NRS-এ সদ্যোজাত মৃত্যুতে বিতর্ক, ৫ দিনের মধ্যে রিপোর্টের নির্দেশ স্বাস্থ্য দফতরের

NRS-এ সদ্যোজাত মৃত্যুতে বিতর্ক, ৫ দিনের মধ্যে রিপোর্টের নির্দেশ স্বাস্থ্য দফতরের
শিশুমৃত্যু তদন্তে ৩ সদস্যের কমিটি

সুতোর নমুনা সংগ্রহ করেছে রাজ্য ড্রাগ কন্ট্রোলের তদন্ত কমিটি।

  • Share this:

#কলকাতা: অস্ত্রোপচারের পর বারবার সুতো ছিঁড়ে যাওয়ায়, তিনবার সেলাই। তার জেরেই সদ্যোজাতর মৃত্যুর অভিযোগ পরিবারের। কাঠগড়ায় এনআরএস হাসপাতাল। পরিবারের অভিযোগ, বাইরে থেকে সেলাইয়ের সুতো কিনে আনতে বলেছিলেন চিকিৎসক। আরও এক শিশুর অবস্থা আশঙ্কাজনক। সুতোর নমুনা সংগ্রহ করেছে রাজ্য ড্রাগ কন্ট্রোলের তদন্ত কমিটি। সেলাইয়ের পরই ছিঁড়ে যাচ্ছিল সুতো। তাই সদ্যোজাত মলদ্বারে বারবার অস্ত্রোপচার। সেই ধকল নিতে না পেরেই শিশু মৃত্য়ুর অভিযোগ। কাঠগড়ায় নীলরতন সরকার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পেডিয়াট্রিক সার্জারি বিভাগ। প্রথমবার ১৮ ফেব্রয়ারি মলদ্বারে অপারেশন হয় উত্তর চব্বিশ পরগনার বাদুরিয়ার বাসিন্দা লিভিয়া পারভিন। কিন্তু সুতো ছিঁড়ে যাওয়া ফের ২২ ফেব্রুয়ারি অস্ত্রোপচার হয়।

কিন্তু তাতেও রক্ষা হয়নি। দ্বিতীয় বার অস্ত্রোপচারের পরও সেলাই ছিঁড়ে যায়। শেষে বাইরে থেকে ১৪ শো ছাপ্পান্ন টাকায় সুতো কিনে দেয় সদ্যোজাতর পরিবার। ২৬ ফেব্রুয়ারি তৃতীয়বার সদ্যোজাতর অস্ত্রোপচার করেন চিকিৎসক। ৯ দিনে তিন তিন বার সেলাই। ক্ষতস্থান থেকে রক্ষক্ষরণ, সংক্রমণ। ধকল নিতে না পেরে দশ দিনের শিশুর মৃত্যু। পরিবারের অভিযোগ, নিম্নমানের সুতো দিয়ে সেলাই করায় মৃত্যু হয়েছে সদ্যোজাতর। শুধু মোর্তাজার সন্তানই নয়, অভিজিত মন্ডলের শিশুর ক্ষেত্রেও একই ঘটনা। ১৬ ফেব্রয়ারি এমআর বাঙ্গুর হাসপাতালে জন্ম নেয় অভিজিতবাবুর সন্তান। ১৭ তারিখ এনআরএসে পেডিয়াট্রিক বিভাগে ভরতি করা হয় শিশুকে। ১৮ ফেব্রয়ারি শিশুর অপারেশন, কিন্তু সেলাইয়ের সুতো ছিঁড়ে যায়। বাইরে থেকে ১,৪০০ টাকায় সুতো কিনে দেয় পরিবার। ২৪ ফেব্রুয়ারি ফের শিশুর অপারেশন হয়। পরিবারের অভিযোগ, দু-দুটি অপারেশনের ধাক্কা সামলাতে না পেরেই শিশুর শারীরিক অবস্থা খারাপ হয়েছে। ১৮ ফেব্রুয়ারি সদ্যোজাত আরও ৯ শিশুর অস্ত্রোপচারেও এই বিপত্তি। নিম্নমানের সেলাইয়ের সুতো ব্যবহারের অভিযোগে রাজ্য ড্রাগ কন্ট্রোল তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। শুক্রবার হাসপাতালে গিয়ে সুপার-ডেপুটি সুপার ও পেডিয়াট্রিক বিভাগের চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলেন তাঁরা। ৭ দিনের মধ্যে স্বাস্থ্য দফতরে রিপোর্ট জমা দিতে হবে।

ABHIJIT CHANDA

First published: February 28, 2020, 11:28 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर