কলকাতা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফের প্রচার, নিয়ম ভাঙলে আইনি ব্যবস্থা

সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফের প্রচার, নিয়ম ভাঙলে আইনি ব্যবস্থা
  • Share this:

#কলকাতা: সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফের প্রচার। সচেতনতা। নিয়ম ভাঙলে আইনি ব্যবস্থা। তবুও রাজ্যে দুর্ঘটনার হার কমানো যাচ্ছে না। সেফ ড্রাইভ, সেভ লাইফ কাউন্সিলের বৈঠকে চলল দোষারোপের পালা। পুলিশ আর পূর্ত দফতরকে ধমক দিলেন মুখ্যসচিব মলয় দে। পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী আবার দফতরের নিচুতলার কর্মীদের ঘাড়ে দোষ চাপালেন।

দুর্ঘটনা এড়াতে পথসুরক্ষায় রাজ্য সরকার চালু করে সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ প্রকল্প। রাজ্যের দাবি, দুর্ঘটনা কমানো গিয়েছে অনেকটাই। যদিও পরিসংখ্যান বলছে, গোটা দেশে যত দুর্ঘটনা হয়েছে, সেই প্রেক্ষিতে পশ্চিমবঙ্গে দুর্ঘটনার হার উল্লেখযোগ্যভাবে কমেনি। কিন্তু, দোষ কার? সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ কাউন্সিলরের বৈঠকে একে অন্যের ঘাড়ে দোষ চাপালেন। তিন বছর আগে চালু হয়েছিল সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ প্রকল্প। তখন,

২০১৬ সালে রাজ্যে ১ বছরে দুর্ঘটনা - ১৭ হাজার ৬০০ এক বছরে দুর্ঘটনা কমে দাঁড়িয়েছে ১২ হাজার ৭০৫ ২০১৬ সালে রাজ্যে ১ বছরে দুর্ঘটনায় আহত- ১৪ হাজার ৯১৫ এক বছরে দুর্ঘটনায় আহতের সংখ্যা- ১১ হাজার ৯৯৭ ২০১৬ সালে এক বছরে দুর্ঘটনায় মৃত্যুর সংখ্যা- ৬ হাজার ৯৪৪ এক বছরে দুর্ঘটনায় মৃত্যুর সংখ্যা- ৫ হাজার ৭১১

সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ কাউন্সিলের বৈঠকে ছিলেন মুখ্যসচিব মলয় দে, এডিজি ট্রাফিক বিবেক সহায়, পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা, পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী, পরিবহণ সচিব-সহ বিভিন্ন আধিকারিকরা। পদাধিকারে রাজ্যের মুখ্যসচিব রোড সেফটি কাউন্সিলের প্রধান। পথসুরক্ষা নিয়ে পূর্ত দফতর ও পুলিশকে ধমক দেন তিনি।

- জাতীয় সড়কে পূর্ত দফতরের দিক নির্দেশক চিহ্ন নেই - পূর্ত দফতর রাস্তা চওড়া করলেও সংস্কারে নজর নেই - রাস্তায় নির্মাণকাজ চললেও জায়গা চিহ্নিত নয় - পরিকল্পনা ছাড়াই পুলিশ রাস্তায় ব্যারিকেড দিচ্ছে - কানে ফোন দিয়ে রাস্তা পারাপার আটকানো যাচ্ছে না

মুখ্যসচিবের বক্তব্যের রেশ ধরে পরিবহণ দফতরের নিচুতলার কর্মীদের দুর্নীতি নিয়ে সরব মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী।

দুর্ঘটনা এড়াতে মানুষকে সচেতন করার সঙ্গেই পুলিশ ও পরিবহণ দফতরের কর্তাদের পথসুরক্ষার শিক্ষা দেওয়ার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। ইনস্টিটিউট অফ রোড ট্রাফিক এডুকেশনের সাহায্য নিচ্ছে পরিবহণ দফতর।

First published: August 30, 2019, 8:45 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर