বারোয়ারি থেকে থিম, ফিরে দেখা শহরের পুজোর বিবর্তনকে

বারোয়ারি থেকে থিম, ফিরে দেখা শহরের পুজোর বিবর্তনকে
নিজস্ব চিত্র

শুদ্ধ শুচি। সুস্থ রুচি। এই স্লোগানে ভর করেই থিম পুজোর শুরু শহরে। সালটা ১৯৮৫।

  • Share this:

    #কলকাতা: শুদ্ধ শুচি। সুস্থ রুচি। এই স্লোগানে ভর করেই থিম পুজোর শুরু শহরে। সালটা ১৯৮৫। বত্রিশ বছর আগের ছোট্ট একটি বিজ্ঞাপনের ক্যাম্পেন আক্ষরিক অর্থেই বদলে দিয়েছিল পুজোর চালচিত্র। থিম পেরিয়ে কনসেপ্টে। থিম মেকারের বদলে কনসেপ্ট বিল্ডার। কলকাতার দুর্গাপুজো আজ আন্তর্জাতিক। নতুন থিম দেখার মাঝেই ফিরে দেখা শহরের পুজোর বিবর্তনকে।

    পেশা, বিজ্ঞাপন সংস্থার কপি রাইটার। নেশা, দুর্গাপুজো নিয়ে গবেষণা। ১৯৮৫ থেকে নামী রঙ প্রস্তুতকারক সংস্থার হয়ে পুজো বিচারের দায়িত্বে। তাঁর চোখেই ধরা পড়েছে শহরের পুজোর বিবর্তন।

    সালটা ১৯৮৫। চাঁদা তুলে সাবেকি পুজোর তখন রমরমা। এদিক-ওদিক কিছু ব্যতিক্রমী কাজ হচ্ছে বটে। তবে সাহসী পদক্ষেপের উদ্যোগ ছিল না। সেই সময়ে ছড়িয়ে পড়ল শুদ্ধ শুচি, সুস্থ রুচি-র স্লোগান। শারদীয়া সম্মান দিতে এগিয়ে এল বেসরকারি একটি রং কোম্পানি। ছোট্ট ক্যাপশন। দাবানলের মত ছড়িয়ে পড়ল বিভিন্ন পুজো কমিটির মধ্যে। সুস্থ রুচির মাধ্যমে দৃষ্টিনন্দন সামঞ্জস্য। পুজো মণ্ডপ, আলোকসজ্জা, প্রতিমার মধ্যে সেই সামঞ্জস্য আনতে শুরু হয়ে গেল প্রতিযোগিতা। ক্রাইটেরিয়া উৎরোতে পারলেই শহরের তিনটি পুজো পাবে শারদীয় সম্মান। সঙ্গে আর্থিক পুরস্কার ।


    দেখতে দেখতে কেটে গেল আট বছর। সামান্য এক শারদীয়া সম্মান ঘিরে প্রতিদ্বন্দী হয়ে উঠল বিভিন্ন পাড়া। ১৯৯২-৯৩ থেকেই কলকাতা ও পার্শ্ববর্তী এলাকার দুর্গাপুজো পেল এক নতুন রূপ। বাঁশ, কাপড়ের সাবেকি পুজোর বদলে কোথাও ফলের বিজ, কোথাও কাঠ দিয়ে শুরু হল মণ্ডপসজ্জা। শিল্পীর ভাবনায় লাগল উৎকর্ষতার ছোঁয়া। মিডিয়া কয়েনেজে নতুন এই ভাবনাই হয়ে উঠল থিম।

    ১৯৯৫ থেকে কলকাতার বারোয়ারি পুজো হয়ে উঠল থিম পুজো। ১৯৯৫ থেকে ২০১৭। গঙ্গা দিয়ে বয়ে গেছে বহু জল। ভালো থেকে আরও ভালো হয়ে ওঠার লড়াইয়ে বাঙালীর পার্বণ পেয়েছে বাণিজ্যিক রূপ। বাণিজ্যের সঙ্গে একে একে জুড়ে গেছে নানা শিল্প। নানা শিল্পী। খুলে গেছে উপার্জনের নতুন পথ। সামনে এসেছে নতুন কেরিয়ার।

    আজ আর থিম নয়। কনসেপ্টের যুগ। থিম মিউজিকে পুজোর ঘোষণা। ব্র্যান্ড অ্যাম্বাস্যডর। গৌতম ঘোষ থেকে যোগেন চৌধুরী। বিক্রম ঘোষ থেকে উস্তাদ রশিদ খান। স্যু-রিয়েল ইনস্টলেশনে পুজোকে শিল্পের এক অন্য স্তরে নিয়ে যাওয়ার দুরন্ত প্রতিযোগিতা। দুর্গাপুজো আজ আক্ষরিক অর্থেই বিশ্বজনীন।

    First published: