মুখ্যমন্ত্রীর কেন্দ্রে বিরোধীদের বাজি কে ?

২০১১ সালে ভবানীপুর কেন্দ্রে উপনির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রায় ৫৪ হাজার ভোটে জয়ী হয়েছিলেন। সেবার বামেদের প্রার্থী ছিলেন নন্দিনী মুখোপাধ্যায়। দীর্ঘদিন বাম রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত থাকলেও ভোটের ময়দানে অধ্যাপক নন্দিনী তেমন পরিচিত নন। তাই এবছর অন্তত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে হেভিওয়েট কোনও প্রার্থীই দাঁড় করানোর পক্ষে বিরোধীদের একাংশ ৷

২০১১ সালে ভবানীপুর কেন্দ্রে উপনির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রায় ৫৪ হাজার ভোটে জয়ী হয়েছিলেন। সেবার বামেদের প্রার্থী ছিলেন নন্দিনী মুখোপাধ্যায়। দীর্ঘদিন বাম রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত থাকলেও ভোটের ময়দানে অধ্যাপক নন্দিনী তেমন পরিচিত নন। তাই এবছর অন্তত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে হেভিওয়েট কোনও প্রার্থীই দাঁড় করানোর পক্ষে বিরোধীদের একাংশ ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #কলকাতা:   আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে  ভবানীপুর কেন্দ্রে মুখ্যমন্ত্রীর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে প্রার্থী কে হবেন ৷ তা নিয়ে স্বভাবতই চিন্তায় বিরোধী শিবির ৷ আর এই চিন্তার বিষয়টিও তাদের কাছে কোনও নতুন নয় ৷ অতীতে এই একটা কেন্দ্রেই প্রার্থী বাছাইয়ের কাজে অনেক বেশি মাথা ঘামাতে হয়েছে বিরোধীদের, আজও সেই চিত্র বদলায়নি ৷ কারণ প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী যে তৃণমূল সুপ্রিমো ! মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ঠিক কাকে দাঁড় করানো হবে, তা নিয়ে বিরোধী শিবিরে দুটি মত রয়েছে ৷ একটি মত বলছে কোনও রাজনৈতিক মুখ নয়, মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে দাঁড় করানো হোক কোনও অরাজনৈতিক ব্যক্তিকে ৷ আর এব্যাপারে  সুপ্রিম কোর্টের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি তথা রাজ্য মানবাধিকার কমিশনের প্রাক্তন চেয়ারম্যান অশোক গঙ্গোপাধ্যায়কে নির্দল প্রার্থী হিসাবে দাঁড় করানোর কথা ভাবছে বাম-কংগ্রেস উভয় পক্ষই ৷ কারণ তাদের যুক্তি, যদি কেউ রাজনীতি বা ওই বিশেষ রাজনৈতিক দলকে পছন্দ না করেন, তাহলে তিনি নির্দল প্রার্থীকে ভোট দিতেই পারেন ৷ অন্যদিকে আরেকটি মত হল, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কোনও রাজনৈতিক ব্যক্তিকে প্রার্থী না করা হলে মানুষের কাছে ভুল বার্তা যেতে পারে ৷ ভোটারদের মনে হতেই পারে, যে নির্বাচনের আগেই বিরোধীরা ওই কেন্দ্রে পরাজয় মোটামুটি স্বীকার করে নিয়েছে বলেই নির্দল প্রার্থীকে দাঁড় করানো হয়েছে ৷

    ২০১১ সালে ভবানীপুর কেন্দ্রে উপনির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রায় ৫৪ হাজার ভোটে জয়ী হয়েছিলেন। সেবার বামেদের প্রার্থী ছিলেন নন্দিনী মুখোপাধ্যায়। দীর্ঘদিন বাম রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত থাকলেও ভোটের ময়দানে অধ্যাপক নন্দিনী তেমন পরিচিত নন। তাই এবছর অন্তত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে হেভিওয়েট কোনও প্রার্থীই দাঁড় করানোর পক্ষে বিরোধীদের একাংশ ৷   অবসরপ্রাপ্ত সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি অশোক গঙ্গোপাধ্যায় আবার ভোটে দাঁড়ানোর ব্যাপারেই এখনও পর্যন্ত সম্মতি জানাননি  ৷ তাই শেষপর্যন্ত তাঁকে রাজী করানো যাবে কি না, তা নিয়েও একটা সন্দেহ রয়েছে ৷ নির্দল প্রার্থী দাঁড় করানোর পরিকল্পনায় সব পক্ষ একমত না হলে, তখন ঠিক কাকে ওই কেন্দ্রে বিরোধীরা প্রার্থী করবেন, সেটাই এখন দেখার বিষয় ৷

                 
    First published: