Home /News /kolkata /
নারদ স্টিংয়ের আগে কোটি কোটি টাকার লেনদেন

নারদ স্টিংয়ের আগে কোটি কোটি টাকার লেনদেন

ম্যাথু স্যামুয়েলকে আইনি নোটিস পাঠানোর ২৪ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই কলকাতা পুলিশের হাতে উঠে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #কলকাতা: ম্যাথু স্যামুয়েলকে আইনি নোটিস পাঠানোর ২৪ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই কলকাতা পুলিশের হাতে উঠে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য ৷ লালবাজার সূত্রে খবর, নারদ কর্তার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে বিশাল অঙ্কের টাকা লেনদেনের তথ্যপ্রমাণ পেয়েছেন গোয়েন্দারা ৷ নারদ স্টিংয়ের ঠিক আগে ম্যাথুর সঙ্গে কোটি কোটি লেনদেন হয় ৷  কলকাতা পুলিশের পাওয়া এই তথ্য বেকায়দায় ফেলতে পারে নারদ কর্তাকে ৷

    লোকসভা ভোটের আগে নারদকর্তা ম্যাথু স্যামুয়েলের সঙ্গে বড় অঙ্কের আর্থিক লেনদেন। উত্তরপ্রদেশ থেকে ম্যাথুর দিল্লির অ্যাকাউন্টে টাকা ট্রান্সফার হয়েছিল।এই লেনদেনের পিছনে ভিনরাজ্যের এক রাজনীতিবিদ-ব্যবসায়ী রয়েছেন বলে জানতে পেরেছে কলকাতা পুলিশের সিট। লেনদেনের কারণ খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

    ২০১৪ লোকসভা ভোটের আগে থেকেই, তৃণমূল কংগ্রেসের মন্ত্রী-সাংসদ-বিধায়কদের পিছনে পড়েছিলেন ম্যাথু স্যামুয়েল। শাসক দলের নেতা-মন্ত্রীদের টাকা নেওয়ার গোপন ছবিও আইফোনের লেন্সবন্দি করেছিলেন। শুরু থেকেই ম্যাথুর দেওয়া সেই টাকার উৎস নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিল তৃণমূল নেতৃত্ব। এবার নারদ কর্তার আর্থিক লেনদেনের চাঞ্চল্যকর তথ্য হাতে পেল কলকাতা পুলিশের স্পেশাল ইনভেস্টিগেশন টিম। যা তৃণমূল নেতৃত্বের অভিযোগের ভিত্তিকেই শক্ত করছে।

     সিট সূত্রে খবর,  স্টিং অপারেশনের ঠিক আগে ম্যাথু স্যামুয়েলের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে কোটি কোটি টাকা জমা পড়ে ৷ উত্তরপ্রদেশ থেকে দিল্লিতে নারদ কর্তার অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠানো হয় ৷  ম্যাথুর অ্যাকাউন্ট থেকে পুরো টাকা তোলাও হয় ৷

    নাম প্রকাশ না করে পুলিশ জানিয়েছে, কোনও এক রাজনীতিবিদ ওই বিশাল অঙ্কের টাকা নারদকর্তাকে দেন ৷ ভিনরাজ্যের  ওই ব্যবসায়ী কোন উদ্দেশ্যে ওই টাকা ম্যাথুকে দিয়েছিলেন তা নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন ৷ কোনও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে নারদ ডট কম-কে মাধ্যম করে এই স্টিং করানো হয়েছিল কিনা তা খতিয়ে দেখবে পুলিশ ৷ প্রথম থেকেই এই স্টিংকাণ্ডকে বিরোধীদের ষড়যন্ত্র বলে অভিযোগ করে আসছে শাসক দল ৷

    স্টিং-পর্ব শুরুর আগে, নারদ কর্তার এই বড় অঙ্কের লেনদেনে সন্দেহ বাড়ছে তদন্তকারীদের। স্টিং অপারেশন স্পনসর করতেই কি বড় অঙ্কের টাকা নাকি স্টিংকাণ্ডের পারিশ্রমিক হিসেবে টাকা ম্যাথুকে? উঠছে নানা প্রশ্ন ৷

    ম্যাথুর হাজিরার আগে একরম তথ্য প্রমাণ হাতে পেয়ে এগিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আরও খানিকটা প্রস্তুত হয়ে রইল কলকাতা পুলিশ ৷ তবে এই তথ্য তৃণমূল নেতৃত্বের অভিযোগের ভিত্তিকেই শক্ত করছে । বৃহস্পতিবারই সাতদিনের মধ্যে লালবাজারে হাজির হওয়ার জন্য নারদকর্তা ম্যাথু স্যামুয়েলকে তৃতীয়বারের জন্য সমন পাঠিয়েছে কলকাতা পুলিশের সিট ৷ এর আগেও দু’বার জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নারদ কর্তা ম্যাথু স্যামুয়েলকে ইমেলে নোটিস পাঠায় লালবাজার ৷ কিন্তু সেই নোটিস এড়িয়ে গিয়ে নারদকর্তা দাবি করেন, ‘আমি কলকাতা পুলিশের কাছ থেকে চিঠি পাইনি। ফোনেও যোগাযোগ করা হয়নি। বিষয়টি কলকাতা হাইকোর্টের বিচারাধীন। বিচারপতিদের নির্দেশে সব তথ্যপ্রমাণ জমা দিয়েছি। এ বিষয়ে হাইকোর্টের রায় চূড়ান্ত ৷’ এই যুক্তিতে সিটের ডাকে হাজিরা এড়িয়ে যান নারদ ডট কমের কর্ণধার ৷

    এরপরই আদালতের দ্বারস্থ হয় কলকাতা পুলিশ ৷ এবারে যাতে কোনও ভাবেই ম্যাথু এড়িয়ে যেতে না পারেন তাই তাঁকে আইনি নোটিস পাঠানো হল ৷ নোটিসে দেওয়া সময়ের মধ্যে ম্যাথু হাজির না হলে আদালতের মাধ্যমে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করবে কলকাতা পুলিশ ৷

    গত মার্চ ১৪, নির্বাচনের প্রথম দফার বিজ্ঞপ্তি জারির দিন বিজেপি পার্টি অফিসে শাসক দল তৃণমূলের ১১ জন শীর্ষ নেতা- নেত্রীদের ঘুষ নেওয়ার বিস্ফোরক ক্লিপটি দেখানোর পর উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক মহল ৷ এই ক্লিপ নিয়েই ভোটের আগে তৈরি হয় প্রবল বিতর্ক ৷ শাসক দলের বিরুদ্ধে একযোগে আক্রমণ শানান বিরোধীরা ৷

    দক্ষিণের সংবাদ সংস্থা নারদ ডট কম দাবি করেন, এই ভিডিও একদম খাঁটি ৷ ২০১৪ সালে লোকসভা নির্বাচনের আগে এই স্টিং অপারেশনটি তারা করেছিলেন বলে দাবি করেন সংস্থার কর্ণধার ম্যাথু স্যামুয়েল ৷

    গত ১৭ জুন নবান্নে বিশেষ বৈঠকের পর কলকাতা পুলিশের হাতে নারদ স্টিং কাণ্ডের তদন্তভার তুলে দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ পাওয়ার পর থেকেই তৎপরতার সঙ্গে তদন্তে নেমে পড়ে কলকাতা পুলিশ ৷ তদন্তের জন্য সিপি রাজীব কুমারের নেতৃত্বে SIT গঠন করে কলকাতা পুলিশ ৷ এছাড়া টিমে রয়েছেন জয়েন্ট সিপি (ক্রাইম) বিশাল গর্গ, কলকাতা পুলিশের সাইবার ক্রাইমের ওসি এবং ইকনমিক অফেন্স উইং শাখার ওসি-সহ কয়েকজন কর্তা ৷

    মুখ্যমন্ত্রী নির্দেশের ৪৮ ঘণ্টা পেরোতে না পেরোতেই নারদ ডট কমের কর্ণধার ম্যাথু স্যামুয়েলের বিরুদ্ধে FIR দায়ের করে নিউমার্কেট থানার পুলিশ ৷ মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ের স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে নারদ নিউজের CEO ম্যাথু স্যামুয়েলের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করে কলকাতা পুলিশ ৷

    অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র থেকে জালিয়াতি, সম্মানহানির মতো একাধিক ধারায় নারদ ডট কমের কর্ণধারের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে ৷ ম্যাথু স্যামুয়েলের বিরুদ্ধে ৪৬৯ ধারায় সম্মানহানির উদ্দেশ্যে জালিয়াতি, ৫০০ ধারায় মানহানি, ৫০৫(১)(বি) ধারায় জনমানসে বিরূপ প্রতিক্রিয়া ,১৭১(জি) ধারায় নির্বাচনের প্রার্থীর বিরুদ্ধে ইচ্ছাকৃত কুৎসা ছড়ানো, ১২০(বি) ধারায় অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের অভিযোগ আনা হয় ৷

    First published:

    Tags: Bengali News, ETV News Bangla, Kolkata Police, Mathew Samuel, Narada Sting, Narada Sting Operation, Rupees Transfer

    পরবর্তী খবর