Home /News /kolkata /
রাজ্যে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়ায় আসছে বড়সড় পরিবর্তন, চালু হচ্ছে নয়া নিয়ম

রাজ্যে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়ায় আসছে বড়সড় পরিবর্তন, চালু হচ্ছে নয়া নিয়ম

রাজ্যে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়ায় আসছে বড়সড় পরিবর্তন

  • Share this:

    #কলকাতা: স্কুলশিক্ষকদের জন্য নয়া আচরণবিধি চালুর প্রস্তাব রাজ্যের। একাধিক বদলের পাশাপাশি আসছে নয়া নিয়মনীতি। এবার আর একবছর নয়। চাকরির দু’বছর পর সন্তোষজনক পুলিশ ভেরিফিকেশন রিপোর্ট দেখে তবেই মিলবে স্থায়ীকরণের চিঠি। প্রস্তাবের খসড়া এই মাসেই চূড়ান্ত হওয়ার কথা জানিয়েছে স্কুল শিক্ষা দফতর।

    অধ্যাপকদের পর এবার স্কুলশিক্ষকদের জন্যেও আসছে নয়া আচরণবিধি। একাধিক নতুন নিয়মকানন এবং শাস্তির বিধান। স্কুলশিক্ষক, শিক্ষিকাদের জন্য নতুন বিধি আনার কথা আগেই জানিয়েছিলেন শিক্ষামন্ত্রী। সেই প্রস্তাব এবার চূড়ান্ত হওয়ার পথে।

    প্রস্তাবিত খসড়া আচরণবিধি

    ---এতদিন স্কুল শিক্ষক নিয়োগের পর এক বছরের মধ্যেই তাঁকে স্থায়ী করা হত ---নয়া নিয়মবিধিতে দু বছর না হলে শিক্ষক-শিক্ষিকাকে স্থায়ী করা হবে না ---স্থায়ী হওয়ার শর্তঅনুযায়ী জমা দিতে হবে পুলিশ ভেরিফিকেশন রিপোর্ট ---আবেদনকারীকে আনতে হবে পুলিশের উচ্চপদস্থ আধিকারিকের শংসাপত্র ----কলকাতার ক্ষেত্রে এই সার্টিফিকেট দেবেন পুলিশ কমিশনার ----জেলার ক্ষেত্রে পুলিশ সুপার

    শিক্ষক, শিক্ষিকাদের অতীতে কোনও অপরাধমূলক রেকর্ড আছে কিনা তা দেখতেই এই ব্যবস্থা। এছাড়াও নয়া বিধিতে নতুন নিয়মের প্রস্তাবও রাখা হচ্ছে।

    ----- স্কুল এবং দেশ ও জাতির প্রতি সম্মান জানাতে হবে ---- স্কুল চত্বরে স্মোকিং বা ড্রাগস নিতে পারবেন না ----কোনওরকম ব্যবসা বা ট্রেডিংয়ের সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারবেন না ----নোটবুক বা বই আকারে উত্তরপত্র লিখতে পারবেন না ----প্রাইভেট টিউশনের সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারবেন না --- কোনও নির্বাচনে অংশ নিতে হলে সংশ্লিষ্ট দফতরের অনুমতি বাধ্যতামূলক -----সম্পত্তির হিসেব দাখিল করতে হবে -----অভিভাবকদের সঙ্গে বৈঠকে উপস্থিতি বাধ্যতামূলক ----স্কুল সংক্রান্ত অনুষ্ঠান ছাড়া অন্য কোনও অনুষ্ঠানে ছাত্রছাত্রীদের নিয়ে যাওয়া যাবে না ----নিয়ে যেতে হলে অভিভাবকদের লিখিত অনুমতি নিতে হবে -----সময়ানুবর্তিতা, নিয়মিত উপস্থিতি, প্রতিদিন প্রার্থনার সময়ে উপস্থিতি বাধ্যতামূলক ----পড়ুয়াদের সঙ্গে নমনীয় ব্যবহার করতে হবে ----ছাত্রছাত্রীদের মানসিক আঘাত ও শারীরিক শাস্তি দেওয়া চলবে না ----স্কুলের বাইরে ভাল পরিবেশ বজায় রাখতে হবে --- সাম্প্রদায়িকতা বা বিশৃঙ্খলায় পড়ুয়াদের প্ররোচনা দেওয়া যাবে না ----যে কোনরকম প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় দায়িত্ব নেওয়া বাধ্যতামূলক ---উত্তরপত্র মূল্যায়ন ,পরীক্ষাহলে গার্ডের কাজ করতে হবে

    শুধুই আচরণবিধি নয়। সঙ্গে থাকছে শাস্তির বিধানও। শিক্ষকের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ এলে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের মাধ্যমে রাজ্য শিক্ষা দফতর স্বতঃপ্রণোদিতভাবে মামলা করতে পারবে। এমনিতেই আইনি জটিলতায় শিক্ষক নিয়োগ থমকে। তার মধ্যেই নয়া আচরণবিধি ফের উসকে দিল বিতর্ক। ইতিমধ্যেই প্রস্তাবিত আচরণবিধি নিয়ে বিভিন্ন শিক্ষাবিদ ও দফতরের আধিকারিকদের মতামত নেওয়া শুরু করেছে স্কুল শিক্ষা দফতর। পুজোর আগেই জারি হতে পারে নির্দেশিকা।

    First published:

    Tags: Change in teacher recruitment process, Education Minister Partha Chatterjee, Partha Chatterjee, Teacher Recruitment

    পরবর্তী খবর