কালীপুজোর চাঁদা ১০ হাজার! খাস কলকাতায় চাঁদার জুলুম, টাকা না দিতে পেরে জুটল মারধর 

কালীপুজোর চাঁদা ১০ হাজার! খাস কলকাতায় চাঁদার জুলুম, টাকা না দিতে পেরে জুটল মারধর 
মল্লিকপুরের মাঠে দীর্ঘদিন ধরেই কালীপুজো করে একদল যুবক। সেই পুজোর চাঁদার জন্য এই দাবি

মল্লিকপুরের মাঠে দীর্ঘদিন ধরেই কালীপুজো করে একদল যুবক। সেই পুজোর চাঁদার জন্য এই দাবি

  • Share this:
#কলকাতা:  কালীপুজোয় দিতে হবে ১০ হাজার টাকা!  দিতে অস্বীকার করায় জুটল মারধর। হরিদেবপুরের আর সি ঠাকুরানী মল্লিকপুরের বাসিন্দা অজয় কুমার মিশ্রাকে মারধর করল একদল দুষ্কৃতি। মল্লিকপুরের মাঠে দীর্ঘদিন ধরেই কালীপুজো করে একদল যুবক। সেই পুজোর চাঁদার জন্য অজয় কুমার মিশ্রার পথ আটকায় একদল দুষ্কৃতি।  অভিযোগ বুৃধবার রাতে হঠাৎ-ই তার সাইকেল আটকে পরিচিত তিনজন বলেন "চাঁদা জন্য দশ হাজার টাকা লাগবে"।অজয় কুমার মিশ্রা দিতে অস্বীকার করলে তাকে হুমকি দেওয়া হয়।  অজয় বলেন, এত টাকা চাঁদার জন্য দেওয়া সম্ভব নয়, পুজোর জন্য আড়াই শো থেকে সাড়ে তিনশো টাকা দেবে। তখন জানানো হয় দশ হাজার টাকা দিতে হবে। সেই টাকা দেবার সময় জামার বুক পকেটে থাকা ২০০ টাকার নোটের বদলে ২ হাজার টাকার নোট সহ অনেক টাকা দেখা যায়।পেশায় গাড়ির চালক অজয় কুমার মিশ্রার মাইনের টাকা বুক পকেটে থাকায় সব টাকাই বেরিয়ে পড়তেই শুরু হয় মারধর।  মাথায়, চোখে ও মুখে মেরে রক্ত বের হবার সময় অচৈতন্য অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়ে অজয়। তার পকেটে থাকা প্রায় ১৮ হাজার ৩০০ টাকা নিয়ে যায় বলে অভিযোগ অজয়ের। বুধবার রাতে এই ঘটনার পরে বৃহস্পতিবার হরিদেবপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন অজয় কুমার মিশ্রা। তিনি জানান, এর আগেও হুমকি দেওয়া হত, এবার দশ হাজার চাঁদা না পেয়ে মারধর করল। রোজ রোজগার জোটে না,  কী করে এত টাকা দেওয়া সম্ভব? বৃহস্পতিবার অভিযোগ দায়ের করার পরেই হরিদেবপুর থানায় পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।

Susobhan Bhattacharya
Published by:Elina Datta
First published: