সরকারের কড়া পদক্ষেপ সত্ত্বেও কিছু এলাকায় বিক্ষিপ্ত অশান্তি

যাদবপুরে ধর্মঘটীদের সঙ্গে পুলিশের বচসা, ধস্তাধস্তি। ধর্মঘট বিরোধীদের জমায়েত। পরিস্থিতি সামলাতে নামাতে হল র‍্যাফ।

যাদবপুরে ধর্মঘটীদের সঙ্গে পুলিশের বচসা, ধস্তাধস্তি। ধর্মঘট বিরোধীদের জমায়েত। পরিস্থিতি সামলাতে নামাতে হল র‍্যাফ।

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #কলকাতা: যাদবপুরে ধর্মঘটীদের সঙ্গে পুলিশের বচসা, ধস্তাধস্তি। ধর্মঘট বিরোধীদের জমায়েত। পরিস্থিতি সামলাতে নামাতে হল র‍্যাফ। বহরমপুরে তালাবন্ধ পুরসভা খুলতে গিয়ে তৃণমূলের সমর্থককে মারধরের অভিযোগ। ছবি তুলতে গিয়ে আক্রান্ত ইটিভি-র চিত্র সাংবাদিক। শিলিগুড়িতে গ্রেফতার মেয়র অশোক ভট্টাচার্য। ধর্মঘট রুখতে সরকার কড়া পদক্ষেপ নেওয়া সত্ত্বেও বিক্ষিপ্ত কিছু ঘটনায় উত্তেজনা ছড়ায় যাদবপুর, বেহালা, লেকটাউন, বহরমপুরে।

    অন্য ধর্মঘটের চেয়ে ব্যতিক্রমী চেহারা। সকাল থেকেই স্বাভাবিক যান চলাচল। স্বাভাবিক অন্য পরিষেবাও। তবে রাস্তায় লোক কম। ফাঁকা রাস্তায় সচল জীবনের মাঝে কিছু বিক্ষিপ্ত ঘটনায় মাঝে মাঝেই তাল কেটেছে।

    যাদবপুর প্রথম থেকেই পুলিশ, প্রশাসনের নজরে ছিল যাদবপুর। সিপিএম বিধায়ক সুজন চক্রবর্তীর নেতৃত্বে যাদবপুর ৮বি বাসস্ট্যান্ডে ধর্মঘটীদের জমায়েত হয়। এলাকায় মিছিলও করেন তাঁরা। তৃণমূল কাউন্সিলর দেবব্রত মজুমদারের নেতৃত্বে বাসস্ট্যান্ড চত্বরে ভিড় জমান ধর্মঘট বিরোধীরাও। বাড়ে উত্তেজনা। একটা সময়ে মাইক লাগানো নিয়ে দুদলের মধ্যে বচসা শুরু হয়। বিক্ষোভ দেখাত শুরু করে ধর্মঘটীরা। পুলিশের সঙ্গে শুরু হয় ধস্তাধস্তি। উত্তেজনা থামাতে নামাতে হয় র‍্যাফ।

    লেকটাউন নতুনপল্লি-যশোর রোডে ধর্মঘটীদের মিছিল ঘিরে উত্তেজনা ছড়ায়। সিপিএম নেতা পলাশ দাসের নেতৃত্বে মিছিল কালিন্দী পৌঁছলে তৃণমূলের বাইক বাহিনী বাধা দেওয়ার চেষ্টা করে বলে অভিযোগ।

    শিলিগুড়ি যান চলাচলে বাধা দেওয়ায় সকালেই শিলিগুড়ির হিলকার্ট রোড থেকে তিন ধর্মঘটীকে গ্রেফতার করা হয়। পিকেটিং করার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয় মেয়র অশোক ভট্টাচার্য ও সিপিএম জেলা সম্পাদক জীবেশ সরকারকে। শিলিগুড়িতে সিপিএমের কার্যালয়ের সামনে থেকে গ্রেফতার করা হয় আও কয়েকজন দলীয় সমর্থককে। ধর্মঘট ঘিরে উত্তেজনা ছড়ায় নকশালবাড়িতে । ভেনাস মোড় থেকে গ্রেফতার করা হয় সিটু জেলা সম্পাদক সমন পাঠককে । গৌতম দেবের নেতৃত্বে বেরোয় পালটা মিছিল।

    মুর্শিদাবাদ তালাবন্ধ পুরসভা খোলা নিয়ে উত্তেজনা ছড়ায় বহরমপুর পুরসভায়। তালা ভাঙার চেষ্টা করেন তৃণমূল সমর্থকরা। ঘটনাস্থলে যান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পঙ্কজ দ্বিবেদী। তৃণমূলের এক সমর্থককে মারধরের অভিযোগ ওঠে তাঁর বিরুদ্ধে। ছবি তুলতে গেলে আক্রান্ত হন ইটিভি-র চিত্র সাংবাদিক। তাঁর ক্যামেরাও কেড়ে ফেলে দেওয়া হয়।

    বেহালা ট্রাম ডিপোয় ধর্মঘটীদের পথ অবরোধ তুলে দেয় পুলিশ। গ্রেফতার করা হয় সাত ধর্মঘটীকে।

    First published: