?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

বছর শেষের আগে ৭২ হাজার শিক্ষক নিয়োগের আশ্বাস শিক্ষামন্ত্রীর

বছর শেষের আগে ৭২ হাজার শিক্ষক নিয়োগের আশ্বাস শিক্ষামন্ত্রীর

বহু বিতর্ক ও মামলার জট কাটিয়ে অবশেষে রাজ্য শুরু হয়েছে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া ৷ হাইকোর্টের রায়দানের এক থেকে দু’ঘণ্টার মধ্যে নজিরবিহীনভাবে জোড়া টেটের ফল প্রকাশ করে চমকে দেয় স্কুল সার্ভিস কমিশন ও প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ ৷

  • Share this:

#কলকাতা: বহু বিতর্ক ও মামলার জট কাটিয়ে অবশেষে রাজ্য শুরু হয়েছে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া ৷ হাইকোর্টের রায়দানের এক থেকে দু’ঘণ্টার মধ্যে নজিরবিহীনভাবে জোড়া টেটের ফল প্রকাশ করে চমকে দেয় স্কুল সার্ভিস কমিশন ও প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ ৷ শুরু থেকেই দ্রুত শিক্ষক প্রক্রিয়া শেষ করার আশ্বাস দিয়ে আসছে রাজ্য সরকার ৷ বার বার মামলার ফাঁসে পড়ে নিয়োগ বিঘ্নিত হওয়ার আশঙ্কা তৈরি হলেও মঙ্গলবারও বছর শেষের আগেই রাজ্যের সমস্ত শূন্য পদে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করার আশ্বাস দেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ৷

একই সঙ্গে প্রায় ৭২ হাজার শূন্য পদে শিক্ষক নিয়োগের কথা ঘোষণা করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ৷ এর ফলে চাকরিপ্রার্থীদের আশা আরও খানিকটা উজ্জ্বল হল ৷ এর আগে কমিশন ও পর্ষদের দেওয়া হিসেব অনুযায়ী রাজ্যে শিক্ষকদের জন্য মোট ৫৯,৪৬৮ শূন্যপদ রয়েছে ৷ তবে শিক্ষামন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রী দু’জনেই আগে শূন্যপদ আরও বাড়ার ইঙ্গিত করেছিলেন ৷ পর্ষদ প্রাথমিকের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ দেওয়ার সময়ও প্রাথমিকে শূন্যপদ বেড়ে ৪১ হাজার ৫৫৯ থেকে বেড়ে হয় ৪২,৯৪৯টি ৷

প্রতিশ্রুতি ও ঘোষণা অনুযায়ী ইতিমধ্যেই প্রকাশিত হয়ে গিয়েছে উচ্চ প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি ৷ কিন্তু তাতেও শেষ হয়নি বিতর্ক ৷ নতুন করে হাইকোর্টে দায়ের হয়েছে একাধিক মামলা ৷ ফলে শিক্ষামন্ত্রীর আশ্বাস সত্ত্বেও আশঙ্কা রয়েই গিয়েছে চাকরিপ্রার্থীদের মনে ৷

রাজ্যের স্কুলগুলিতে শিক্ষক সঙ্কট তীব্র ৷ অবসরের বয়স এসে যাওয়ায় অবসর নিতে বাধ্য হচ্ছেন বহু শিক্ষক ৷ বিষয়াভিজ্ঞ শিক্ষকের পদ শূন্য ৷ অন্য বিষয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকাকে নিতে হচ্ছে একাধিক বিষয়ের ক্লাস ৷ ইতিহাস শিক্ষকের শূন্যতা পূরণ করতে ইতিহাস ক্লাস নিচ্ছেন বাংলার শিক্ষিকা ৷ কখনও কখনও অঙ্কের শিক্ষিকাকে ভূগোল পড়ানোর দায়িত্ব নিতে হচ্ছে ৷ রাজ্যের বেশিরভাগ স্কুলে চিত্রটা এমনই ৷ নিয়োগ আইনি জালে আটকে থাকায় এক সময় অবস্থা সামাল দিতে অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষকদের আরও ৬ মাসের জন্য নতুন করে নিয়োগ করার কথা ভাবছিলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ৷ তাই আবার নতুন করে নিয়োগ বাধাপ্রাপ্ত হলে রাজ্যের শিক্ষা ব্যবস্থার আরও ভগ্ন দশা হবে ৷

First published: September 27, 2016, 6:33 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर