corona virus btn
corona virus btn
Loading

দেবী মমতার পর দিদি মমতা, ভবানীপুরের পুজোয় চমক আছে অসুরেও

দেবী মমতার পর দিদি মমতা, ভবানীপুরের পুজোয় চমক আছে অসুরেও

মণ্ডপের অনুপ্রেরণা তিনি। দুর্গা পরিবারের সঙ্গে মঞ্চেও রয়েছেন তিনি ৷ পরনে চিরপরিচিত নীল পাড় সাদা শাড়ি ৷

  • Share this:

#কলকাতা: মণ্ডপের অনুপ্রেরণা তিনি। দুর্গা পরিবারের সঙ্গে মঞ্চেও রয়েছেন তিনি ৷ পরনে চিরপরিচিত নীল পাড় সাদা শাড়ি ৷ শুধু পায়ে নেই হাওয়াই চটি ৷ দেবীর সামনে নতজানু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অর্পণ করছেন নিজের প্রার্থনা ৷ মাতৃশক্তি-নারীশক্তির প্রতীক মা দুর্গার চোখ এখানে আরেক নারীশক্তির প্রতিভূর দিকে ৷

ভবানীপুরের চমক এখানেই শেষ নয় ৷ দুর্গা পরিবারের সঙ্গে থাকা অসুরের পোশাক ও চেহারাতেও রয়েছে চমক ৷ দেবীর তেজে পরাজিত অসুর অস্ত্র ত্যাগ করে দেবীর পায়ে নতজানু ৷ পরনে লাল রঙা ধুতি ৷ ইতিমধ্যে যারা এই প্রতিমা দেখে এসেছেন, তারা বলছেন- অসুরের মুখের আদল মনে করায় এক অতি পরিচিত বামপন্থী নেতাকে ৷ তিনি কে? নাহ এটা কোন ক্যুইজ নয়।

পুরনো ভাঙা রাজবাড়ি। হেরিটেজ বিল্ডিং-ও বলতে পারেন। তার দেওয়ালে অসংখ্য পুরানো পেইন্টিং। অনেকটা ইতিহাসকে ধরে রাখার মত। সব পোর্ট্রেটে একজনেরই চেহারা আর ছাদে ম্যুরাল। সেখানেও বলা হয়েছে তাঁর জীবনী। ছবি এঁকেই বলা হয়েছে সেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাফল্যের গল্প। আর বাইরে পুরনো রাজবাড়ি যেমন হয় সেই আদলে তৈরি হয়েছে মণ্ডপ।

মণ্ডপে ঢুকলেই একের পর এক পেইন্টিং। অনুপ্রেরণার প্রতিমূর্তি ৷ তিনি শিল্পীরও অনুপ্রেরণা। উদ্যোক্তাদেরও অনুপ্রেরণা । মণ্ডপের ছাদ জুড়ে লেখা একজন মানবীর গল্প-গাঁথা আর জীবন চরিত। আর মঞ্চের পিছনে বিশ্ববঙ্গের প্রতীক।

চাকদহের বারো হাতের দুর্গা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে ভবানীপুরের দুর্গা পরিবার ও পুজারী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জায়গা করে নিয়েছেন খবরের কাগজ থেকে মানুষের মনে ৷ শুধু মন্ডপ নয় প্রতিমা মঞ্চে সাদা শাড়ি নীল পাড় আর অসুরের লাল ধুতির কম্বিনেশনই এই পুজোর মূল আকর্ষণ ৷ যা বোঝার বুঝে নিন দর্শক।

অন্যান্যবার একাধিক প্রতিমা গড়েন। একাধিক পূজা উদ্যোক্তাদের সঙ্গে কাজ করেন। এবার ভবানীপুরই ভরসা। কারণ এমন থিমে কাজ, এই বারই প্রথম করছেন শিল্পী।

প্রশ্ন উঠেছে এটা কী রাজনৈতিক পূজা ? হেসে উড়িয়ে দিলেন শিল্পী জানালেন তারও অনুপ্রেরণা তিনিই। তিনি পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷

First published: October 6, 2016, 3:51 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर