Home /News /kolkata /

ভাঙড় আন্দোলনের পিছনে রয়েছে জমি মাফিয়াদের হাত: সূত্র

ভাঙড় আন্দোলনের পিছনে রয়েছে জমি মাফিয়াদের হাত: সূত্র

File Photo

File Photo

বিলাসবহুল আবাসনের ওপর দিয়ে হাইপারটেনশন তার গেলে কি হবে? অশনি সংকেত দেখেছিলেন আবাসন ব্যবসায়ীরা।

  • Share this:

    #কলকাতা:  বিলাসবহুল আবাসনের ওপর দিয়ে হাইপারটেনশন তার গেলে কি হবে? অশনি সংকেত দেখেছিলেন আবাসন ব্যবসায়ীরা। বহু বছর ধরে কোটি কোটি টাকা বিনিয়োগে গড়ে তোলা আবাসনের জন্য ক্রেতা মিলবে তো? এই আশঙ্কা থেকেই মাঠে নামানো হয় জমি মাফিয়াদের। আগে ভয় দেখিয়ে জমি নিতে এদের ব্যবহার করা হয়েছিল। এবার বিদ্যুত প্রকল্প বানচালেও জমি মাফিয়াদের বরাত দেয় আবাসন সংস্থাগুলো। ভাঙড়ের এক ডজনের বেশি আবাসন প্রকল্পের জন্য জমি জোগাড়ের দায়িত্ব নেওয়া হয়েছিল শাসকদলের স্থানীয় নেতাদের। তারাই পরে পুরোদস্তুর জমি মাফিয়া হিসাবে কাজ শুরু করেন। গড়ে ওঠে একের পর এক সিন্ডিকেট। কোনটা মাটি ভরাট করার - কোনটা আবার পছন্দমতো জমির ব্যবস্থা করে দেওয়ার। ভয় দেখিয়ে এলাকাবাসীকে জমি দিতে বাধ্য করে জমি মাফিয়ারা। বিদ্যুত প্রকল্পের কাজ শুরুর পর বরং উৎ‍সাহিতই হয়েছিল আবাসন সংস্থাগুলো। ততদিনে জমি পাওয়া হয়ে গিয়েছে। প্রকল্পের কাজও শুরু হয়ে গিয়েছে। তপোবন, উন্নয়ন, গীতাজ্ঞলী, বৈদিক ভিলেজ এক্সটেনশনের মতো একাধিক বিলাসবহুল আবাসনের জন্য বিজ্ঞাপন দেওয়াও শুরু হয়ে যায় ৷ তবে এই সাবস্টেশন ঘিরে যে হাইপারটেনশন বিদ্যুৎ‍ নিয়ে যাওয়া হবে, তা ভাবতে পারেননি আবাসন ব্যবসায়ীরা। গোকর্ন থেকে ভাঙড়ে এসে এই লাইনে উন্নত করার সিদ্ধান্ত হয়। বহুতল আবাসনগুলির ওপর দিয়েই যেত হাইপারটেনশন তার। আবাসনের চাহিদা তলানিতে ঠেকতে পারে, এই আশঙ্কায় আবারও জমি মাফিয়াদের দ্বারস্থ হয় ব্যবসায়ীরা। অভিযোগ, ব্যবসায়ী-মাফিয়া চুক্তিতে মূল ভূমিকা নেয় শাসকদলের নেতারাই। ৬ থেকে ১০ বছর ধরে জমি কেনার কাজ চলেছিল। এর বড় অংশই ছিল বহুফলসী জমি। ধান- শাকসব্জী-চাষ বন্ধ হওয়ায় অনেকেই বেকার হয়ে পড়েন। জমি ফিরে পাওয়ায় আশায় বুক আশায় জমি মাফিয়াদের উস্কানিতে সাড়া দিতে বেশি সময় লাগেনি নিরীহ গ্রামবাসীদের।

    First published:

    Tags: Bhangar, Bhangar Acquised farmers Land, Bhangar Agitation

    পরবর্তী খবর