মহিলা বক্সারকে নিগ্রহ, এক বছরের সাজা ঘোষণা করল আলিপুর আদালত

মহিলা বক্সারকে নিগ্রহ, এক বছরের সাজা ঘোষণা করল আলিপুর আদালত

গত ২৮ শে জুন খিদিরপুরে এক মহিলা বক্সারের শ্লীলতাহানি ও কটুক্তির অভিযোগ আসে। প্রায় আটমাস পরে তিন অভিযুক্তের এক বছর সাজা ঘোষণা

  • Share this:

#কলকাতা: গত ২৮ জুন বেলা সাড়ে ১১টা নাগাদ নিজের স্কুটারে অফিসে যাচ্ছিলেন আন্তর্জাতিক স্তরে সাফল্য পাওয়া মহিলা বক্সার। রাস্তায় তিন যুবক তাঁকে উদ্দেশ্য করে কটূক্তি করে। সুমন জানিয়েছিলেন, তাঁর স্কুটারের সামনে দিয়ে ওই তিন যুবক বাস ধরতে যান। তিনি তাঁদের জায়গা করে দিয়েছিলেন। কিন্তু তাও ওই যুবকরা তাঁকে গালিগালাজ করে। এর পরই তিনি প্রতিবাদ করার জন্য ওই বাসটিকে ধাওয়া করে পরের বাস স্টপ পর্যন্ত যান এবং সেখানে ওই যুবকদের প্রশ্ন করেন কেন তাঁকে গালিগালাজ করা হয়েছে।

‌অভিযোগ, প্রশ্ন শুনেই ওই তিন যুবক বাস থেকে নেমে এসে তাঁকে ফের গালিগালাজ দেওয়া শুরু করে, হুমকি দেয় এবং গলা চেপে ধরে। তাঁকে মারধর করতে শুরু করলে তিনি সাহায্য চেয়ে চেঁচিয়ে ওঠেন। এই ঘটনার পর সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিযোগ জানান মহিলা বক্সার। পুলিশ যোগাযোগ করে মহিলার সঙ্গে,  দক্ষিণ বন্দর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন মহিলা।  ঘটনার দিনই গ্রেফতার করা হয় তিন অভিযুক্ত সেখ ফিরোজ, ওয়াসিম খান এবং রাহুল শর্মাকে।

ঘটনার ১১ দিনের মধ্যে ৮ জুলাই দক্ষিণ বন্দর থানার তদন্তকারীরা ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৫৪,৫০৬,৫০৯ এবং ১১৪ ধারায় চার্জশিট জমা দেয় পুলিশ। চার্জ গঠনের সময় আদালত ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩২৩ ধারা যুক্ত করার নির্দেশ দেয়। মঙ্গলবার  ভারতীয় দন্ডবিধির ৩৫৪ ধারায় এক বছরের সাজা ও পাঁচ হাজার টাকা জরিমানার নির্দেশ দেন। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩২৩ ধারায় এক বছর সাজা ও এক হাজার টাকা হাজার জরিমানা করা হয়। নিগৃহীতা বক্সার জানান এই রায়ে খুশি তিনি। সরকারি আইনজীবী সৌরিন ঘোষাল জানান অভিযুক্তরা জেল হেফাজতে থেকে এই ঘটনার কঠোরতম শাস্তি হোক। অভিযুক্তপক্ষের আইনজীবী অর্নিবান গুহ ঠাকুরতা জানান রায়ের প্রতিলিপি পেয়ে উচ্চ আদালতে যেতে পারেন তারা।

First published: February 25, 2020, 8:37 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर