Home /News /kolkata /
Laft Congress Alliance: কংগ্রেস নেই, বামফ্রন্টের কেন্দ্রবিরোধী আন্দোলনে সামিল CPI (ML)-PDS!

Laft Congress Alliance: কংগ্রেস নেই, বামফ্রন্টের কেন্দ্রবিরোধী আন্দোলনে সামিল CPI (ML)-PDS!

বাম-কংগ্রেস জোটের ভবিষ্যৎ কী?

বাম-কংগ্রেস জোটের ভবিষ্যৎ কী?

Laft Congress Alliance: কংগ্রেসের মধ্যেই যখন জোট সম্পর্ক ছিন্ন করার দাবি উঠছে তখন বসে নেই বামফ্রন্টও৷ সাম্প্রতিক কালে বেশ কিছু বিষয়ে একসঙ্গে আন্দোলনে নেমেছিল বাম- কংগ্রেস৷

  • Share this:

    #কলকাতা: বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য, মীনাক্ষী মুখোপাধ্যায়দের মতো সিপিএম নেতা-নেত্রীদের বিতর্কিত পোস্টকে কেন্দ্র করে মহা জটিলতায় জোট। আর তাতেই উত্তপ্ত হয়ে উঠল বামফ্রন্টের বৈঠকও৷ সিপিএম নেতাদের সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট থেকে কেন বিতর্কিত পোস্ট করা হচ্ছে, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে শরিক দলগুলি৷ যদিও বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু স্পষ্ট করে দিয়েছেন, এই পোস্টের দায় দলের নয়, ব্যক্তির৷ এই পরিস্থিতিতে বিতর্কিত পোস্টকে হাতিয়ার করেই বামেদের সঙ্গে জোট ছিন্ন করার দাবি জানিয়ে প্রদেশ কংগ্রেস নেতাদের একাংশ কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধিকে চিঠি দিয়েছেন। কংগ্রেসের মধ্যেই যখন জোট সম্পর্ক ছিন্ন করার দাবি উঠছে তখন বসে নেই বামফ্রন্টও৷ সাম্প্রতিক কালে বেশ কিছু বিষয়ে একসঙ্গে আন্দোলনে নেমেছিল বাম- কংগ্রেস৷ কিন্তু মঙ্গলবারের বামফ্রন্টের বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের মূল্যবৃদ্ধির বিরুদ্ধে কংগ্রেসকে বাদ দিয়েই আন্দোলনে নামবে তাঁরা৷ সব মিলিয়ে জোটের ভবিষ্যৎ নিয়ে সংশয় ক্রমশ বাড়ছে৷

    জানা গিয়েছে, পেট্রোপণ্য এবং নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে আগামী ২৪ জুন থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত কেন্দ্র বিরোধী আন্দোলনে পা মেলাবে রাজ্যের বামদলগুলি। এই আন্দোলনে বামফ্রন্টের শরিকদলগুলো তো থাকবেই, তাৎপর্যপূর্ণভাবে থাকবে সিপিআইএমএল ও পিডিএস-এর মত দলগুলিও। প্রসঙ্গত দিল্লিতেও আজ থেকেই আন্দোলন সংগঠিত করছে বামদলগুলি। রাজধানীর বুকে আন্দোলন চলবে আগামী ১৫ দিন।

    বস্তুত বাম- কংগ্রেস জোটের ভবিষ্যৎ নিয়ে সংশয় কিছুতেই যাচ্ছে না৷ মঙ্গলবারই বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্যের পোস্টের কথা উল্লেখ করে বামেদের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করার জন্য সোনিয়া গান্ধিকে চিঠি দিয়েছেন প্রদেশ কংগ্রেস নেতাদের একটা বড় অংশ৷ আর সেই সূত্রেই কংগ্রেসকে বাদ দিয়েই নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের মূল্যবৃদ্ধির বিরুদ্ধে আন্দোলনে নেমে বামফ্রন্টকে শক্তিশালী করতে চেষ্টা চালাচ্ছে সিপিএম।

    প্রসঙ্গত, সাঁইবাড়ি হত্যাকাণ্ডের নেপথ্যে 'কংগ্রেসি গুন্ডাদের' দায়ী করে ফেসবুকে পোস্ট করেছিলেন বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য, মীনাক্ষী মুখোপাধ্যায়রা৷ সেই পোস্ট নিয়ে আপত্তি তোলে কংগ্রেস। সিপিএম রাজ্য সম্পদাক সূর্যকান্ত মিশ্রকে রুষ্ট হয়ে চিঠিও দিয়েছে কংগ্রেস৷ যদিও সেই পোস্টের দায় দলের নয় বলেই জানিয়েছেন বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু। তিনি বলেন, 'দল হিসেবে সিপিএম এই পোস্টকে সমর্থন করে না৷' তবে, সিপিআইএল বা পিডিএস-এর মতো দলগুলিকে যেভাবে সিপিএম আবার কাছে ডেকে নিচ্ছে, তা বঙ্গ রাজনীতির ক্ষেত্রে তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

    Published by:Suman Biswas
    First published:

    পরবর্তী খবর