Madan Mitra: আগুন পর্ব মিটতেই লাইভে মদন মিত্র! ধকল কাটতেই মুখে সেই 'ওহ লাভলি'

বাড়িতে আগুন। তবু লাইভে খোসমেজাজে মদন মিত্র।

Madan Mitraএ দিন সকালে আগুন লেগেছিল মদন মিত্রর ভবানীপুরের বাড়িতে। সিওপিডি রোগী মদনের শরীরে ধাক্কাই লেগেছে একরকম।

  • Share this:

#কলকাতা: সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড়, আগুন লেগেছে মদন মিত্রের বাড়িতে। সকাল থেকেই তাই ভক্তকুল সোশ্যাল মিডিয়ায় হাজারো প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়েছেন। আগুন নিভিয়ে, সোশ্যাল মিডিয়ায় আগাম লাইভে সময় জানিয়ে ফের ফেসবুক লাইভে এলেন কামারহাটির বিধায়ক, ভবানীপুরের ঘরের ছেলে মদন মিত্র (Madan Mitra)।

এ দিন সকালে আগুন লেগেছিল মদন মিত্রর ভবানীপুরের বাড়িতে। সিওপিডি রোগী মদনের শরীরে ধাক্কাই লেগেছে একরকম। আগুন পর্ব মিটতে লাল গেঞ্জি আর মুখে অক্সিজেন মাস্ক পড়ে সরকারের কাজের গালভরা প্রশংসা শোনা গিয়েছিল মদন মিত্রকে। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ায় বিপুল জনপ্রিয় মদন মিত্র কেন লাইভে এসে কোনও কথা জানাচ্ছেন না। কেমন আছেন তিনি? কী হয়েছিল? এমন হাজারো প্রশ্ন উঁকি দিয়েছিল।

তাই ঘড়ির কাঁটায় ১টা ২০মিনিট বাজতেই তিনি ইঙ্গিত দিয়েছিলেন তিনি আসছেন 'লাইভে'। যদিও গত শনিবারই মমতা বন্দোপাধ্যায় ধমক দিয়েছিলেন মদন মিত্রকে। তাঁর নানা ইস্যুতে লাইভ নিয়ে একাধিক বার বিব্রত হতে হচ্ছে দলকে। দলনেত্রীর এই কড়া শাসনের পরে অবশ্য কিছুটা হলেও সোশ্যাল মিডিয়ায় লাইভ কমেছে মদন মিত্রের। তবে তিনি লাইভে আসলেই আগ্রহ নিয়ে তার অনুগামীরা বসে থাকে৷ এদিনও তার অন্যথা হয়নি। ৮ মিনিট ৪০ সেকেন্ডের লাইভে মদন মিত্র অবশ্য হাজির হয়েছিলেন এসএসকেএম হাসপাতাল থেকে৷ কারণ এদিনই ছিলেন তৃণমূল ছাত্র পরিষদের তরফে আয়োজিত রোগী ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের খাবার প্রদান অনুষ্ঠানে।

সেখানে একদিকে তিনি তোপ দেগেছেন বিজেপিকে। অন্যদিকে অভিষেকের কাজের প্রশংসা করেছেন। লাইভে মদন মিত্র বলছেন, ''আমার বাড়িতে আগুন লেগেছে তা দেখে বিজেপির অফিসে আগুন লেগে গেছে।মদন মিত্র এমন একটা লোক যাকে আগুন স্পর্শ করতে পারে না। বায়ু আঘাত করতে পারে না। ভয় যাকে আঘাত করতে পারে না। অভিষেক এই নামটাই স্বার্থক।  দারুণ একটা টিম নিয়ে কাজ করছি। আপনারা ভাবতে পারবেন না। সিপিএম ৩৪ বছর ছিল। কখনও ভেবেছে রোগীদের বিনামূল্যে খেতে দেবে। চেস্ট এক্সরে করাতে ৫০ টাকা নিত। এখন এক্সরে, অপারেশন, খাবার সব ফ্রি৷ এই খাবার করতে পাঁচ তারায় ৫০০০ লাগে? আমরা সেই টাকায় ১০ হাজার লোককে খাওয়াই। আমরা যতক্ষণ পারব মানুষকে খাওয়াব। ২০জন ছেলে বেছে রোজ খাওয়াব৷ মানুষকে বোঝাতে হবে, বাংলায় হেরে গিয়ে মোদি হঠাৎ বলতে পারে ভ্যাকসিন ফ্রি। কিন্তু আমরা জিতেও মানুষকে ফ্রি তে খাওয়াব। ৫ রাজ্যেও হারবে ওরা। এবার আর শুধু হিন্দুত্ব নয়। এবার হবে লড়াই। মোদী-অমিতের মুখে ভাষা নেই। ভ্যাকসিন কি ওদের নাকি? ওটা মানুষের। এর পর ভ্যাকসিনের সাথে গিফট দেব আমরা। মনে রাখবেন আমার নাম।জোটের নেতৃত্ব দেবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  ছাত্র পরিষদ, যুব রাস্তায় নামবে। আমি মিছিলে যাব। সায়নীর সাথে আমার কথা হয়েছে।"

তবে ফেসবুক লাইভে বলতে ভোলেননি তার সিগনেচার টোন "ওহ লাভলি"।

Published by:Arka Deb
First published: