রাজ্যে সাত দফায় ভোট নিয়ে চড়ছে রাজনীতির পারদ

হাতে মাত্র ৪দিন আছে ৷ এরই মধ্যে ভোটার কার্ড প্রস্তুত না করলে আসন্ন লোকসভায় ভোট দেওয়া যাবেনা ৷ প্রতীকী ছবি ৷

  • Share this:

    #কলকাতা: রাজ্যে নজিরবিহীনভাবে সাত দফায় ভোট নিয়ে চড়ছে রাজনীতির পারদ। তৃণমূলের প্রশ্ন, গুজরাতে এক দফা হলে এরাজ্যে সাত দফা কেন? বিজেপির অবশ্য যুক্তি, পঞ্চায়েত ভোটের অভিজ্ঞতা থেকেই এই পদক্ষেপ। একই যুক্তিতে বিজেপিশাসিত উত্তরপ্রদেশ বা বিহারেও কি সাত দফায় ভোট ? উঠছে পাল্টা প্রশ্নও। বিজেপির বিরুদ্ধে দেশ জুড়েই তাল ঠুকছিল বিরোধীরা। রবিবার নির্বাচন কমিশনের দিনক্ষণ ঘোষণার পর থেকেই সেই সুর সপ্তমে। প্রথম প্রশ্ন উঠল, বেনজিরভাবে এরাজ্যে সাত দফায় ভোট নিয়ে। গতবার, অর্থাৎ ২০১৪ সালে দেশে যখন ৯ দফায় ভোট হয়, তখন, এরাজ্যে রাজ্যে মাত্র ৫ দফাতেই লোকসভা ভোট হয়। অথচ, এবার গোটা দেশেই অপেক্ষাকৃত কম, অর্থাৎ ৭ দফায় ভোট। কিন্তু, এরাজ্যে আগের থেকে বেড়ে ভোট হবে ৭ দফায়। এই প্রসঙ্গে আগেই অসন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন মেয়র ফিরহাদ হাকিম ৷ তিনি প্রশ্ন তুলেছিলেন, গুজরাতে এক দফা হলে, এরাজ্যে সাত দফায় ভোট কেন? বিজেপির অবশ্য দাবি, গত পঞ্চায়েত ভোটের অভিজ্ঞতা থেকেই এরাজ্যে সাত দফায় ভোট। কিন্তু, বিজেপি নেতাদের এই দাবি ঘিরেই উঠছে মোক্ষম প্রশ্ন। ৮০ লোকসভা আসনের উত্তরপ্রদেশে ৭ দফায় ভোট ৷ লোকসভায় ৪০ আসনের বিহারেও ৭ দফায় ভোট ৷ উত্তরপ্রদেশ ও বিহার, দুটি রাজ্যেই ক্ষমতায় বিজেপি বা তাদের জোট সরকার। তাহলে, সেখানেও কি আইনশৃঙ্খলা ভেঙে পড়েছে, তাই ৭ দফায় ভোট ? আসলে, বিজেপির টার্গেট পশ্চিমবঙ্গে পায়ের তলার মাটি শক্ত করা। বিহার, উত্তরপ্রদেশ-সহ নিজেদের ঘাঁটি এলাকায় বিরোধিতার চোরাস্রোত। তাই, আসলে ঘুরপথে বিরোধীদের উপর চাপ তৈরির পথেই হাঁটছে গেরুয়াশিবির। বিজেপির লক্ষ্য, এরাজ্যে আইনশৃঙ্খলা নিয়ে বিরুদ্ধ প্রচার ৷ আইনশৃঙ্খলা নিয়ে জনসভায় 'মোদি-মডেল' তুলে ধরা ৷ উত্তরপ্রদেশে সপা-বিএসপি জোটে নিজভূমেই চাপে বিজেপি ৷ বিহারে বিজেপি, জেডিইউ ও এলজেপি জোট হলেও সক্রিয় বিরোধীরা ৷ 'শটগান' হিসেবে পরিচিত দলীয় সাংসদ শত্রুঘ্ন সিনহাকে নিয়েও অস্বস্তিতে বিজেপি ৷

    মাথার উপর পাহাড়প্রমাণ চাপ। লোকসভা ভোটে কি তাই নয়া কৌশলে বাজিমাত করতে চাইছে বিজেপি ? সেটি নিয়েও উঠছে প্রশ্ন ৷

    First published: