• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • KANTI GANGULI BOOK IS FUMING NEW CONTROVERSY ON SINGUR ANDOLON SANJ

Kanti Ganguli : 'সিঙ্গুর আন্দোলন' পর্বে নতুন বিতর্ক উসকে প্রকাশ পেল কান্তির 'রক্তপলাশের আকাঙ্খায়'!

ফের বিতর্কের জন্ম দিলেন কান্তি গঙ্গোপাধ্যায়।

আজ ৮ জুলাই প্রকাশিত হল কান্তি গঙ্গোপাধ্যায়ের (Kanti Ganguli) লেখা এই বই যা ইতিমধ্যেই বেশ শোরগোল ফেলে দিয়েছে।

  • Share this:

#কলকাতা : সিঙ্গুর পরবর্তী (Singur) পর্বে নতুন করে জনাদেশ নিলে তা সরকারের রাজনৈতিক সদিচ্ছার প্রকাশ পেত। দলকে জানিয়েছিলেন সে কথা কান্তি গঙ্গোপাধ্যায় (Kanti Ganguli)। কিন্তু দলে সেই মত গ্রাহ্য হয়নি।নিজের বই 'রক্তপলাশের আকাঙ্খায়' সেই কথা তুলে ধরলেন সিপিএমের প্রবীন নেতা। আজ ৮ জুলাই প্রকাশিত হল কান্তি গঙ্গোপাধ্যায়ের লেখা এই বই যা ইতিমধ্যেই বেশ শোরগোল ফেলে দিয়েছে।

বৃহস্পতিবার প্রকাশ পেল কান্তি গঙ্গোপাধ্যায়ের নতুন বই 'রক্তপলাশের আকাঙ্খায়'। তাঁর বইতে কান্তি লিখেছেন সেইসময় পার্টির সঙ্গে তাঁর মতবিরোধের প্রসঙ্গে। তিনি লিখেছেন, ওই সময় বিধানসভা ভেঙে নতুন করে জনাদেশ নেওয়ার কথা তুলেছিলেন তিনি। তাঁর বিশ্বাস ছিল মানুষ তাঁদের পাশেই থাকবে। তবে স্পষ্ট করে যাচাই করে নিতে চেয়েছিলেন মানুষের সমর্থন তাঁদের প্রতি রয়েছে কিনা। মানুষ যা চাইবেন তাই মাথা পেতে মেনে নেওয়ার কথা জানিয়েছিলেন দলের শীর্ষ নেতৃত্বকে। কিন্তু, পার্টি তখন তাঁর মতামত গ্রহণ করেনি। কান্তির আক্ষেপ, 'আমার প্রস্তাব গৃহীত হয়নি, কিন্তু তার জন্য কাউকে দোষারোপ করে কোনও লাভ নেই। আমাদের পার্টিতে সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ ও মৌলিক কর্তব্য স্থির হয় পার্টি পরিচালনার গণতান্ত্রিক কেন্দ্রিকতার নীতি অর্থাৎ সংখ্যাগরিষ্ঠ অংশের অভিমতের ওপর ভিত্তি করে।’

'রক্তপলাশের আকাঙ্খায়' 'রক্তপলাশের আকাঙ্খায়'

কমিউনিস্ট নেতার এই আত্মকথনে সিঙ্গুর প্রসঙ্গে লিখতে গিয়েই তিনি উল্লেখ করেছেন দুই তৃণমূল বিধায়কের। যারা বর্তমান মন্ত্রিসভার গুরুত্বপূর্ণ পদে রয়েছেন। নাম প্রকাশ না করলেও কান্তি জানিয়েছেন তাঁরা সেইসময় সিঙ্গুরের ঘটনাকে 'বড় ক্ষতি' বলে মন্তব্য করেছিলেন। আর কান্তি গঙ্গোপাধ্যায়ের এই জোরালো দাবিই নতুন করে বিতর্ক উস্কে দিয়েছে সিঙ্গুর কাণ্ডে।

নিজের বইতে কান্তি গঙ্গোপাধ্যায় দাবি করেন, শিল্প সম্ভাবনা ভেস্তে যাওয়া নিয়ে বর্তমান রাজ্য সরকারের দু’জন মন্ত্রী তথা তৎকালীন বিধায়ক নাকি তাঁর দফতরে এসে বলেছিলেন, 'বড় ক্ষতি হয়ে গেল।' তবে সৌজন্যতার খাতিরে তিনি তাঁদের নাম প্রকাশ্যে আনছেন না। এখানেই শেষ নয়, সিঙ্গুর পর্ব নিয়ে আরও অজানা কথা লিখেছেন কান্তি।

উল্লেখ্য, ২০০৬ সালের বিধানসভা ভোটে ২৩৫ আসনে জিতে বামফ্রন্ট ক্ষমতায় আসে। ফের একবার মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেন বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। সঙ্গে সঙ্গেই তিনি ঘোষণা করেছিলেন, সিঙ্গুরে টাটাদের ন্যানো কারখানা তৈরি হবে। সেই কারখানার জমি অধিগ্রহণকে ঘিরেই শুরু হয় জমি আন্দোলন। পরের ইতিহাসটা সকলেরই জানা। এই জমি আন্দোলনকে কেন্দ্র করেই বিপুল সমর্থন নিয়ে ক্ষমতায় আসেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

Published by:Sanjukta Sarkar
First published: