪ বছর ধরে তৈরি করেছে৷ আর সেটা বন্ধ করতে আমি দিন রাত লড়াই করছি৷'

শাসক দল এবং প্রশাসন কড়া হওয়ার পরই বহু জায়গায় অন্যায্য ভাবে নেওয়া সরকারি ক্ষতিপূরণের টাকা ফেরত দিয়েছেন অনেকেই৷ সেই তালিকায় রয়েছেন শাসক দলের নেতা কর্মীরাও৷ এ দিন মুখ্যমন্ত্রী ফের একবার বুঝিয়ে দিয়েছেন, দুর্নীতির অভিযোগ উঠলে দলের কাউকেই রেয়াত করা হবে না৷

 
Published by: Debamoy Ghosh
First published: July 8, 2020, 1:20 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर