• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • KOLKATA MARKET PRICE OF FISH AND VEGETABLES HIKED DUE TO PETROL DIESEL PRICE INCREASE AKD

সবজি-মাছের দাম নাভিশ্বাস শহরবাসীর! মাসপয়লায় কেন এমন মূল্যবৃদ্ধি! আর কত বাড়বে দাম

আগুন দাম সবজি আনাজের। পকেটে টান মধ্যবিত্তর। ফাইল চিত্র

লকডাউনে টানাটানিতেই দিন কাটানো মানুষের এক কথায় মাথায় হাত।

  • Share this:

    #কলকাতা: হু হু করে বাড়ছে পেট্রোপণ্যের দাম। এমনকি এই রাজ্যে ও সেঞ্চুরি করে ফেলেছে পেট্রোল, বাড়ছে ডিজেলের দামও। আর এই জ্বালানির অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির জেরেই অগ্নিমূল্য সবজি-মাছের বাজার। উচ্ছে হোক বা পেঁপে কিংবা পটল, দাম বাড়ছে প্রতিটি সবজির। এদিকে বেড়েছে এলপিজি গ্যাসেরও। তাই সব মিলিয়ে মাস পয়লাতেই পকেটের টান পড়ছে মধ্যবিত্ত। আর লকডাউনে টানাটানিতেই দিন কাটানো মানুষের এক কথায় মাথায় হাত।

    ধরা যাক গড়িয়াহাট বাজারের কথা। গড়ে সব সবজির দাম বেড়েছে এই বাজারে। বেগুন বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি ১০০ টাকায়, লঙ্কা বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি ১০০ টাকায়। উচ্ছের দাম ৮০ টাকা/ কেজি। সবজি বিক্রেতারা স্বীকার করেই নিচ্ছেন, খুচরা বাজারে প্রতিটি সবজির দামে গড়ে দশ থেকে কুড়ি টাকা করে বেড়েছে। তাঁদের মত, সমস্যাটা তৈরি হয়েছিল সাইক্লোন ঝড় আছড়ে পড়ার পর থেকেই। সবজির ক্ষেতে জল দাঁড়িয়ে যাওয়ার দরুন যোগানে ঘাটতি দেখা দিয়েছিল। রাস্তাঘাট বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ায় সরাসরি খুচরো বাজারে সবজি নিয়ে আসা দীর্ঘদিন সমস্যাজনক হয়ে দাঁড়িয়েছিল। ঘুরপথে বাজারে সবজি পৌঁছে দিতে অনেক বেশি দর হাঁকছিলেন মহাজনরা। সেই ধাক্কা কিছুটা মিটলেও এখন পরিবহণ খরচ ক্রমেই ঊর্ধ্বমুখী। তার আঁচই এসে লাগছে সবজির দামে।

    এক বিক্রেতা বললেন দিন কয়েকের মধ্যেই লঙ্কার দাম প্রতি কেজি ৫০ টাকা বেড়ে যেতে পারে। অর্থাৎ তখন লঙ্কা কিনতে হবে কেজি প্রতি অন্তত ১৫০ টাকায়।  বাড়বে অন্যান্য সবজির দামও। পরিবহণ খরচকেই এই মূল্যবৃদ্ধির একমাত্র কারণ বলে মনে করছেন তিনি।

    প্রসঙ্গত ডিজেলের দাম বিপাকে ফেলেছে মৎস্য ব্যবসায়ীদের। মেয়াদ ফুরিয়ে গেলেও অনেকেই গভীর সমুদ্রে ইলিশ অন্যান্য মাছ ধরতে যেতে পারছেন না। কারণ একটি ট্রিপের জন্য যে পরিমান খরচ হয়, সেই ঝুঁকি নেওয়ার পর মাছ না পাওয়া গেলে সংসার চলবে না ছোট মৎস্যজীবীদের। সেই কারণেই বহু ট্রলারই বসে রয়েছে। বাজারে এখনও দেখা নেই রূপোলি শস্যের।

    Published by:Arka Deb
    First published: