দিল্লির হিংসা নিয়ে বিজেপিকে তোপ কৌশিক সেনের, হিংসা থামাতে বললেন শাশ্বত, ঋতুপর্ণা

দিল্লির হিংসা নিয়ে বিজেপিকে তোপ কৌশিক সেনের, হিংসা থামাতে বললেন শাশ্বত, ঋতুপর্ণা

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দিল্লি সফরের দিন থেকেই রক্তাক্ত রাজধানী। পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে হিংসা, রক্তপাত বন্ধ করার আর্জি জানিয়েছেন বহু বিশিষ্ট মানুষ।

  • Share this:

#কলকাতা: মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দিল্লি সফরের দিন থেকেই রক্তাক্ত রাজধানী। পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে হিংসা, রক্তপাত বন্ধ করার আর্জি জানিয়েছেন বহু বিশিষ্ট মানুষ। অনেকেই পুরো ঘটনার জন্য সরাসরি দায়ী করেছেন বিজেপিকে।

দিল্লির হিংসার জন্য সরাসরি বিজেপিকে দায়ী করেছেন অভিনেতা কৌশিক সেন। তাঁর অভিযোগ ‘দিল্লি বলে নয়, বিজেপি যখনই কোনও বড় অসুবিধায় পড়ে তখনই তারা যেকোনও সীমা পার করতে পারে। এদের জন্য হিংসাত্মক পরিস্থিতি তৈরি করা একটা বড় অস্ত্র। এরা ফাঁদ পাতবেই। দুর্ভাগ্যজনক ভাবে সেই ফাঁদে একটা অংশ পা দিয়ে ফেলছেন। পরিকল্পিত ভাবে ট্রাম্পের দিল্লি আসার দিনই হিংসা ছড়ানো হয়েছে। বিজেপি নেতা কপিল মিশ্র প্রকাশ্যে উস্কানিমূলক মন্তব্য করেছেন, তাও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।’ দিল্লির পর কলকাতা সহ দেশের অন্যান্য জায়গাতেও ঝামেলা বাঁধানোর চেষ্টা হতে পারে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন কৌশিক সেন। যদিও তাঁর মতে, সিএএ বা এনআরসি-র বিরোধিতায় যেভাবে দেশজুড়ে আন্দোলন গড়ে উঠেছে তা বিজেপি ভাবতেও পারেনি। । আর সেটাই তাঁর কাছে সবচেয়ে বড় আশার কথা।

অভিনেতা শাশ্বত চট্টোপাধ্যায় নিউজ ১৮ বাংলাকে জানিয়েছেন, ‘যা হয়েছে বা হচ্ছে তা অত্যন্ত দুঃখজনক ও উদ্বেগজনক। অশান্ত কোনও দলকে দিয়ে অশান্তি করানো সোজা। তার চেয়ে আজকের দিনে দায়িত্ব নিয়ে শান্তি বজায় রাখা কঠিন। যে কোনও পার্টির তাই করা উচিত।’ টলি অভিনেতার মতে, মৃত্যুর কোনও রং হয় না। কে কোন বর্ণ বা ধর্মের তা দেখা উচিত নয়। আর পরিস্থিতি সামলানোর জন্য রাজনীতির গুরুত্ব অনেক। নেতা, মন্ত্রীদের দায়িত্বও অনেক। সেটা ভুলে গেলে চলবে না৷ শাশ্বতর কথায়, ‘কাউকে তো ছেলেখেলা করার জন্য গদিতে বসানো হয় না। কিন্তু দেখুন, বাজে রাজনীতিকদের জন্য সবার নাম খারাপ হয়। সবার মধ্যে একটা সুস্থ মানসিকতা থাকা দরকার। এই বাড়ি থেকে বেরিয়ে যারা এই ঝামেলা বাঁধাচ্ছে, সেই বাড়িরও যেমন দায়িত্ব আছে তেমনি রাজনীতিকদেরও দ্বায়িত্ব আছে।’

ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত দুঃখ প্রকাশ করে জানিয়েছেন ‘মৃত্যু কোনও সময়ই কাম্য নয়। চারপাশের মানুষ জন বড় অসহিষ্ণু হয়ে পড়েছে আজকাল। পরিস্থিতি তাড়াতাড়ি ঠান্ডা হোক সেটাই আশা করতে পারি।’

DEBAPRIYA DUTTA MAJUMDAR

First published: February 28, 2020, 2:28 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर