?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

সিপিআইএম রাজ্য কমিটির বৈঠকের শেষ দিনেও জোট-প্রশ্নে চাপে সূর্যকান্ত

সিপিআইএম রাজ্য কমিটির বৈঠকের শেষ দিনেও জোট-প্রশ্নে চাপে সূর্যকান্ত

সিপিএম রাজ্য কমিটির বৈঠকের শেষ দিনও জোট প্রশ্নে ধুন্ধুমার আলিমুদ্দিন। কংগ্রেসের সঙ্গে জোট নিয়ে ফের প্রশ্নের মুখে সূর্যকান্ত মিশ্র। বিরোধিতার মুখে শ্যাম ও কূল, দুই ধরে রাখার কৌশল নিলেন সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক।

  • Share this:

#কলকাতা: সিপিআইএম রাজ্য কমিটির বৈঠকের শেষ দিনও জোট প্রশ্নে ধুন্ধুমার আলিমুদ্দিন। কংগ্রেসের সঙ্গে জোট নিয়ে ফের প্রশ্নের মুখে সূর্যকান্ত মিশ্র। বিরোধিতার মুখে শ্যাম ও কূল, দুই ধরে রাখার কৌশল নিলেন সিপিআইএমের রাজ্য সম্পাদক।

প্রথমে দল, তারপর ফ্রন্ট এরপর ফ্রন্টের বাইরের বামদল। এবং সবশেষে অন্য ধর্মনিরপেক্ষ শক্তিগুলিকে সঙ্গে নিয়ে চলার কথা বলেন সূর্যকান্ত মিশ্র । এই কর্মসূচিতে থাকবে কংগ্রেসও।

বৈঠকের প্রথম দিনই পরিস্কার হয়ে গিয়েছিল, দড়ি টানাটানিতে একচুল জমিও ছাড়বে না কোনও পক্ষ। শেষদিনেও যুদ্ধের সেই মেজাজ অব্যাহত ছিল। শনিবার যেখানে শেষ হয়েছিল, রবিবার সেখান থেকেই শুরু হল সিপিআইএমের রাজ্য কমিটির বৈঠক। বর্ধমান, জলপাইগুড়ির পর এদিন কংগ্রেসের সঙ্গে জোট-বিরোধিতায় সুর চড়ান কলকাতা জেলা নেতৃত্বের একাংশও।

বর্ধমান জেলা কমিটির সদস্য অমল হালদার বলেন ,  ‘কংগ্রেসের সঙ্গে জোট গ্রামীণ বাংলার মানুষ পছন্দ করেননি। যে কোনও উপায়ে দলের ক্ষমতায় ফেরার তাড়াহুড়োকেও ভালভাবে নেননি মানুষ ৷’ কলকাতা জেলা কমিটির সদস্য কল্লোল মজুমদারের বক্তব্যও একই ৷ তিনি বলেন,  ‘কংগ্রেসের মতো দলের সঙ্গে জোট করে গরিব মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করা হয়েছে ৷’

অন্যদিকে,  এরই পাল্টা যুক্তি খাড়া করেন পূর্ব মেদিনীপুরের নেতা তাপস সিনহা। জোটের পক্ষে সওয়াল করে তিনি বলেন, ‘গ্রাম বাংলার মানুষ জোট মেনে নেননি একথা বিশ্বাস করি না। ’

কংগ্রেসের হাত ধরা নিয়ে দলের মধ্যে তৈরি হওয়া ফাটল আরও স্পষ্ট হয়ে যায় প্রাক্তন সিপিআইএম সাংসদ মইনুল হাসানের মন্তব্যে। তিনি বলেন,  ‘একই বাড়ি থেকে দু'টি দল চলতে পারে না। সূর্যকান্ত মিশ্র এক বলছেন। বিমান বসু আরেক কথা বলছেন। এটা কী করে সম্ভব! ’

সবশেষে জবাবি ভাষণে শ্যাম ও কূল দুই রাখার নীতি নিয়েছেন সিপিআইএম রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র। জোট-প্রশ্নে কৌশলী অবস্থান নিয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরিও।

দু'দিনের রাজ্য কমিটির বৈঠক শেষে জোট-প্রশ্নে ৫৫ জনকে পাশে পেয়েছেন সূর্যকান্ত মিশ্র। সেখানে বিরোধিতা করেছেন মাত্র ১৩ জন। সংখ্যার বিচারে বিরোধী গলা কম হলেও, তাদের সামলাতে ঘুরপথ নিতে হল রাজ্য সম্পাদককে।

First published: June 13, 2016, 9:23 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर