• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • Kolkata News: কেন কমছে সরকারি-বেসরকারি বাসের সংখ্যা? নেপথ্যের 'আসল কারণ' শুনলে চমকে যাবেন!

Kolkata News: কেন কমছে সরকারি-বেসরকারি বাসের সংখ্যা? নেপথ্যের 'আসল কারণ' শুনলে চমকে যাবেন!

ক্রমশ কমছে বাস পরিষেবা

ক্রমশ কমছে বাস পরিষেবা

Kolkata News: সরকারি ও বেসরকারি বাসের সংখ্যা ক্রমশ কমছে হু হু করে৷

  • Share this:

#কলকাতা: ক্রমাগত লাফিয়ে বাড়ছে জ্বালানির দাম। আর পাল্লা দিয়ে রাস্তায় (Kolkata News) ক্রমশ কমছে বাসের সংখ্যা৷ সরকারি ও বেসরকারি বাসের (Kolkata Bus Service) সংখ্যা ক্রমশ কমছে হু হু করে৷ জানা যাচ্ছে, একটি বাস চালিয়ে প্রতিদিন যে টাকা আয় হচ্ছে, সেই বাস চালাতে গেলে জ্বালানি বাবদ যে টাকা ব্যয় হচ্ছে তাতে ক্ষতির পরিমাণ বাড়ছে বাস মালিকদের৷ এই অবস্থায় ভাড়া বৃদ্ধির দাবি জানাচ্ছেন বেসরকারি বাসের মালিকরা৷ আর সরকারি বাস কম বেরোচ্ছে ডিপো থেকেও।

আরও পড়ুন: দীপাবলিতে সব বাজিতে নিষেধাজ্ঞা নয়! Supreme Court-এ খারিজ হাইকোর্টের রায়...

সরকারি বাস চলাচলের (Kolkata News) হিসাব বলছে, সরকারি পরিবহণ (Kolkata Bus Service)  সংস্থা সিএসটিসি আগে ৫০০ থেকে ৫৫০ বাস প্রথম ট্রিপে নামাত। তারপর ৩৫০ বাস সেকেন্ড ট্রিপে নামাত। সিটিসি ২২০ থেকে ২৩০ বাস(Kolkata Bus Service)  প্রথম ট্রিপে নামাত। আর ১১০ থেকে ১২০টি বাস সেকেন্ড ট্রিপে নামাত। সেখানে সিএসটিসি নামাচ্ছে ৪০০টা বাস প্রথম ট্রিপে। ১৮০ থেকে ২০০ বাস সেকেন্ড ট্রিপে। আবার সিটিসি ১১০ বাস প্রথম ট্রিপে নামিয়েছে। ৭০টি বাস সেকেন্ড ট্রিপে নামিয়েছে।

কিন্তু এত কম বাস (Kolkata News) নামানোর কারণ কি? পরিবহণ দফতর সূত্রে খবর, একেকটি ডিপোকে (Kolkata Bus Service)  সপ্তাহ পিছু এক ট্যাঙ্কার তেল দেওয়া হয়। একটি ট্যাঙ্কারে তেল থাকে ১২০০০ লিটার। যার দাম দেড়-দুই বছর আগে ছিল আট থেকে সাড়ে আট লাখ টাকা। সেটা এখন বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২ লাখ টাকা।

আরও পড়ুন: বড় খবর! মাধ্যমিক শুরু ৭ মার্চ, উচ্চ মাধ্যমিক ২ এপ্রিল, ঘোষিত হল ২০২২-এর বোর্ড পরীক্ষার নির্ঘণ্ট!

ফলে একটা ডিপোতেই (Kolkata Bus Service)  এক ট্যাঙ্কার তেলের খরচ (Kolkata News) বেড়েছে প্রায় সাড়ে তিন থেকে চার লাখ টাকা। কিন্তু বাস চালিয়ে সেই আয় হচ্ছে না। ফলে আয়-ব্যায়ের সামঞ্জস্য থাকছে না। সিটিসি ডিপোর সংখ্যা ১২ ও সিএসটিসির ডিপোর সংখ্যা ১১টি। ফলে প্রতি সপ্তাহে ২৩ ডিপোর জন্যে লাগছে ২৩ টি ট্যাঙ্কার। এখন যা অবস্থা তাতে ১০ ট্যাঙ্কার বেশি তেলের খরচ সম্ভব হচ্ছে না।

আগে সিএসটিসি'র সোম থেকে শুক্র আয় হত ২৮-৩০ লাখ টাকা।এখন কমে হচ্ছে ১৪-১৫ লাখ টাকা।শনি ও রবিবার সেটা ৬ লাখ টাকা। ফলে এখন খরচ বাড়ছে। সেই অনুপাতে আয় নেই। অন্যদিকে বেসরকারি বাসের মালিকদের অবস্থা আরও খারাপ। কারণ গোটা খরচই তাদের সামলাতে হয়।

জয়েন্ট কাউন্সিল অফ বাস সিন্ডিকেটের সাধারণ সম্পাদক তপন বন্দোপাধ্যায় জানিয়েছেন, "আমরা বহু দিন ধরেই বাসের ভাড়া বাড়ানোর দাবি জানিয়ে আসছি। কিন্তু আমাদের কথা শোনা হচ্ছে না। এখন যা অবস্থা তাতে আমাদের পক্ষে আর বাস চালানো সম্ভব নয়। ফলে বাধ্য হয়েই মালিকরা রাস্তায় বাস কম নামাচ্ছেন।"

Published by:Sanjukta Sarkar
First published: