Exclusive: কতটা সিলেবাসের ওপর আগামী বছরের মাধ্যমিক? প্রস্তাব জমা স্কুল শিক্ষা দপ্তরে, যাবে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে

Exclusive: কতটা সিলেবাসের ওপর আগামী বছরের মাধ্যমিক? প্রস্তাব জমা স্কুল শিক্ষা দপ্তরে, যাবে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে
মোট সিলেবাসের ২৫% কাটছাঁট করা হতে পারে বলেই স্কুল শিক্ষা দপ্তর সূত্রে খবর

মোট সিলেবাসের ২৫% কাটছাঁট করা হতে পারে বলেই স্কুল শিক্ষা দপ্তর সূত্রে খবর

  • Share this:

#কলকাতা: কতটা সিলেবাসের উপর আগামী বছরের মাধ্যমিক অর্থাৎ ২০২১ এর মাধ্যমিক হতে চলেছে? তা নিয়েই এবার খসড়া প্রস্তাব জমা পড়ল রাজ্য স্কুল শিক্ষা দপ্তরের কাছে। সূত্রের খবর সিলেবাস কমিটি চলতি সপ্তাহে রিপোর্ট জমা দিয়েছে রাজ্য স্কুল শিক্ষা দপ্তরের সচিবের কাছে। খসড়া রিপোর্টে মূলত কতটা সিলেবাসের ওপর ২০২০-এর মাধ্যমিক নেওয়া যেতে পারে তার একটি রূপরেখা নির্দিষ্ট করে দেওয়া হয়েছে বলে সূত্র মারফত জানা গেছে।

সূত্রের খবর গত বছর মাধ্যমিক পরীক্ষায় যে যে বিষয়গুলি এসেছিল সেই অংশগুলি এবারের মাধ্যমিক পরীক্ষা অর্থাৎ ২০২১ এর মাধ্যমিক পরীক্ষায় বাদ দেওয়া হতে পারে। সে ক্ষেত্রে মোট সিলেবাসের ২৫% কাটছাঁট করা হতে পারে বলেই স্কুল শিক্ষা দপ্তর সূত্রে খবর। এই ২৫% কাটছাঁটের মধ্যে গত বছর মাধ্যমিক পরীক্ষায় যেসব বিষয় গুলি এসেছিল সেই প্রসঙ্গ বাদ দেওয়ার কথা উল্লেখ করেই ২৫% কাটছাঁট করার কথা বলা হয়েছে বলেই স্কুল শিক্ষা দপ্তর সূত্রে খবর। যদিও এই বিষয় নিয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাননি সিলেবাস কমিটির চেয়ারম্যান অভীক মজুমদার। তিনি বলেন " আমি এই বিষয়ে এখন কোনও মন্তব্য করতে পারব না।"


২০২১-এর মাধ্যমিক পরীক্ষা কবে এবং কতটা সিলেবাসের উপরেই আগামী বছরের মাধ্যমিক হতে চলেছে সেই বিষয়ে এখনও পর্যন্ত আনুষ্ঠানিকভাবে রাজ্যের তরফে কিছু জানানো হয়নি। অক্টোবর মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহ কেটে গেলেও এখনও পর্যন্ত মাধ্যমিক পরীক্ষার সূচি ঘোষিত না হওয়ায় বিশেষজ্ঞদের একাংশের মতে ফেব্রুয়ারি মাসে মাধ্যমিক পরীক্ষা হওয়ার সম্ভাবনা কার্যত নেই বললেই চলে। কেননা গত দু'বছর ধরে মাধ্যমিকের পরীক্ষার সূচি ঘোষিত হওয়ার অন্তত ৭ থেকে ৮ মাস ছাত্র-ছাত্রীদের সময় দেওয়া হচ্ছে। শুধু তাই নয় পরীক্ষা অন্তত ৬০ দিন আগে ছাত্র-ছাত্রীদের মাধ্যমিকের টেস্ট পরীক্ষা নেয় স্কুল গুলি। সে ক্ষেত্রে সিলেবাস চূড়ান্ত না হওয়ায় এখনও পর্যন্ত স্কুল গুলি ঠিকই করতে পারিনি কত সিলেবাস এর ওপর ছাত্র-ছাত্রীদের যাচাই করে নেওয়ার জন্য টেস্ট পরীক্ষা নেবে। এখনও পর্যন্ত পরিসংখ্যান বলছে প্রত্যেকটি স্কুলে মার্চ মাস পর্যন্ত স্কুল হওয়ায় ৩০ থেকে ৩৫ শতাংশ পর্যন্ত সিলেবাস শেষ করা গেছে। কিন্তু এই সিলেবাসের পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব নাকি তা নিয়েই পর্ষদের কাছে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের একাংশ সংশয় প্রকাশ করেছে।

সম্প্রতি শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের পরীক্ষা নিয়ে মন্তব্য বিধানসভা ভোটের পরেই হওয়ার জল্পনা বাড়িয়েছে। শুধু তাই নয় এর পাশাপাশি শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছিলেন মাধ্যমিকের পরীক্ষা সূচি ঘোষণা এবং সিলেবাস কতটা কমানো যেতে পারে সেই বিষয়ে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা চলছে। মধ্যশিক্ষা পর্ষদ এর পাশাপাশি উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা চলছে সেই বিষয়ক গত বুধবার জানিয়েছিলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তবে পরীক্ষাসূচি থেকে সিলেবাস সবটাই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে আলোচনা করেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলেও শিক্ষামন্ত্রী স্পষ্ট করেছিলেন। সূত্রের খবর মাধ্যমিকের সিলেবাস কতটা কমানো যেতে পারে সেই সংক্রান্ত রূপরেখা রাজ্য স্কুল শিক্ষা দপ্তরের কাছে ইতিমধ্যেই জমা পড়েছে। তবে ২৫% সিলেবাস কাটছাঁটের কথা বলা হলেও এখনও পর্যন্ত স্কুলগুলিতে মাধ্যমিকের দশম শ্রেণি ৩০ থেকে ৩৫ শতাংশ সিলেবাস ক্লাস করে শেষ করা সম্ভব হয়েছে। অনলাইনে ক্লাস হলেও সাফল্য পায়নি গ্রামাঞ্চলের স্কুলগুলিতে। সে ক্ষেত্রে বাকি অংশ সিলেবাস শেষ করতে হলে স্কুল চালু করেই শেষ করতে হবে। যদিও এই বিষয় সম্পর্কে সুস্পষ্ট ভাবে কিছু বলা হয়েছে নাকি সেই বিষয়ে অবশ্য কোন খবর জানা যায়নি। সেক্ষেত্রে আগামী সপ্তাহে সম্ভবত মাধ্যমিকের সিলেবাস সম্পর্কিত কিছু নির্দিষ্ট সিদ্ধান্ত বেরিয়ে আসতে পারে বলেই স্কুল শিক্ষা দপ্তর সূত্রে খবর।

 সোমরাজ বন্দ্যোপাধ্যায়

Published by:Ananya Chakraborty
First published:

লেটেস্ট খবর