ডিম-ভাত নয়, বামেদের ব্রিগেডের মেনু রুটি-তরকারি, বাড়ি বাড়িতে তৈরি হচ্ছে দশ লক্ষের খাবার!

ডিম-ভাত নয়, বামেদের ব্রিগেডের মেনু রুটি-তরকারি, বাড়ি বাড়িতে তৈরি হচ্ছে দশ লক্ষের খাবার!

প্রতীকী চিত্র।

'ডিম-ভাত'? না, বামেরা চাইছেন মেহনতি মানুষের মুখে রুটি-সবজি তুলে দিতে।

  • Share this:

    #কলকাতা: দশ লক্ষ মানুষকে মাঠে এনে ঐতিহাসিক সমাবেশ করাই লক্ষ্য বামেদের। পাহাড় থেকে সাগর, সব জেলার সব বুথ থেকে লোক চাইছন মরিয়া বামেরা। কিন্তু লোক আনলেই তো হল না। তাদের থাকা খাওয়ার বন্দোবস্তও করতে হবে। কী খাওয়াবেন বামেরা? 'ডিম-ভাত'? না, বামেরা চাইছেন মেহনতি মানুষের মুখে  রুটি-সবজি তুলে দিতে।

    এবারে বামেদের ব্রিগেডে চমকের শেষ নেই। শক্তি দেখাতে কংগ্রেসও চাইছে সব জেলা থেকে কর্মীদের হাজির করতে। থাকবে আব্বাস সিদ্দিকির ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের সমর্থকরাও। এত মানুষকে জায়গা দিতে কংগ্রেসর তরফে ইতিমধ্যেই হাওড়া, মধ্য কলকাতার বেশ কিছু ধর্মশালা, হোটেল বুক করা হয়েছে। বুক করা হয়েছে বহু কমিউনিটি সেন্টার। বহু মানুষ আজই কলকাতা পৌঁছে যাবেন। সিপিএম-এর কলকাতা জেলা সম্পাদক কল্লোল লাহিড়ি বললেন, ব্রিগেডের মাঠে কিছু ক্যাম্প করে তাঁদের থাকার বন্দোবস্ত করা হচ্ছে।

    দূরদূরান্ত থেকে আসা এই সমর্থকদের জন্য অন্তত তিনবেলার খাদ্যের বন্দোবস্ত করতে হবে। এছাড়া রবিবার সকাল থেকে মাঠ ভরাবেন যারা, সেই সমর্থকদেরও দিতে হবে টিফিন, দুপুরের খাবার। কী ভাবে তৈরি হবে এত খাবার? কল্লোল মজুমদার বললেন, "কোনও এক জায়গায় খাবার তৈরি হবে না। আমরা সমস্ত এরিয়া কমিটিগুলিকে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে খাবার পৌঁছে দিতে বলেছি। খাবার হিসেবে থাকবে রুটি সবজির প্যাকেট। সমর্থকদের ঘরে ঘরে তৈরি হচ্ছে এই খাবার।"

    এখানেই শেষ নয়, বিভিন্ন জেলায় জেলায় বাড়ি বাড়ি ঘুরে শুকনো খাবার সংগ্রহও করছেন কর্মীর। ব্রিগেডে আসবে মানুষের পাঠানো মুড়ি, চানাচুরও, লাড্ডুও। নেতাদের শুনতে এসে কেউ যেন অভুক্ত না থাকে সে দিকেই নজর দিতে চান বামেরা।

    Published by:Arka Deb
    First published: