Home /News /kolkata /
বিধ্বংসী ইউসুফ ! পুণেকে হেলায় হারাল নাইটরা

বিধ্বংসী ইউসুফ ! পুণেকে হেলায় হারাল নাইটরা

রাইজিং পুণে সুপারজায়ান্টস : ১০৩/ ৬ ( ১৭.৪ ওভার) কলকাতা নাইট রাইডার্স: ৬৬/ ২ ডাকওয়ার্থ লুইস সিস্টেমে ৮ উইকেটে জয়ী কলকাতা নাইট রাইডার্স

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    রাইজিং পুণে সুপারজায়ান্টস : ১০৩/ ৬ ( ১৭.৪ ওভার)

    কলকাতা নাইট রাইডার্স: ৬৬/ ২ 

    ডাকওয়ার্থ লুইস সিস্টেমে ৮ উইকেটে জয়ী কলকাতা নাইট রাইডার্স

    #কলকাতা: মাঝরাতে জিতল রে ! হ্যাঁ ঠিক এমনটাই বটে ৷ বৃষ্টিতে সময় পিছোতে পিছোতে শেষপর্যন্ত রাত ১১টা ৪৫ মিনিটে যখন ইডেনে ম্যাচ আরম্ভ হল, তখন ‘ফুল হাউস’ ইডেন আর নেই ৷ সেটা সম্ভবও ছিল না ৷ কিন্তু যে সমস্ত দর্শকরা পুরো ম্যাচ দেখার অপেক্ষায় রয়ে গিয়েছিলেন ৷ তাঁরা কীভাবে বাড়ি ফিরবেন, সেটাই ছিল তখন মূল প্রশ্ন ৷ কেন তাঁরা বৃষ্টিতেও সিট ছেড়ে যাননি, তা অবশ্য বোঝা গেল ম্যাচ শুরু হতেই ৷ ডাকওয়ার্থ-লুইস সিস্টেমে কেকেআর-এর জয়ের টার্গেট দাঁড়ায় ৯ ওভারে ৬৬ রান ৷ টি২০-র বাজারে যা তেমন কোনও সমস্যার নয় ৷ কিন্তু শনিবার ইডেনের ২২ গজ ‘ডিজাইনার’ না হলেও ছিল স্পিন সহায়ক ৷ নিজেদের পছন্দের পিচেই আবার বেকায়দায় পড়বেন না তো গম্ভীররা ? চারদিকে তখন এই আশঙ্কা ৷ অশ্বিনের ওভার শুরু হতেই পরপর ডাবল ঝটকা ! প্যাভিলিয়ানে ফিরলেন দুই ওপেনার উথাপ্পা এবং গম্ভীর ৷ কিন্তু ২০১৬ সালে এসে নাইট রাইডার্স শুধুমাত্র নিজেদের টপ অর্ডারের উপর নির্ভরশীল নয় ৷ দলে রয়েছে আরও অনেক ব্যাটসম্যান ৷ যারা ঠিক সময় নিজের কাজটা করে দিয়ে যেতে পারেন ৷ এদিন সেই টাস্কটাই করে ফিরলেন ইউসুফ ৷ যাঁকে গত কয়েকবছরে সমর্থকদের কত বিদ্রুপই না শুনতে হয়েছে ৷ কিন্তু এবছর তিনি যেন নিজের চেনা মুডেই রয়েছেন ৷ শনিবাসরীয় ইডেনে একা হাতেই ধোনিদের কচুকাটা করলেন ৷ পাঠান ঝড়ে উড়ে গেল কলকাতারই আরেক দল ৷

    Vivo IPL 2016 M38 - KKR v RPS

    চলতি আইপিএলে নাইনে দেখা যাচ্ছে অধিকাংশ দলই পরে ব্যাট করে জিতছে ৷ তাই শনিবার ইডেনে টস জিতে পুণে অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি যখন প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিলেন তখন কিছুটা অবাকই হয়েছিলেন প্রত্যেকে ৷ কিন্তু ইডেনের ২২ গজ যে এদিন স্পিন সহায়ক ৷ স্লো পিচে রান তাড়া করাটা কঠিন হতে পারে, এই যুক্তিতেই প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত ছিল মাহির ৷ পুণের ব্যাটসম্যানরা এদিন অবশ্য হতাশই করলেন ৷ বৃষ্টিতে খেলা বন্ধের আগে ১৭.৪ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে মাত্র ১০৩ রানই তুলতে পেরেছিলেন তাঁরা ৷ এই রানটা যে একেবারেই যথেষ্ট ছিল না, তা ম্যাচ শেষে কার্যত মেনেও নিয়েছেন ধোনি ৷ ডাকওয়ার্থ লুইসে জিততেও বোর্ডে যে অন্তত ১৪০ রানটা দরকার ছিল এদিন ৷ প্লে অফে কোয়ালিফাই করতে নাইটদের প্রয়োজন ছিল মাত্র দু’টো জয় ৷ একটা কাজ শনিবারই শেষ হয়েছে ৷ এবার বাকি তিনটে ম্যাচের যে কোনও একটিতে জিতলেই ‘প্লে অফে উঠলাম রে ’ !

    First published:

    Tags: Duckworth Lewis System, Eden Gardens, IPL9, Kolkata Knight Riders, Yusuf Pathan

    পরবর্তী খবর