• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • KOLKATA TAXI DRIVER RETURNED MONEY DOCUMENTS OF JHARKHAND COUPLE SB

Kolkata Taxi Driver: ট্যাক্সির স্টিয়ারিংয়ে এক সৎ মানুষ, সর্বস্ব খুইয়েও হাসিমুখে ফিরে গেলেন ঝাড়খণ্ডের দম্পতি!

গল্প হলেও সত্যি...

Kolkata Taxi Driver: কলকাতার ট্যাক্সি চালকের সততায় খোয়া যাওয়া ব্যাগ টাকা মোবাইল ফিরে পেলেন ঝাড়খণ্ডের দম্পতি | 

  • Share this:

#কলকাতা: ট্যাক্সি চালকের সততায় খোয়া যাওয়া সর্বস্ব ফিরে পেলেন ঝাড়খণ্ডের দম্পতি | ১৬ আগস্ট ওই দম্পতি হাওড়া স্টেশনে ট্রাফিক  গার্ডে এসে অভিযোগ জানান | ঝাড়খণ্ডের বাসিন্দা মুনাস্বর রানা জানান,  ১৫ অগাস্ট কেষ্টপুরে থেকে ট্যাক্সি করে হাওড়া স্টেশনে আসেন তাঁরা | ট্রেন ধরার তাগিদে ট্যাক্সির মধ্যে একটি ব্যাগ ফেলে রেখে যান | পরে মনে করেন ব্যাগটি হয়তো খোয়া গেছে | ব্যাগ না পাওয়ায় দম্পতি ট্রেনেও উঠতে পারেননি | ফের তাঁরা ফিরে যান কেষ্টপুরে | ব্যাগের মধ্যে প্রায় ১০ হাজার টাকা দুটি মোবাইল ফোন ও ATM কার্ড ছিল | ঘটনার পরের দিন অভিযোগ পাওয়া মাত্রই হাওড়া স্টেশনের ট্রাফ গার্ডের কর্মীরা CCTV ফুটেজ দেখে ট্যাক্সির খোঁজ শুরু করেন | এরপর ১৫ আগস্ট রাত সাড়ে দশটার সময় ধরে সিসিটিভি নজরদারি করতে গিয়ে খোঁজ পান সেই ট্যাক্সির | হাওড়া ব্রিজ থেকে হাওড়া স্টেশনের সব সিসিটিভি ফুটেজ একত্রিত করে খোঁজ পাওয়া যাই সেই ট্যাক্সির | দেখা  যায় ট্যাক্সিটি মুনাস্বর বাবুকে নামিয়ে ফের হাওড়া স্টেশনের প্রিপেইড ট্যাক্সির লাইনে দাঁড়িয়ে অন্য যাত্রী নিয়ে বেরিয়ে যান | এরপর প্রিপেইড ট্যাক্সি বুথ থেকে চালকের নম্বর জোগাড় করে ফোন করে পুরো ঘটনার কোথা জানালে সেও স্বীকার করেন ট্যাক্সিতে পড়ে থাকা ব্যাগের কথা | তিনি জানান ব্যাগের মধ্যে মোবাইল থাকলেও সেই তা লক থাকায় সেটি খোলা সম্ভব হয়নি | অনেক মানুষ সেদিন ট্যাক্সিতে ওঠায় এটি কার ব্যাগ তার হদিস পাওয়া যাচ্ছিলো না তাই ট্যাক্সির ভিতরে উদ্ধার হওয়া ব্যাগ সযত্নে বাড়িতেই রেখে দিয়েছিলেন ট্যাক্সি চালক লক্ষ্মণ কুমার | এরপর ট্যাক্সি চালকের সাথে কথা বলে খোওয়া যাওয়া ব্যাগের মালিককে ডেকে পাঠানো হয় |

বুধবার সন্ধ্যায় লক্ষ্মণ কুমার নিজে এসে দম্পতিকে তাঁদের হারিয়ে যাওয়া ব্যাগ ফিরিয়ে দিয়ে যান | মুনেস্বর রানা জানান, একদিকে পুলিশের ভূমিকা ও ট্যাক্সি চালকের সততায় তাঁদের খোয়া যাওয়া ব্যাগ ফিরে পেলেন | মাঝে মাঝে সোনা যায় ট্যাক্সি চালকের দাদাগিরি ও পুলিশের অসহযোগিতার কথা | তবে এই ঘটনা শোনা কথা যে সবসময় ঠিক নয় তা প্রমান করে দিল | এখনও সততা ও পুলিশের কাজের প্রতি সদিচ্ছা দেখে আপ্লুত দম্পতি | অন্য দিকে হাওড়া সিটি পুলিশের হাওড়া স্টেশনের ট্রাফিক গার্ডের ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক ইন্সপেক্টর সুকান্ত কর্মকার বলেন পুলিশের তরফ থেকে ট্যাক্সি চালক লক্ষ্মণ কুমারকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি তার  সততার জন্য |

Published by:Suman Biswas
First published: