corona virus btn
corona virus btn
Loading

বৃদ্ধ ও অসুস্থ গাছের চিকিৎসা করবে কলকাতা পুরসভা, ক্ষতিগ্রস্ত গাছের হবে রি-প্লান্টেশন

বৃদ্ধ ও অসুস্থ গাছের চিকিৎসা করবে কলকাতা পুরসভা, ক্ষতিগ্রস্ত গাছের হবে রি-প্লান্টেশন
ফাইল ছবি

সাড়ে পাঁচ হাজার নয় কলকাতার প্রশাসক নিজেই ভুল শুধরে জানালেন সাড়ে ১৫ হাজার গাছ পড়েছে কলকাতা জুড়ে।

  • Share this:

#কলকাতা: আমফানের আঘাতে অসুস্থ বুড়ো বট এবার চিকিৎসা পাবে। গাছের সেই চিকিৎসার ব্যবস্থা করছে কলকাতা পুরসভা। আংশিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত গাছকে রি-প্লান্টেশন করার ভাবনা কলকাতা পুরসভার। রবীন্দ্র সরোবর এবং সুভাষ সরোবর ও কলকাতার বড় পার্ক গুলোতে রি-প্ল্যান্টেশনের ভাবনা। ৮০ থেকে ১০০ বছরের পুরনো গাছগুলিকে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। শুক্রবার কলকাতা পুরসভার প্রশাসক নিজে সরেজমিনে দেখতে যাবেন সুভাষ সরোবর ও রবীন্দ্র সরোবরে। সাড়ে পাঁচ হাজার নয় কলকাতার প্রশাসক নিজেই ভুল শুধরে জানালেন সাড়ে ১৫ হাজার গাছ পড়েছে কলকাতা জুড়ে। এর মধ্যে মূল রাস্তাতে সাড়ে নয় হাজার গাছ। এবং লেন বাই লেন মিলিয়ে আরও ছয় হাজার। এর ফলে  সবুজ অনেকটাই উধাাও কলকাতা শহর থেকে। ৩০ মে শনিবার কলকাতা পুরসভায় সবুজায়ন নিয়ে বড় বৈঠক। আগামী দিনে গ্রিন কলকাতা কিভাবে ফিরিয়ে আনা যাবে সেই কারণে উপদেষ্টা ও বিশেষজ্ঞদের নিয়ে বৈঠক থাকবে পরিবেশ দফতর ও বনদফতর আধিকারিকরা।

কলকাতা পুরসভার প্রশাসক ফিরহাদ হাকিম জানান, সব বড় রাস্তা খুলে গিয়েছে । শুধু পাড়ার ভেতরে কিছু গাছ এখনও পড়ে আছে। বড় রাস্তা ও ছোট রাস্তায় পাতা ও গাছের গুঁড়ি পাশে সরিয়ে করা রাখা আছে। আরও তিন-চার দিন লাগবে এই পাতা ও গুঁড়়ি সরাতে। পড়ে যাওয়া গাছ ও গাছের অংশ PWD ময়দানে রাখছে। এছাড়া কলকাতা পুরসভা খিদিরপুরের নেচার পার্কের কাছে মিলন মেলার কাছে টালা ট্যাংক এর কাছে ধাপায় এবং নোনাডাঙার পাশের মাঠে মজুত রাখছে গাছের গুঁড়ি ও ডালপালাগুলি। পুরো প্রশাসক আরও  জানান, সর্বত্র হকারদের অড ইভেন এভাবেই খুলতে হবে নিয়ম মেনে । বর্ধন মার্কেটের হকারদের ও একই নিয়ম।

কেবল নেটওয়ার্কের সার্ভিস প্রোভাইডারদের সঙ্গে কথা হয়েছে তাড়াতাড়ি রিস্টোর করার জন্য বলা হয়েছে । ওঁরা দাবি করেছে ৮০% কাজ হয়েছে।অপ্রয়োজনীয় তার কেটে ফেলতে বলা হয়েছে না হলে ভবিষ্যতে কলকাতা পুরসভা সমস্ত তারই কেটে দেবে তখন প্রয়োজনীয় তার ও একই সঙ্গে নষ্ট হয়ে যেতে পারে বলে সাবধান করেছেন পুর প্রশাসক।

Published by: Simli Raha
First published: May 28, 2020, 8:40 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर