corona virus btn
corona virus btn
Loading

সিঙ্গুর আন্দোলনের পর এবার কন্যাশ্রীর স্বীকৃতিও জায়গা পাবে স্কুল সিলেবাসে

সিঙ্গুর আন্দোলনের পর এবার কন্যাশ্রীর স্বীকৃতিও জায়গা পাবে স্কুল সিলেবাসে

সিঙ্গুর আন্দোলনের পর এবার কন্যাশ্রীর স্বীকৃতিও জায়গা পাবে স্কুল সিলেবাসে

  • Share this:

#কলকাতা: রাষ্ট্রসংঘের মঞ্চে ‘কন্যাশ্রী’র স্বীকৃতি ৷ রাষ্ট্রসঙ্ঘের মঞ্চে বিশেষভাবে সম্মানিত ও প্রশংসিত রাজ্য সরকারের কন্যাশ্রী প্রকল্প ৷ ৬৩টি দেশের ১৬৭টি প্রকল্পের মধ্যে সেরা হয়েছে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কন্যাশ্রী। এই প্রকল্প যার মস্তিষ্ক প্রসূত সেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতেই কন্যাশ্রী প্রকল্পের জন্য পুরস্কার তুলে দিয়েছে রাষ্ট্রসংঘ ৷

২৩ জুন রাষ্ট্রসঙ্ঘের পাবলিক সার্ভিস ডে’র অনুষ্ঠানে সম্মানিত করা হয় বাংলার এই প্রকল্পকে ৷ এরপরই কন্যাশ্রীর স্বীকৃতিকে স্কুল পাঠ্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য সিলেবাস কমিটির কাছে প্রস্তাব দেয় রাজ্য সরকার ৷

উল্লেখ্য, ইতিমধ্যেই সিলেবাসে অন্তর্ভুক্ত ‘কন্যাশ্রী’ ৷ তবে এবার রাষ্ট্রসংঘের এই বিশেষ স্বীকৃতির কথা তাতে যুক্ত করার জন্য প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে ৷ বুধবার এই প্রস্তাব নিয়ে আলোচনার জন্য বৈঠকে বসছে সিলেবাস কমিটি ৷ কোথায় কোথায় কন্যশ্রীর উল্লেখ থাকবে সেই নিয়ে আলোচনা হবে ওই বৈঠকে ৷ আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকেই পাঠ্যক্রমে থাকবে রাষ্ট্রসঙ্ঘে কন্যাশ্রীর স্বীকৃতির কাহিনী ৷

নাবালিকা কন্যাদের পড়াশুনা থামিয়ে বিয়ে দেওয়ার প্রবণতা সম্পূর্ণ বন্ধ করার উদ্দেশ্যেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে শুরু হয়েছিল কন্যাশ্রী প্রকল্প ৷ এই কবছরে এই প্রকল্পের কারণেই স্কুলছুট পড়ুয়াদের সংখ্যা অনেক কমেছে ৷ ইতিমধ্যেই প্রায় ৪০ লক্ষ স্কুল ছাত্রীদের স্কলারশিপ দেওয়া হয়েছে ৷

যাদের পরিবারের বার্ষিক আয় ১ লাখ ২০ হাজার টাকার কম, সেই পরিবারের মেয়েদের কন্যাশ্রী প্রকল্পের আওতায় স্কলারশিপ দেয় রাজ্য সরকার ৷ রাজ্যের স্কুলগুলির মাধ্যমে সপ্তম ও অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রীদের নাম সরকারি এই প্রকল্পে নথিভুক্ত করা হয় ৷ ১৮ বছর হওয়ার পর স্কুলের গন্ডি পেরোলে মেয়েদের উচ্চশিক্ষার জন্য সরকারের তরফ থেকে এককালীন ২৫ হাজার টাকা অথবা বার্ষিক ৫০০ টাকা দেওয়া হয় ৷ গড়ে প্রতিবছর ১৮ লক্ষ ছাত্রী বার্ষিক স্কলারশিপ ও ৩.৫ লাখ পড়ুয়া এককালীন স্কলারশিপ পায় ৷

First published: June 26, 2017, 3:26 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर