• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • করোনা থেকে সেরে উঠে দেখুন কী বললেন কলকাতার এক ব্যক্তি !

করোনা থেকে সেরে উঠে দেখুন কী বললেন কলকাতার এক ব্যক্তি !

উদ্বেগের মধ্যেও আশার আলো। গোটা বিশ্বের পাশাপাশি আমাদের রাজ্যে করোনার কবলে পড়েও সুস্থ হয়ে উঠছেন অনেকেই।

উদ্বেগের মধ্যেও আশার আলো। গোটা বিশ্বের পাশাপাশি আমাদের রাজ্যে করোনার কবলে পড়েও সুস্থ হয়ে উঠছেন অনেকেই।

উদ্বেগের মধ্যেও আশার আলো। গোটা বিশ্বের পাশাপাশি আমাদের রাজ্যে করোনার কবলে পড়েও সুস্থ হয়ে উঠছেন অনেকেই।

  • Share this:

#কলকাতা: উদ্বেগের মধ্যেও আশার আলো। গোটা বিশ্বের পাশাপাশি আমাদের রাজ্যে করোনার কবলে পড়েও সুস্থ হয়ে উঠছেন অনেকেই। তাঁদেরই অন্যতম কলকাতার এক প্রৌঢ়। দক্ষিণ কলকাতার ৫৯ বছর বয়সী নাগরিক সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরলেন। হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফেরার আগের মুহূর্তে এক ভিডিও বার্তায় জানালেন নিজের অভিজ্ঞতার কথা। প্রৌঢ়কে পুরোপুরি সুস্থ করে তুলতে পেরে খুশি চিকিৎসকরাও।

একদিকে যখন প্রায় প্রতিদিনই রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। করোনার ছোবলে মৃত্যর ঘটনাও ঘটছে। তখন আশার আলো দেখাচ্ছেন অনেকেই। করোনাতে আক্রান্ত হওয়া মানেই যে মৃত্যু তা নয় , এমনটাই বলছেন রোগী দেখে চিকিৎসকরা । আক্রান্ত হয়েও যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরা যায় তার সাম্প্রতিক উদাহরণ শহরের এই প্রৌঢ়। করোনা উপসর্গ নিয়ে গত ৩১ মার্চ কলকাতার বাইপাস লাগোয়া বেসরকারী হাসপাতাল ফর্টিসে ভর্তি হন। জ্বর সর্দি কাশি থাকায় চিকিৎসকের পরামর্শে তাঁর লালারসের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। রিপোর্টে করোনা পজিটিভ হয়।

তড়িঘড়ি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসকদের নিয়ে তৈরি হয় একটি বিশেষজ্ঞ মেডিকেল টিম। যে টিম টানা এগারো দিন সারাক্ষণ পর্যবেক্ষণে রাখেন ওই রোগীকে। টানা চিকিৎসার পর পরপর দুবার ওই রোগীর লালারসের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। দুবারই এরপর রিপোর্ট আসে নেগেটিভ। আশ্বস্ত হন চিকিৎসকরা। চিকিৎসকের পরামর্শে বাড়ি যাওয়ার অনুমতি পান করোনা আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হওয়া শহরের এই প্রবীণ নাগরিক। বাড়ি যাওয়ার আগে চিকিৎসকদের জানালেন নিজের অভিজ্ঞতার কথা। এক ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, আমি যে করোনায় আক্রান্ত হব ভাবিনি। কিন্তু রিপোর্ট পজিটিভ আসার পর প্রথমে কিছুটা চিন্তা হচ্ছিল। তবে হাসপাতালে এলাম। চিকিৎসকরা পরীক্ষা করলেন। করোনা পজিটিভ হল। সুস্থ হয়ে পরিবারের লোকের সঙ্গে বাড়িও ফিরে যাচ্ছি। এটাই আনন্দের" । তবে যেভাবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এবং চিকিৎসকরা তাঁর উপর নজর রেখে চিকিৎসা করে তাঁকে সুস্থ করে তুলেছেন তাতে যথেষ্টই খুশি বর্তমানে করোনা মুক্ত এই নাগরিক।

হাসপাতাল থেকে বাড়ি যাওয়ার আগে রোগীকে নিয়ে চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মীরা তুললেন সেলফি। চিকিৎসক কিংবা স্বাস্থ্যকর্মীরা বললেন, 'এই মুহূর্তটা আমাদের জীবনের অন্যতম একটি স্মরণীয় মুহূর্ত'। অনেকেই আজ করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। তবে আক্রান্ত হওয়া মানেই যে মৃত্যু নয়, সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়ি যাওয়ার আগে সবাইকে সেই বার্তাই দিলেন কার্যত যুদ্ধ জয় করা এই প্রবীণ নাগরিক। তাঁর চিকিৎসার জন্য ফর্টিস হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ যে বিশেষ চিকিৎসক দল গঠন করেছিল সেই দলের অন্যতম চিকিৎসক রাজা ধর বলেন, একজন চিকিৎসক হিসেবে আমরা কর্তব্যটুকু পালন করেছি ।তবে ওনাকে সুস্থ করতে পেরে আমরা সবাই খুশি । জ্বর সর্দি কাশি মানেই করোনাতে আক্রান্ত হওয়া নয়। আর করোনাতে আক্রান্ত হলেই যে মৃত্যু তেমনও ষে নয়, তা আরও একবার প্রমাণ করলেন কলকাতার এই রোগী' ।

চিকিৎসকদের পরামর্শ,'অযথা আতঙ্কিত না হয়ে সতর্ক, সচেতন থাকুন। পাশাপাশি সরকারি নির্দেশ মেনে চলুন। আর অবশ্যই ভাইরাসের উপসর্গ দেখা দিলেই ডাক্তার দেখান'। সব মিলিয়ে উদ্বেগের মাঝেও কলকাতার এই নাগরিকের মত অনেকেই আজ করোনাকে জয় করে ফিরছেন বাড়ি। অপেক্ষায় রয়েছেন স্বাভাবিক জীবনে ফেরার। যার অপেক্ষায় রয়েছে এখন গোটা দেশ। গোটা বিশ্ব। প্রত্যেক নাগরিকের মুখে মুখে এখন একটাই কথা, 'একদিন ঝড় থেমে যাবে। পৃথিবী আবার শান্ত হবে'। সেই দিনেরই অপেক্ষায় সব্বাই ।

Published by:Akash Misra
First published: