corona virus btn
corona virus btn
Loading

বিচার মিলছে না, হাইকোর্টের মধ্যেই আত্মহত্যার চেষ্টা

বিচার মিলছে না, হাইকোর্টের মধ্যেই আত্মহত্যার চেষ্টা

২ বছরের মাথায় আবার। হাইকোর্টের মধ্যেই আত্মহত্যার চেষ্টা শঙ্কর মুদির।

  • Share this:

#কলকাতা: ২ বছরের মাথায় আবার। হাইকোর্টের মধ্যেই আত্মহত্যার চেষ্টা শঙ্কর মুদির। তার মাথা গোঁজার জায়গা ছিনিয়ে নিচ্ছে প্রোমোটার। বিচার মিলছে না। এই অভিযোগেই হাইকোর্টে আত্মহত্যার চেষ্টা শঙ্কর মুদির। গায়ে তেল ঢেলে আগুন জ্বালানোর আগেই তাকে ধরে ফেলে পুলিশ। প্রায় ৮০ ছুঁইছুঁই, বিষন্ন, আর্থিক কষ্টে থাকা মানুষটিকে নিয়ে নতুন করে আলোচনা আইনজীবী ও বিচারপতি মহলে।

২০১৫ সালে মশার মারার তেল খেয়ে আত্মহত্যা করতে গিয়েছিলেন। তার ২ বছর পর মঙ্গলবার হাইকোর্টের মধ্যেই গায়ে তেল ঢেলে আগুন জ্বালানোর চেষ্টা করলেন শঙ্কর মুদি। তবে আগুন ধরানোর আগেই তাঁকে ধরে ফেলে পুলিশ। নিয়ে যাওয়া হয় নিরাপদ জায়গায়। কেন আত্মহত্যার চেষ্টা? ইটিভি নিউজ বাংলার কাছে ক্ষোভ - দুঃখ উগরে দিলেন বৃদ্ধ।

২০১৫ সালেও আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলাম। মশা মারার তেল খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করি। পুলিশ আটকে দিয়েছিল। এবারও ফসকে গেল। যে দেশে বিচার পাওয়া যায়না সেখানে বেঁচে থাকতে চাই না।

অভিযোগ জানাতে মঙ্গলবার ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি নীশিতা মাত্রে ও বিচারপতি তপোব্রত চক্রবর্তীর এজলাসে ঢুকে পড়েছিলেন শঙ্কর মুদি। চিৎকার করে বিচারপতিদের কাছে অভিযোগ জানাতে থাকেন। পুলিশ বের করে দিতেই কোমরে বাঁধা কেরোসিনের বোতল খুলে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা।

বীরেন রায় রোডে একটি সম্পত্তি দেখাশোনার কাজ করতেন শঙ্করবাবু সেখানেই তাঁকে থাকার জন্য ২ কাঠা জায়গা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয় মালিক সম্পত্তি বিক্রি হওয়ার পর তাঁকে উঠে যেতে চাপ দেয় নতুন মালিক ৷ তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে কমিশন বসায় আদালত ৷ কমিশন তদন্তে গিয়ে তাঁর বক্তব্যই শোনেনি বলে অভিযোগ ৷

মেয়ে মারা গিয়েছেন। সঙ্গে অর্থাভাব। বিচার না মেলায় হতাশ পড়েন শঙ্করবাবু। তার চেহারা জুড়েও তা স্পষ্ট। সতর্কতা হিসাবেই তাঁকে হাইকোর্ট থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। শঙ্কর মুদি বিচার পাবেন কিনা তা সময়ই বলবে। তবে বৃদ্ধের আত্মহত্যার চেষ্টা ঘিরে দিনভর আলোচনার বিষয়বস্তু হয়ে রইলেন তিনি। আইনজীবী এমনকী বিচারপতি মহলেও।

First published: August 8, 2017, 8:40 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर