Home /News /kolkata /
Abhishek Banerjee: "ওরা চান জট থাক, চাকরি আটকে থাক", অভিষেকের বৈঠক নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় আক্রমণাত্মক কুণাল

Abhishek Banerjee: "ওরা চান জট থাক, চাকরি আটকে থাক", অভিষেকের বৈঠক নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় আক্রমণাত্মক কুণাল

সাংবাদিক বৈঠকে কুণাল ঘোষ

সাংবাদিক বৈঠকে কুণাল ঘোষ

Abhishek Banerjee: অভিষেক জট খুলতে উদ্যোগী হতেই আক্রমণ করছেন বিরোধীরা। বিজেপি, সিপিএম, কংগ্রেস নেতারা প্রশ্ন তুলেছেন, অভিষেক রাজ্য সরকারের কেউ নন। তা হলে বৈঠক তাঁর সঙ্গে কেন?

  • Share this:

#কলকাতা: এসএসসি নবম-দ্বাদশ ২০১৬ আন্দোলনকারী চাকরিপ্রার্থীদের প্রতিনিধিদলের সঙ্গে ইতিমধ্যেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বৈঠক হয়েছে। তাঁর ক্যামাক স্ট্রিট অফিসে হয় সেই বৈঠক। শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুও ছিলেন। রাজ্যের শাসক দলের বক্তব্য, অভিষেক বন্দোপাধ্যায় এই সমস্যার সমাধানে উদ্যোগী। তবে এর বেশ কিছু প্রশাসনিক ও আইনি জটিলতা আছে। সেই জট কাটানোর পথ খোঁজা চলছে দু'তরফেই। বৈঠকের গতিপ্রকৃতিকে আন্দোলনকারীরাও ইতিবাচক বলে জানিয়েছেন।  আগামী ৮ অগাস্ট পরবর্তী বৈঠক হবে ব্রাত্য বসুর দফতরে। সেখানে কমিশনের চেয়ারম্যানও থাকবেন। অভিষেক জট খুলতে উদ্যোগী হতেই আক্রমণ করছেন বিরোধীরা। বিজেপি, সিপিএম, কংগ্রেস নেতারা প্রশ্ন তুলেছেন, অভিষেক রাজ্য সরকারের কেউ নন। তা হলে বৈঠক তাঁর সঙ্গে কেন?

আরও পড়ুন- রাশিফল ১ অগাস্ট; দেখে নিন কেমন যাবে আজকের দিন

তার জবাবে তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ জানিয়েছেন, "অভিষেক জট খুলে প্রার্থীদের চাকরি দেওয়ার পথের সন্ধান করছেন। এখানে আপত্তি আর জলঘোলা করার মানে হল বিরোধীরা চায় না জট খুলুক। চাকরি হোক। এরা চায় চাকরির জটিলতা থাক এবং আন্দোলন চলুক। এই বিরোধীরা প্রার্থীদের নিয়ে রাজনীতি করতে আগ্রহী। এদের মুখোশ খুলে গেল।  দলের তরফে দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক জট কাটানোর বৈঠক করতেই পারেন। এটা তো সদিচ্ছা, আন্তরিকতার প্রমাণ। দলের সর্বোচ্চ নেত্রীর সঙ্গে যথাযথ যোগাযোগ রেখে তিনি আলোচনা শুরু করেছেন।"

আরও পড়ুন- ইলেকট্রিক প্লাগের তৃতীয় পিনটা কেন থাকে ভেবেছেন কখনও? ওটাই কিন্তু আসল, কারণ জানলে অবাক হবেন

সিপিএম ও কংগ্রেসকে একযোগে আক্রমণ করে কুণাল বলেছেন,  "সিপিএমের সুজন, সেলিমদের বলব, হলদিয়া পেট্টোকেমে আসার পর্বে পূর্ণেন্দু চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে রাতে আলিমুদ্দিন স্ট্রিটে বৈঠক চলছিল কেন? এই ধরণের গুচ্ছ বৈঠক পার্টির দফতরে আপনারাও করতেন। কংগ্রেসের অধীর-সহ বাকিরা ভুলে গেলেন, মনমোহন সিং জমানায় অভিযোগটাই ছিল কংগ্রেস সোনিয়াজির বাড়ি থেকে সরকার চালান। রাহুলজি প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্ত না মেনে নিজের মতো চলেন। এখানে আজ অভিষেক একটি অচলাবস্থার জট খুলতে হস্তক্ষেপ করেছেন। প্রার্থীরাও তাঁর সঙ্গে কথা বলতে চেয়েছিলেন। সমস্যার জটগুলি চিহ্নিত করা চলছে। যার বা যাদের অন্যায় কাজে এই সমস্যা, তাদের শাস্তি হোক। বিরোধীরা সেই রাজনীতি করতে গিয়ে কর্মপ্রার্থীদের কাঁধে বন্দুক রাখছে।  অভিষেক যখন শুরু করেছেন তখন যাঁরা পদ্ধতি, স্থান, ব্যক্তি নিয়ে কথা বলেন, তাঁরা চান জট থাক। চাকরি আটকে থাক। এঁদের মুখোশ খুলে গিয়েছে।" ধাপে ধাপে বাকি চাকরি প্রার্থীদের সাথেও তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্ব যোগাযোগ রাখছে বলে জানিয়েছেন কুণাল।

 ABIR GHOSHAL

Published by:Uddalak B
First published:

Tags: Kunal Ghosh

পরবর্তী খবর