Home /News /kolkata /
মুঘলদের সঙ্গে যুদ্ধই দক্ষিণেশ্বরের এই বাড়িতে পুজো শুরুর কারণ

মুঘলদের সঙ্গে যুদ্ধই দক্ষিণেশ্বরের এই বাড়িতে পুজো শুরুর কারণ

মুঘলদের সঙ্গে যুদ্ধই দক্ষিণেশ্বরের এই বাড়িতে পুজো শুরুর কারণ

  • Share this:

    #কলকাতা: লড়াইয়ের গল্প। অথবা নিষ্ঠাচারের কাহিনী। দক্ষিণেশ্বরের বড় বাড়ির দুর্গাপুজোটা শুরু হতই না। যদি না মোড়ল পাড়ার জমিদারের নজর পড়ত তিন নিষ্ঠাবান ব্রাহ্মণ সন্তানের দিকে। বারাসত থেকে যারা পায়ে হেঁটে প্রতিদিন আসতেন বরানগর ঘাটে। প্রত্যেক ঊষা মুহূর্তে। তখন কোথায় গাড়ি ঘোড়া? পিছিয়ে যান আজকের সময় থেকে কম করে সাড়ে চারশো বছর আগে।

    সেই শুরু। বরানগরের বাচষ্পতিপাড়ায় তিন পরিবারের বাস। বসবাস পাঠশালা, পুরাণ স্মৃতিচর্চা, আর পুজো পাঠ।কিন্তু পুজোর শুরু তারও বেশ কিছুদিন আগে। তার পিছনেও আরেক গল্প। বারো ভুঁইয়ার এক ভুঁইয়া মহারাজা প্রতাপাদিত্যের সেনাপতি শঙ্করের কাহিনী। রানী যোধাবাঈ আর শঙ্করের কথোপকথন।

    মুঘলদের সঙ্গে দু’বার যুদ্ধ হয়েছিল। প্রথমবার সালকা, দ্বিতীয়বার কাগারঘাটে। প্রথম যুদ্ধে রাজা প্রতাপাদিত্য গোহারা হারিয়ে দিয়েছিলেন মুঘলদের। তাঁর সঙ্গী ছিল আফগান আর পর্তুগিজ যোদ্ধারা। কিন্তু দ্বিতীয় যুদ্ধে মুঘল বাহিনীর কাছে হেরে যান প্রতাপাদিত্য। মুঘলরা সেনাপতি সহ বন্দী করেন রাজা প্রতাপাদিত্যকে ৷ সেই সেনাপতিরই নাম শঙ্কর।

    শত-সহস্য স্বর্ণমুদ্রা সহ নিজের বারাসতে আত্মীয়বাড়ি ফিরেছিলেন শঙ্কর। আজো বারাসতের বাড়িতে পুজো পান দুর্গা। উৎসর্গ করা হয় মহারানী যোধাভাইএর নামে সঙ্কল্প করে। আর শঙ্করের বংশধর হল এই প্রাণবল্লভ ও মনোহর।

    সেই থেকে শুরু দুর্গা আরাধনা। শিবের আরাধক চট্টোপাধ্যায়রা আজও শক্তিপূজা করেন বৈষ্ণব মতে। ভোগের আয়োজনও থাকে । ইতিহাসকে বুকে আগলে রেখে আজও প্রতি শরতে হয় দেবী আরাধনা। আড়ম্বর কোন দিনই ছিল না বরং আন্তরিকতা ছিল । যা আজও রয়ে গেছে। প্রতিবছর নবমীতে দক্ষিণেশ্বর থেকে রামকৃষ্ণদেব আসতেন এই বাড়ীতে। পুজো আরাধনা দেখতে। নবমীতে এইখানেই খেতেন ভোগ প্রসাদ এমনই কাহিনী প্রচলিত রয়েছে এই পরিবারে।

    গল্পটা এইখানেই শেষ হয়ে যেতে পারত। কিন্তু হয় না। ঐতিহ্য উত্তরাধিকার সূত্রে পাওয়া এক জিনিস, তাকে বয়ে নিয়ে চলা আরেক প্রতিজ্ঞা। সেই কারণেই, এই পরিবারের একেবারে নবীন প্রজন্মরা এখন থেকেই প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

    আর তারপর, কালের প্রবাহে এগিয়ে চলে গল্পটা। কেউ বলবেন আশীর্বাদের গল্প। কেউ বলবেন নিষ্ঠার কাহিনী। কেউ বলবেন যোদ্ধা দেশপ্রেমিকের শপথের অঙ্গীকার। যে যাই বলুন না কেন এই গল্পটা আমাদের কাছে সেই মানুষ আর বয়ে চলা জীবনযুদ্ধের গল্প।

    First published:

    Tags: Dakhineswar, Dakhineswar Borobari, Durga Puja, Durga Puja 2017, Traditional Puja

    পরবর্তী খবর