কলকাতায় কিশোরীকে রাতভর গণধর্ষণ করে খুন করল দুই ওলা চালক

ফের কলকাতায় কিশোরীকে গাড়িতে তুলে ধর্ষণ ৷ অভিযোগ, কিশোরীকে অপহরণ করে চলন্ত গাড়িতে ধর্ষণের পর খুন করা হয় ৷ অভিযুক্ত এক ওলাচালক ও তার সহযোগী।

ফের কলকাতায় কিশোরীকে গাড়িতে তুলে ধর্ষণ ৷ অভিযোগ, কিশোরীকে অপহরণ করে চলন্ত গাড়িতে ধর্ষণের পর খুন করা হয় ৷ অভিযুক্ত এক ওলাচালক ও তার সহযোগী।

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #কলকাতা: কিশোরীকে গাড়িতে তুলে গণধর্ষণ করে খুন। ফের এমন ঘটনার সাক্ষী হল মহানগর। বুধবার ভোরে টি বোর্ডের কাছে, ব্রোবোর্ন রোড থেকে এক ফুটপাথবাসী কিশোরীকে গাড়িতে তোলে ওলাচালক। একাধিকবার ধর্ষণের পর তাকে শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়। অভিযুক্ত এক ওলাচালক ও তার সহযোগী।

    জানা গিয়েছে, টি বোর্ডের কাছ থেকে ভোর ৫টায় অপহরণ করা হয় নির্যাতিতাকে ৷ সিসিটিভির ফুটেজেও ধরা পড়ল অপহরণের সেই দৃশ্য।

    ভোর তিনটে হলেও তখনও অন্ধকার জমাট। ইতিউতি জ্বলছে ল্যাম্পপোস্ট। টি বোর্ডের কাছে, ৯ নম্বর ব্রেবোর্ন রোডের ফুটপাথে গভীর ঘুমে অচেতন কয়েকটি পরিববার। সেখানেই মা ও দাদা-বোনের সঙ্গে ঘুমোচ্ছিল বছর বারোর এক কিশোরীও। এমন সময় দূরে এসে থামে একটি সেডান মডেলের ওলা গাড়ি। গাড়ির নম্বর WB 04 F 4374। গাড়ি থেকে নেমে ফুটপাথবাসীদের দিকে এগিয়ে যায় এক যুবক। ওলার ইঞ্জিন চালু ছিল তখনও। খোলা ছিল পিছনের দরজাও। ঘুমে অচেতন ওই পরিবারের মধ্যে থেকেই কিশোরীর নাক-মুখ চেপে ধরে গাড়িতে তুলে নেয় ওই যুবক।

    গাড়িতে বেঁধে রাখা হয় অপহৃতা কিশোরীকে ৷ এরপর ওয়াটগঞ্জে মদ খায় ধৃত গুড্ডু সিং ও শঙ্কর সাউ ৷ পার্ক সার্কাস ফ্লাইওভারে চলন্ত কিশোরীকে ধর্ষণ করা হয় ৷ পরে শ্বাসরোধ করে খুন করে তপসিয়ায় খালে তাকে ফেলে দেওয়া হয় ৷ বুধবার সকালে তপসিয়ায় খাল থেকে দেহ উদ্ধার করা হয় ৷

    এদিন সকালে অভিযুক্তদের গ্রেফতার করে হেয়ার স্ট্রিট থানার পুলিশ। জেরায় দোষ স্বীকার করেছে ধৃত গুড্ডু সিং ও শঙ্কর সাউ ৷ তাদের আজ আদালতে পেশ করা হবে ৷

    আরও পড়ুন 

    সেক্টর ফাইল গণধর্ষণে ৬৯ দিনের মাথায় চার্জশিট পেশ

    মঙ্গলবার রাত থেকে ১২ বছরের কিশোরী নিখোঁজ হওয়ার পর হেয়ার স্ট্রিট থানায় অভিযোগ দায়ের করে নির্যাতিতার পরিবার। ঘটনার তদন্তে নেমে রাস্তার CCTV ফুটেজের ভিত্তিতে গাড়িটিকে শনাক্ত করে পুলিশ। তল্লাশি চালিয়ে গ্রেফতার করা বয় ধৃতদের ৷

    অন্যদিকে, অবশ্য হাত ধুয়ে ফেলল ওলা কর্তৃপক্ষ ৷ ‘ধৃতদের নাম ডেটা বেসে নেই ৷ ওই নামে কোনও চালক নেই’, বিবৃতিতে জানাল ওলা কর্তৃপক্ষ ৷ তাহলে ধৃতদের কাছে ওলা গেল কী করে? সেই প্রশ্নের জবাব নেই ওলা কর্তৃপক্ষের

    First published: