Home /News /kolkata /
KMC Workers Protest: পরিষেবা বন্ধের হুমকি! বকেয়া ডিএ সহ সাত দফা দাবিতে আন্দোলনে কলকাতা পুরসভার ইঞ্জিনিয়াররা

KMC Workers Protest: পরিষেবা বন্ধের হুমকি! বকেয়া ডিএ সহ সাত দফা দাবিতে আন্দোলনে কলকাতা পুরসভার ইঞ্জিনিয়াররা

কলকাতা পুরসভার কর্মী অবস্থান

কলকাতা পুরসভার কর্মী অবস্থান

KMC Workers Protest: কর্মীদের নানান দাবি-দাওয়া নিয়ে কলকাতা পুরসভার অন্দরে বিক্ষোভ অবস্থান মিছিল পুর কর্মীদের। বর্তমানে নাগরিকদের পরিষেবা দেওয়ার পরে আন্দোলনে নামলেও ভবিষ্যতে আন্দোলনের জেরে পরিষেবা বন্ধ হয়ে যেতে পারে বলে কার্যত হুমকি দেন আন্দোলনকারী সংগঠনের নেতৃত্ব।

আরও পড়ুন...
  • Share this:

#কলকাতা: কর্মীদের নানান দাবি-দাওয়া নিয়ে কলকাতা পুরসভার অন্দরে বিক্ষোভ অবস্থান মিছিল পুর কর্মীদের। বর্তমানে নাগরিকদের পরিষেবা দেওয়ার পরে আন্দোলনে নামলেও ভবিষ্যতে আন্দোলনের জেরে পরিষেবা বন্ধ হয়ে যেতে পারে বলে কার্যত হুমকি দেন আন্দোলনকারী সংগঠনের নেতৃত্বরা।

পদোন্নতি, বকেয়া ডিএ-সহ সাত দফা দাবিতে আন্দোলনে নামলেন কলকাতা পুরসভার ইঞ্জিনিয়ার অ্যান্ড অ্যালায়েড সার্ভিসেস অ্যাসোসিয়েশনের ইঞ্জিনিয়াররা। তাঁদের দাবিকে সর্মথন জানিয়ে এবার আসন্ন মাসিক অধিবেশনে এই বিষয়টি তুলবেন বলে জানিয়েছেন বাম কাউন্সিলার মধুছন্দা দেব। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মানস সিনহার নেতৃত্বে পুরভবনে এই মিছিল হয়।  শূন্যপদ পূরণ, পদোন্নতির মতো একাধিক দাবি জানানো হয়।

আরও পড়ুন: প্রথম দশে ৬ জনই CBSE বোর্ডের! জয়েন্টের মেধাতালিকায় সেরা কারা? দেখুন পূর্ণাঙ্গ তালিকা

একইসঙ্গে কলকাতা পুরসভার ক্লার্কস ইউনিয়ন নানা দাবিতে আন্দোলনে নেমেছে। বকেয়া ডিএ রাজ্য সরকারের হেলথ স্কিমের মতো কর্মীদের সুবিধাদান। অবসরকালীন সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন কর্মচারীরা এর প্রতিবাদ জানান কর্মীরা। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অমিতাভ ভট্টাচার্য কার্যত হুমকি দেন, দাবি না মানলে এরপর পুর পরিষেবা স্তব্ধ করে দেওয়া হবে। এর জন্য দায়ী থাকবে কলকাতা পৌরসভার মেয়র ও মেয়র পরিষদ-সহ কর্তৃপক্ষ। যদিও বর্তমানে ছুটি নিয়ে তারা আন্দোলন করেন এবং কলকাতা পুরসভার ভেতরেই অবস্থান-বিক্ষোভ করেন প্রতিকী ভাবে।

রাজ্যের অনুমতি ছাড়া কন্ট্রাক্টচুয়াল কোনও আধিকারিকের হাতে প্রশাসনিক এবং আর্থিক ক্ষমতা দেওয়া যায় না। অথচ কলকাতা পৌর সংস্থায় একজন ডি জি এবং ৪ জন ডেপুটি ইঞ্জিনিয়ারদের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ করেছে বলে অভিযোগ কে এম সি ইঞ্জিনিয়ার্স অ্যান্ড অল্লাইড সার্ভিসেস অ্যাসোসিয়েশনের। আজ কলকাতা পৌর সংস্থার জল বিভাগের সামনে থেকে অবসরকালীন পরে ও কলকাতা পৌর সংস্থার বিভিন্ন দফতরে নিয়োগ করা হচ্ছে। এরই প্রতিবাদে ইঞ্জিনিয়ারদের সংগঠনের পক্ষ থেকে বিক্ষোভ মিছিল করা হয়। তাদের দাবি ছিল অবিলম্বে অস্থায়ী কর্মচারীদের স্থায়ী পদে নিয়োগ করতে হবে। আর অবসরকালীন আধিকারিক বা কর্মীদের পৌর সংস্থার কাজ করানো যাবে না।

কলকাতা পুরসভার ইঞ্জিনিয়ার অ্যান্ড অ্যালায়েড সার্ভিসেস অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মানস সিনহার অভিযোগ যে একদিকে প্রায় ২৯ হাজার শূন্য পদ ফাঁকা রয়েছে । অথচ নতুন ছেলে মেয়েরা চাকরির দাবিতে ঘুরে বেড়াচ্ছে। আর কলকাতা পৌর সংস্থায় চুক্তিভিত্তিক এবং অবসরপ্রাপ্ত আধিকারিক ও কর্মী দিয়ে কলকাতা পৌর সংস্থার বিভিন্ন বিভাগে পূর্ণ নিয়োগ করা হচ্ছে। শুধু তাই নয় মানস সিনহার দাবি, যাঁরা অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারী রয়েছেন তাঁদের পেনশন সময়মত দেওয়া হচ্ছে না। অথচ এই সব চুক্তিভিত্তিক আধিকারিকদের গাড়ি দিয়ে হাজার হাজার লিটার পেট্রোল খরচ করে টাকা অপচয় করা হচ্ছে। যেখানে কর্মচারীরা তাঁদের ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত তখন মেয়র পারিষদদের ঘরে লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন: ‘আমার মন বলে চাই চাই গো..’ বিধানসভায় কেন এই গান গাইলেন বাবুল? দিলেন মোক্ষম যুক্তি...

সংগঠনের দাবি, অবিলম্বে অবসরকালীন আধিকারিকদের সরাতে হবে আর অস্থায়ী কর্মীদের স্থায়ী পদে নিয়োগ করতে হবে। আর যতদিন এই নিয়োগ হচ্ছে না ততদিন  আন্দোলন চলবে বলে হুঁশিয়ারি দেয় ইঞ্জিনিয়ারদের সংগঠন কে এম সি ইঞ্জিনিয়ার্স অ্যান্ড এলায়েড সার্ভিসেস অ্যাসোসিয়েশন।

Published by:Sanjukta Sarkar
First published:

Tags: KMC

পরবর্তী খবর