Home /News /kolkata /
সম্পত্তির গন্ডগোল, ভাইয়ের সঙ্গে বচসা পৌঁছল রক্তারক্তি কাণ্ডে!

সম্পত্তির গন্ডগোল, ভাইয়ের সঙ্গে বচসা পৌঁছল রক্তারক্তি কাণ্ডে!

সম্পত্তির গন্ডগোল পৌঁছালো খুনের চেষ্টায়

সম্পত্তির গন্ডগোল পৌঁছালো খুনের চেষ্টায়

আহত অনির্বাণ খাসনবিশের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল হলেও ক্ষোভে ফুঁসছে পরিবার ৷

  • Share this:

সুশোভন ভট্টাচার্য, কলকাতা: ভাইয়ের সঙ্গে বচসা পৌঁছল রক্তারক্তি কাণ্ডে! রবিবার মুচিপাড়ার ডিমপট্টি এলাকায় খাসনবিশ পরিবারের কাণ্ড দেখে অবাক প্রতিবেশীরা। সকাল প্রায় সাড়ে ১০টা নাগাদ স্থানীয় এক বাসিন্দা দেখেন খাসনবিশ পরিবারের বড় মেয়ে প্রিয়াঙ্কা পাল প্রায় ভয়ে বাড়ির বাইরে ছুটছেন, বাঁচাও বাঁচাও আর্তনাদের মধ্যে শুধুই বলছে মেরে ফেলেছে ভাইকে। প্রতিবেশিরা সবাই দৌড়ে এসে জানতে চায় প্রিয়াঙ্কার থেকে ঘটনার সম্পর্কে (Crime News)।

আরও পড়ুন- ভোট প্রচারের আজ শেষ অধ্যায়ে ত্রিপুরায় সভা করবেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

প্রতিবেশীদের প্রিয়াঙ্কা পাল জানান, তার ছোট ভাই সায়ক খাসনবিশের সঙ্গে রোজের মত গন্ডগোল হচ্ছিল মেজো ভাই অনির্বাণ খাসনবিশের। শনিবার রাতেই তার বাবাকে মারধর করে, সেই কথা ফোন মারফত শোনা মাত্রই বাবার কাছে শুনতে আসে ঘটনা সম্পর্কে। হঠাৎ সম্পত্তির প্রসঙ্গ উঠতেই সায়কের সঙ্গে তার দাদা অনির্বাণের বচসা শুরু হয়, বচসা হাতাহাতিতে গড়াতেই দিদি প্রিয়াঙ্কা সামাল দেবার চেষ্টা করে। তবে সায়ক খাসনবিশ এতটাই মারমুখী হয়ে উঠে যে দাদা অনির্বাণকে বাড়ির মধ্যে রাখা ধারালো কাটারি দিয়ে আঘাত করে সজোরে। তার মধ্যেই প্রায় ভয়ে নীচের ঘর থেকে দৌড়ে অনির্বাণ উপরের ঘরে যেতেই ফের শরীর নানান জায়গায় আঘাত করা হয় ধারালো কাটারি দিয়ে। তার মধ্যে শৌচাগারের দরজা বন্ধ করে কিছুটা প্রাণে বাঁচে বড় ভাই অনির্বাণ।

আরও পড়ুন-দক্ষিণবঙ্গের বেশ কয়েক জেলায় আগামী ২-৩ ঘণ্টার মধ্যে বজ্র-বিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টির পূর্বাভাস

এই ঘটনার মধ্যেই প্রতিবেশীরা ঘরে ঢুকে সায়ককে নিরস্ত্র করে ও ঘরে বন্ধ করে খবর দেয় মুচিপাড়া থানায়। আহত অনির্বাণ খাসনবিশকে নীলরতন সরকার মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে দেখেন, এদিকে মুচিপাড়া থানার পুলিশ এসে আটক করে সায়ক খাসনবিশকে। ঘটনাস্থল থেকে বেশ কিছু নমুনা সংগ্রহ ও প্রিয়াঙ্কা পালের বয়ান রেকর্ড করে মুচিপাড়া থানা তদন্তকারী আধিকারিক। সায়ককে গ্রেফতার মুচিপাড়া থানা পুলিশ, তাকে জিজ্ঞেস করে পুলিশ জানতে চায় শুধুই কি সম্পত্তি না ঘটনার নেপথ্যে অন্য আরও কোন কারণ? মুচিপাড়া থানার পুলিশ স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে ঘটনার মূল কারণ জানার চেষ্টা করছে।  স্থানীয় বাসিন্দা বক্তব্য,  সম্পত্তি নিয়ে বিবাদ প্রায় দশ বছর, রবিবার তা চরম আকার ধারণ করে।

Published by:Siddhartha Sarkar
First published:

Tags: Crime News, Kolkata

পরবর্তী খবর