Home /News /kolkata /
১৫ শতাংশ ডিএ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি মুখ্যমন্ত্রীর, জানেন এখনও কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের সঙ্গে রাজ্যের ফারাক কত?

১৫ শতাংশ ডিএ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি মুখ্যমন্ত্রীর, জানেন এখনও কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের সঙ্গে রাজ্যের ফারাক কত?

Government Employees

Government Employees

১৫ শতাংশ ডিএ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি মুখ্যমন্ত্রীর, জানেন এখনও কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের সঙ্গে রাজ্যের ফারাক কত?

  • Share this:

     #কলকাতা: বহু প্রতীক্ষার পর অবশেষে প্রত্যাশা পূরণ ৷ সরকারী কর্মীদের জন্য দুর্দান্ত খবর ৷ পুজোর আগেই ১৫ শতাংশ ডিএ-এর ঘোষণা ৷ বুধবার তৃণমূল সরকারি কর্মী সংগঠনের সমাবেশে এসে ডিএ নিয়ে এই গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷

    পুজোর আগেই রাজ্য সরকারের উপহার ৷ এদিন মঞ্চে দাঁড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা, পয়লা জানুয়ারিতে ১৫ শতাংশ হারে ডিএ বা মহার্ঘ ভাতা দেওয়া হবে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের ৷

    তিনি বলেন,

    ‘আগামী জানুয়ারিতে ১৫% ডিএ দেওয়া হবে ৷ সব সরকারি কর্মীরা ডিএ পাবেন ৷’

    তবে এতেই মিটল না ফারাক ৷ সপ্তম বেতন কমিশনের নির্দেশে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারিদের বেতন বাড়লেও একই রয়েছে রাজ্য সরকারি কর্মচারিদের বেতন ৷ বহুদিন ধরে বকেয়া রয়েছে রাজ্য সরকারি কর্মচারিদের মহার্ঘভাতা ৷

    অগাস্ট মাসের প্রথম তারিখ থেকেই সপ্তম বেতন কমিশনের নির্দেশে কেন্দ্রীয় সরকারী কর্মচারীদের মাইনে বেড়েছে ২.৫৭ গুণ হারে ৷

    এর ফলে রাজ্যের সঙ্গে কেন্দ্রের কর্মচারীদের বেতনের ফারাক অনেকটা বেড়ে যায়। সপ্তম বেতন কমিশনের আওতায় বেতন দেওয়া হচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের। রাজ্য এখনও আটকে পঞ্চমে। সপ্তম বেতন কমিশন কার্যকর হওয়ার পর রাজ্য ও কেন্দ্রের কর্মচারীদের ডিএ-এর ফারাক বেড়ে দাঁড়ায় ৫৮%।

    এদিনের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ১৫ শতাংশ হারে ডিএ বা মহার্ঘ ভাতা দেওয়ার ঘোষণার পর কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের মধ্যে সেই বেতন ফারাক কমে ৩৯ শতাংশে এসে দাঁড়িয়েছে ৷

    ডিএ নিয়ে এদিন পূর্বতন বামফ্রন্ট সরকারকেও তীব্র আক্রমণ করেন মুখ্যমন্ত্রী ৷ তিনি বলেন, ‘কেন ৩৪ বছরে ডিএ সমস্যা মেটানো হয়নি? মাথায় প্রচুর দেনা ৷ পুজোয় ৩৬০০ টাকা বোনাস দেওয়া হচ্ছে ৷ সময়ে পেনশন পান অবসরপ্রাপ্তরা ৷ এখন সরকারি কর্মীরা সময়ে বেতন পান ৷’

    অন্যদিকে, কর্মচারীদের বেতন পরিকাঠামো পরিমার্জনের জন্য রাজ্য অভিরূপ সরকারের নেতৃত্বে ষষ্ঠ বেতন কমিশন গঠন করেছে । ওই কমিশনের মেয়াদ আরও বাড়ানোর আবেদন করা হয়েছে। কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, কিন্তু, কর্মী সংগঠনগুলির মতামতের জন্য শুনানির কাজ শেষ হয়নি। এর আগেও ওই কমিশনের মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে।

    রাজ্যের ষষ্ঠ বেতন কমিশনের মেয়াদ কতদিন বাড়ানো হবে তা নিয়ে কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি নবান্ন। ফলে কর্মচারীদের মধ্যে বেতন পরিকাঠামোর পরিবর্তন নিয়ে ধোঁয়াশা জিইয়ে রইল।

    First published:

    Tags: Central Government Employees, DA, Dearness Allowance, Pay scale, State Government Employee

    পরবর্তী খবর