এলগিন রোডের হোটেলে অসুস্থ হয়ে পড়লেন মদন মিত্র

শনিবার রাতে হোটেলে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি ৷ তড়িঘড়ি তাঁর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন চিকিৎসক ৷

শনিবার রাতে হোটেলে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি ৷ তড়িঘড়ি তাঁর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন চিকিৎসক ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #কলকাতা: জামিনের আদেশনামায় গেরো। একুশ মাসের বন্দিদশা কাটলেও বাড়ি ফিরতে পারেননি মদন মিত্র। জামিনের শর্তানুযায়ী থাকতে হয়েছে ভবানীপুর এলাকায়। তাই আলিপুর জেল থেকে বেরিয়ে সোজা এলগিন রোডের হোটেলে উঠেছিলেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী। কিন্তু শনিবার রাতে হোটেলে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি ৷ তড়িঘড়ি তাঁর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন চিকিৎসক ৷ শ্বাসকষ্ট, গলা ব্যথা, পেটে ব্যথার কারণে তার ব্যক্তিগত চিকিৎসককে ডেকে পাঠানো হয় ৷ ইঞ্জেকশন দিয়ে ঘুম পাড়ানো হয় ৷ ঘুম না হওয়াতেই অসুস্থ্ হয়ে পড়েছেন মদন মিত্র বলে জানিয়েছিলেন চিকিৎসক ৷

    খবর পেয়ে ছোট ছেলে, নাতি ও তাঁর পুত্রবধূ তাকে দেখতে যান ৷ জামিনের শর্ত ভবানীপুরেই থাকতে হবে মদন মিত্রকে ৷ অন্যত্র সরানোয় হতে পারে আইনি জটিলতা ৷ আইনজীবীদের সঙ্গে আলোচনার পরই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় ৷ রবিবার সকালে হোটেলেই মদনের জন্য আনা হয়েছে ওষুধ ৷

    আইন অনুযায়ী, নির্দেশনামা সংশোধন না হলে, বাড়ি ফেরা হবে না। তাই আপাতত দিনচারেক হোটেলই ভরসা মদন মিত্রের।

    ২২ মাস পর একের পর এক কোর্টের শুনানিতে জামিনের আর্জি খারিজের পর অবশেষে সুখবর ৷ শর্তসাপেক্ষে মদন মিত্রের জামিন মঞ্জুর করল আলিপুর আদালত ৷ ১৫ লক্ষ টাকা করে দুটি বন্ড অর্থাৎ মোট ৩০ লক্ষ টাকার বন্ডে মুক্তি পেলেন মদন মিত্র ৷ মুক্তি পেলেও প্রাক্তন পরিবহন মন্ত্রীকে সপ্তাহে ১ দিন সিবিআইয়ের কাছে হাজিরা দিতে হবে ৷

    First published: