Kolkata Police: সাক্ষী কলকাতা, গাড়ির কাগজ চাইতেই সার্জেন্টকে হুমকি মহিলার!

ফের এমন ঘটনা কলকাতায়‘

Kolkata Police: খানিকক্ষণ পরে সুস্মিতা নস্করের হয়ে এক ভদ্রলোক আসেন। তিনি সার্জেন্টের কাছে ক্ষমা চান।

  • Share this:

#কলকাতা: ফের কলকাতায় ট্রাফিক সার্জেন্টকে হুমকি। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার বিকেল সাড়ে পাঁচটা নাগাদ। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, সায়েন্স সিটির দিক থেকে সুস্মিতা নস্কর,ও বিল্টু ভট্টাচার্য নামে দুজন WB 06N 9145 নম্বরের স্কুটিতে করে যাচ্ছিলেন কসবার দিকে।সেই সময় ভিআইপি বাজারের কাছে  ট্রাফিক সার্জেন্ট সুব্রত বিশ্বাস তাদের দাঁড় করিয়ে, রাস্তায় বেরোনোর উপযুক্ত কারণ জানতে চান। ওই দুজনের কাছে উপযুক্ত কোন নথি ছিলনা। সার্জেন্ট তাদের ছবি তুলে ওয়ার্নিং দিয়ে ছেড়ে দেওয়ার সময়, অভিযোগ, ওই মহিলা খুব বাজে ভাষায় বলেন সার্জেন্টকে। মহিলা আঙ্গুল তুলে পুলিশের সঙ্গে তর্ক করতে থাকেন।  সুস্মিতা নস্কর নামে ওই মহিলা নিজেকে একজন আর্কিটেক্ট বলে পরিচয় দেন। সঙ্গে থাকা পুরুষ বিল্টু ভট্টাচার্য , তিনি নিজেকে একটি মোবাইল কোম্পানির এক্সিকিউটিভ বলে পরিচয় দেন। পুলিশ তাদের কাছে ড্রাইভিং লাইসেন্স, গাড়ির কাগজপত্র চায়। সেগুলো দেখাতে পারেননি বিল্টু। তারা যে চাকরি করেন, তার পরিচয় পত্রও দেখতে চান সার্জেন্ট। তাও দেখাতে না পারার জন্য,  ওই সার্জেন্ট ওদেরকে ওয়ার্নিং দিয়ে ছেড়ে দিতে চান।  কিন্তু সেই সময়ই ওই মহিলা পুলিশ সার্জেন্টকে উদ্দেশ্য করে অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকেন।

সার্জেন্টের চাকরি খেয়ে নেওয়ার হুমকি দিতে থাকেন। সঙ্গে বিভিন্ন লোককে ফোন করে,  ফোনটিতে সার্জেন্টকে কথা বলার জন্য চাপ দিতে থাকেন। সার্জেন্ট সুব্রত বিশ্বাস কোনভাবে মাথা নত করেননি। মহিলা এবং সঙ্গে থাকা পুরুষ বন্ধুটিও রীতিমতো রাস্তার ওপর সার্জেন্টকে অপমান করতে থাকেন। দৃশ্যটি বেশ খানিকক্ষণ ধরে রাস্তার পাশের মানুষগুলো দেখতে থাকেন। খানিকক্ষণ পরে সুস্মিতা নস্করের হয়ে এক ভদ্রলোক আসেন। তিনি সার্জেন্টের কাছে ক্ষমা চান।

পরে মহিলা এবং তার পুরুষ সঙ্গী পুলিশের কাছে মুচলেখা দিয়ে ছাড়া পান। সরকার যেখানে অযথা রাস্তায় বেরোতে না বলছে, সেখানে বেশ কিছু মানুষ অযথা রাস্তায় বের হচ্ছেন। পুলিশ সেখানে পদক্ষেপ গ্রহণ করলেই, কোন না কোনভাবে প্রভাব খাটিয়ে ট্রাফিক সার্জেন্টদের  হেনস্থা করছেন অনেকে। এই ধরনের অভিযোগ রাস্তায় কর্তব্যরত ট্রাফিক সার্জেন্টরা প্রায়ই করে থাকেন।

Published by:Suman Biswas
First published: