Home /News /kolkata /
জোড়াবাগান কাণ্ডে ধৃতকে জুভেনাইল আদালতে পেশ

জোড়াবাগান কাণ্ডে ধৃতকে জুভেনাইল আদালতে পেশ

জোড়াবাগানে ছাত্র খুনের ঘটনায় ধৃত অভিযুক্ত দশম শ্রেণির ছাত্র। বাবা-মা-ই ফোনে ডেকে নেন ছেলেকে। ছেলে বাড়িতে ফিরলেই তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বন্ধুকে ঘুসি মেরে অনিচ্ছাকৃত খুনের অভিযোগে আজ জুভেনাইল আদালতে তোলা হয় নাবালক ছাত্রকে। চোখের সামনে নিজের ঘুসিতে বন্ধুকে লুটিয়ে পড়ে মারা যেতে দেখা অভিযুক্ত ছাত্রের মানসিক অবস্থা নিয়ে এখন চিন্তায় মনোবিদরা।

আরও পড়ুন...
  • Last Updated :
  • Share this:

    #কলকাতা: জোড়াবাগানে ছাত্র খুনের ঘটনায় ধৃত অভিযুক্ত দশম শ্রেণির ছাত্র। বাবা-মা-ই ফোনে ডেকে নেন ছেলেকে। ছেলে বাড়িতে ফিরলেই তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বন্ধুকে ঘুসি মেরে অনিচ্ছাকৃত খুনের অভিযোগে আজ জুভেনাইল আদালতে তোলা হয় নাবালক ছাত্রকে। চোখের সামনে নিজের ঘুসিতে বন্ধুকে লুটিয়ে পড়ে মারা যেতে দেখা অভিযুক্ত ছাত্রের মানসিক অবস্থা নিয়ে এখন চিন্তায় মনোবিদরা।

    সবে ক্সাস টেন। জীবনের একটা গুরুত্বপূর্ণ সন্ধিক্ষণ। কৈশোর থেকে যৌবনে পা দেওয়ার প্রথম ধাপ বলা যেতে পারে। আর সেই ধাপেই জীবনের চরমতম ধাক্কা। সঙ্গী , আজীবনের ট্রমা।

    বৃহস্পতিবার টিউশন পড়তে গিয়ে জীবনের চরম এই ধাক্কাটা খায় দশম শ্রেণির ছাত্রটি। মজা করে তার পেটে কাতুকুতু দিয়েছিল তারই সহপাঠী মায়াঙ্ক সুরেখা। রসিকতার জবাবে বন্ধুর বুকে সজোরে ঘুসি মেরে দেয় সে। ঘুসি খেয়ে বন্ধুর সামনেই লুটিয়ে পড়ে মায়াঙ্ক। সকলের হইচই-এর সুযোগে সেখানে থেকে পালিয়ে যায় জ্ঞানভারতী বিদ্যাপীঠের নাবালক ছেলেটি।

    ততক্ষণে তার ঘুসিতে মৃত্যু হয়েছে মায়াঙ্কের। অভিযুক্ত ছাত্রের বাবা-মা ও শিক্ষককে থানায় ডেকে পাঠানো হয়। প্রত্যক্ষদর্শী ছাত্রদের বয়ান নেওয়া হয়। নিহত ছাত্রের পরিবার থানায় অভিযোগ দায়ের করে। অনিচ্ছাকৃত খুনের মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করে পুলিশ। শুরু হয় অভিযুক্ত ছাত্রের খোঁজ।পুলিশ সূত্রে খবর অভিযুক্ত ছাত্রের বাবা-মায়ের সঙ্গে কথা বলে তাঁদের মাধ্যমে ফোনে ডেকে পাঠানো হয় ছেলেকে।ছেলে বাড়ি ফিরলে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।ঘটনার কথা স্বীকারও করেছে নাবালক ছাত্র।শুক্রবার তাকে জুভেনাইল আদালতে তোলা হয়। হোমে পাঠানো হয়েছে ছাত্রকে।

     
    First published:

    Tags: Jorabagan, Juvenile court, Student death