• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • KOLKATA POLICE GRILLS BJP STAR CAMPAIGNER MITHUN CHAKRABORTY SDG

Mithun Chakraborty: জন্মদিনেই পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদের মুখে মিঠুন চক্রবর্তী, কী সাফাই দিলেন মহাগুরু?

জন্মদিনেই পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদের মুখে মিঠুন চক্রবর্তী। ফাইল ছবি।

জন্মদিনেই পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদের মুখে মিঠুন চক্রবর্তী (Mithun Chakraborty)। হাইকোর্টের নির্দেশে বুধবার তদন্তকারীদের মুখোমুখি হন মহাগুরু।

  • Share this:

    #কলকাতা: জন্মদিনেই পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদের মুখে মিঠুন চক্রবর্তী (Mithun Chakraborty)। হাইকোর্টের নির্দেশে বুধবার তদন্তকারীদের মুখোমুখি হন মহাগুরু। সূত্রের খবর, এক ডজন চোখা চোখা প্রশ্ন সাজানো হয়েছিল মিঠুন চক্রবর্তীর জন্য। প্রায় ৪৫ মিনিট ধরে মানিকতলা থানা তদন্তকারী আধিকারিকরা ভার্চুয়ালি মিঠুনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন।

    উস্কানিমূলক মন্তব্যের অভিযোগ তুলে মিঠুনের বিরুদ্ধে মানিকতলা থানায় ৬ মে লিখিত অভিযোগ করেন জনৈক মৃত্যুঞ্জয় পাল। অভিযোগ ছিল, "ব্রিগেডের সভায় এবং একাধিক জায়গাতে মিঠুন চক্রবর্তী যে বক্তব্য রেখেছিলেন তাতে হিংসা ছড়ায়।" অভিযুক্ত বিরুদ্ধে  ১৫৩ এ, ৫০৪, ৫০৫, ৩৪ আইপিসি  ধারায় মামলা রুজু হয়। এরপর মামলা খারিজ করতে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থও হয়েছিলেন তিনি। কিন্তু সেই আবেদন কাজে আসেনি। মামলার শুনানিতে সম্প্রতি পুলিশের থেকে রিপোর্টও তলব করেছিল শিয়ালদহ এসিজেএম আদালত। অভিনেতা তথা বিজেপি নেতা মিঠুনের বিরুদ্ধে ওই এফআইআর-এর ভিত্তিতে কতদূর তদন্ত এগিয়েছে, তা নিয়ে পুলিশের কাছে জানতে চেয়েছিল আদালত। এরপরই হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন মিঠুন। কিন্তু তাঁকে সশরীরে হাজির দিতে না হলেও মামলা থেকে রেহাই পাননি অভিনেতা। এরপর আজ তাঁকে তদন্তকারী আধিকারিকদের জিজ্ঞাসাবাদের মুখে পড়তে হয়। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ভার্চুয়াল মাধ্যমে ১২টি প্রশ্ন করা হয়েছে মিঠুনকে।

    এ দিকে, হাইকোর্টে পরবর্তী  শুনানি ১৮ জুন। ওইদিন পুলিশের তরফে এই গোটা ভার্চুয়াল জিজ্ঞাসাবাদের কথা জানানো হবে আদালতে। পুলিশ  সূত্রে খবর, কেন তিনি এই ধরনের মন্তব্য করেছিলেন? কারও প্ররোচনা সেখানে  ছিল কিনা?  কী উদ্দেশ্যে  তিনি এ ধরণের  মন্তব্য  করেছিলেন? এ ধরণের  প্রায় প্রায় ১২টি  প্রশ্ন করা হয়েছে তাঁকে। এ দিন জিজ্ঞাসাবাদের পর অভিযোগকারী মৃত্যুঞ্জয় পাল বলেন, "নির্বাচনের আগে মিঠুন চক্রবর্তীর মন্তব্য একদমই উস্কানিমূলক ছিল। ওঁর জন্য অনেক হিংসা  ছড়িয়েছে।  তাই আইনি পদক্ষেপে যাতে তাঁর শাস্তি হয় সেটাই চাইছি।

    প্রসঙ্গত, বাংলার বিধানসভা ভোটে (West Bengal Assembly Election 2021) চূড়ান্তভাবে পর্যুদস্ত হয়েছে বিজেপি। আর তৃণমূল প্রবলভাবে ফের ক্ষমতায় এসেছে। আর তারপর থেকেই সেভাবে প্রকাশ্যে আসেননি মিঠুন চক্রবর্তী (Mithun Chakraborty)। এ বারের ভোটে বিজেপির হয়ে জোরকদমে প্রচার করেছিলেন অভিনেতা মিঠুন। দাবি করেছিলেন, BJP ক্ষমতায় এলে ৬ মাসেই বদলে যাবে বাংলা। কিন্তু বিজেপিকে ক্ষমতায় আনার ডাক দিতে গিয়ে বেশ কয়েকবার 'মহাগুরু'র মুখে এমন মন্তব্য শোনা গিয়েছে, যা অত্যন্ত উস্কানিমূলক বলেই দাবি রাজনৈতিক মহলের একাংশের।

    ARPITA HAZRA

    Published by:Shubhagata Dey
    First published: