corona virus btn
corona virus btn
Loading

গভীর নিম্নচাপের জেরে টানা বৃষ্টি, ভাইফোঁটাতেও বৃষ্টির পূর্বাভাস !

গভীর নিম্নচাপের জেরে টানা বৃষ্টি, ভাইফোঁটাতেও বৃষ্টির পূর্বাভাস !
Heavy Rain In Bengal

সমুদ্রে বিশাল ঢেউ আর প্রবল জলোচ্ছ্বাস। রাজ্যের উপকূলবর্তী এলাকাগুলিতে জারি হয়েছে সতর্কতা।

  • Share this:

#কলকাতা:  রাতভর নিম্নচাপের জেরে টানা বৃষ্টি। জল বেড়ে উত্তাল দিঘার সমুদ্র। উপকূলবর্তী এলাকাগুলিতে সতর্কতা জারি করা হয়েছে। দক্ষিণ ২৪ পরগনার উপকূলের এলাকাগুলিতে প্রবল জলোচ্ছ্বাসে একাধিক বাঁধে ফাটল দেখা দিয়েছে। ঝোড়ো হাওয়ার দাপটে রাজ্যের বিভিন্ন জেলার একাধিক এলাকা বিপর্যস্ত। গাছ পড়ে ক্ষতিগ্রস্ত একাধিক কাঁচাবাড়ি। কালীপুজোর মণ্ডপ-তোরণ ভেঙে পড়েছে বিভিন্ন জেলায়।

ওড়িশা থেকে অন্ধ্র উপকূলের দিকে ক্রমশ সরছে নিম্নচাপ। বৃহস্পতিবার রাত থেকে অবিরাম বৃষ্টি হয়েছে রাজ্যের বিভিন্ন জেলায়। সমুদ্রে বিশাল ঢেউ আর প্রবল জলোচ্ছ্বাস। রাজ্যের উপকূলবর্তী এলাকাগুলিতে জারি হয়েছে সতর্কতা। মদীয়া, মুর্শিদাবাদ, দুই ২৪ পরগনার পাশাপাশি উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতেও আগামী ৪৮ ঘণ্টা ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে ৷ কোচবিহার, আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়ি এবং মালদায় বেশি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে ৷

প্রবল বৃষ্টিতে কলকাতার বিভিন্ন রাস্তায় জল জমেছে ৷ এতে সমস্যা আরও বেড়েছে ৷ হেয়ার স্ট্রিট, এম জি রোড, দমদম, পাতিপুকুর আন্ডারপাস, বিটি রোড, রবীন্দ্র সরণি, দরগা রোড, উল্টোডাঙা আন্ডারপাস, থিয়েটর রোড, কাঁকুড়গাছি আন্ডারপাস, সিআর অ্যাভিনিউ, মুক্তারাম বাবু স্ট্রিটে জল জমা খবর পাওয়া গিয়েছে ৷

কলকাতায় শুক্রবার সকাল ৬ টা থেকে বেলা ২ টো পর্যন্ত বৃষ্টি মানিকতলা ৫৫ মিমি, বীরপাড়া ৩৩.২ মিমি, বেলগাছিয়া ৩৯মিমি, ধাপা ৩৯ মিমি, তপসিয়া ৪২মিমি, উল্টোডাঙা ৪০ মিমি, পামারবাজার ৫০ মিমি, ঠনঠনিয়া ৩৫.৪ মিমি, বালিগঞ্জ ৪৪ মিমি, মোমিনপুর ১৪ মিমি, চেতলা ২৯ মিমি , যোধপুর ৪১মিমি, কালীঘাট ৩৭.৮ মিমি, সিপিটি ক্যানেল ২৭.৫ মিমি, দত্তবাগান ৩১ মিমি, জিঞ্জিরা বাজার ৩২.৫ মিমি এবং বেহালা ২৫.৭ মিমি ৷

দিঘা ও মন্দারমণির সমুদ্র উপকূল এলাকায় টানা বৃষ্টি। সঙ্গে ঝোড়ো হাওয়া। শংকরপুর, চাঁদপুর, জলধা এলাকায় প্রবল জলোচ্ছ্বাসে সতর্কতা জারি করেছে প্রশাসন। মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। গেঁওখালি, রসুলপুর, নন্দীগ্রাম, হলদিয়ায় ফেরি পরিষেবা বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছেন জেলাশাসক।

দক্ষিণ ২৪ পরগনার মৌসুনি দ্বীপের বালিয়াড়া, নামখানার দাসকর্নারে জল উপচে লোকালয়ে ঢুকে যাওয়ায় আতঙ্কিত বাসিন্দারা। সাগরের বোটখালিতে জল ঢুকে গিয়েছে চাষের জমিতেও। পাথরপ্রতিমার গোবর্ধনপুর-সহ বিভিন্ন জায়গায় নদীবাঁধে ফাটল দেখা দিয়েছে। বাঁধ সংস্কারের কাজ করছে প্রশাসন। বেশ কয়েকটি পরিবারকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

প্রবল ঝড়-বৃষ্টিতে ফুলেশ্বরের কালসাপা, বৈকুণ্ঠপুর, রথতলায় প্রায় ৩০ থেকে ৪০টি বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। গাছ উপড়ে গিয়েছে টিনের চালের উপরে। আহত হয়েছেন কয়েকজন। ভেঙে গিয়েছে দু’টি কালীপুজোর মণ্ডপও ।

এছাড়াও বৃষ্টির তোড়ে দুর্গাপুরের একটি কালীপুজোর আলোর তোরণ ভেঙে পড়ে। মধ্যমগ্রাম থানা সংলগ্ন এলাকায় মণ্ডপের গেটে ভেঙে আহত হন এক পথচারী। মধ্যমগ্রাম-বাদু রোডে যানজট তৈরি হয়। কৃষ্ণনগরের কারবালা ময়দান, বীরভূম ও পুরুলিয়াতেও বৃষ্টিতে তৈরি হয়েছে পুজোর জলছবি।

First published: October 20, 2017, 4:32 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर