‘দুষ্টু গরুর থেকে শূন্য গোয়াল ভাল, দিদিমণিকে আমি আগেই বলেছিলাম, উনি বিশ্বাস করেননি’, তীব্র আক্রমণ কল্যাণের

‘দুষ্টু গরুর থেকে শূন্য গোয়াল ভাল, দিদিমণিকে আমি আগেই বলেছিলাম, উনি বিশ্বাস করেননি’, তীব্র আক্রমণ কল্যাণের

শুভেন্দুকে নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ৷

শুভেন্দুকে নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ৷

  • Share this:

    #কলকাতা: সমস্ত জল্পনার অবসান ঘটিয়ে নন্দীগ্রামের বিধায়ক পদে ইস্তফা শুভেন্দু অধিকারীর ৷ রাজনীতির ময়দানের সব জল্পনাকে সত্যি করে নন্দীগ্রাম আন্দোলনের নেতার বিজেপিতে যোগদানের পথ এবার একেবারে পরিষ্কার ৷ শুভেন্দুকে নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ৷ তাঁর দাবি, বিজেপির সঙ্গে শুভেন্দুর যোগাযোগ এক বছর আগে থেকেই শুরু হয়েছিল ৷ এমনকী এই কথা তিনি দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যাকেও নাকি জানিয়েছিলেন অনেক আগেই কিন্তু তাঁর কথা বিশ্বাস করা হয়নি ৷

    বাংলায় কুরুক্ষেত্রে যুদ্ধের শঙ্খধ্বনি অনেক আগেই বেজে গিয়েছে ৷ এখন চলছে ভোট ময়দানের দলবদল ৷ বুধবার দুপুরে বিধানসভায় সশরীরে এসে বিধানসভার সচিবের হাতে পদত্যাগ পত্র জমা দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই সমস্ত রাজনৈতিক জল্পনায় সত্যের শিলমোহর দিলেন শুভেন্দু অধিকারী ৷ এরপরই ফের সরগরম রাজ্য রাজনীতি ৷ শুভেন্দুর বিধায়ক পদে ইস্তফা নিয়ে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে বিস্ফোরক ও প্রবল আক্রমণাত্মক মেজাজে কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ বলেন,- ‘আজ থেকে নয়, একবছর আগে থেকে বিজেপির সঙ্গে যোগসাজশ চলছিল শুভেন্দুর ৷ এতদিন যা চলছিল সব খেলা ৷ আমি অনেক আগে থেকেই জানতাম, দিদিমণিকেও বলেছিলাম ৷ উনি বিশ্বাস করেননি ৷ এখন বুঝতে পারছেন আমার বলা সব কথাই কতটা সত্যি ৷ ’

    শুভেন্দুর ইস্তফায় দলের কতটা ক্ষতি হবে এই নিয়ে প্রশ্ন করা হলে প্রায় ঝাঁঝিয়ে ওঠেন এই তৃণমূল সাংসদ বলেন, ‘ইস্তফা দিয়েছে খুব ভাল করেছে ৷ যাক না কোনও অসুবিধা নয় ৷ দুষ্টু গরুর থেকে শূন্য গোয়াল ভাল ৷ এরা সব ভোগী ৷ চিরকাল শুধু ভোগ করে এসেছে ৷ এদের পদের লোভ ৷ দিদিমণি যখন ২০০ আসনে ক্ষমতায় আসবে, তখন দেখবেন আবার সব সুড়সুড় করে ফিরে এসেছে ৷ ২০১৪ সালে সাংসদ হয়েছিল ১৬-এ আবার এখানে ফিরে এসেছিল শুধু মন্ত্রী হবে বলে ৷ এখন ওনার স্বপ্ন মুখ্যমন্ত্রী হবেন অথবা উপ-মুখ্যমন্ত্রী হবেন ৷’

    গত কয়েকমাসে যত দলের সঙ্গে দূরত্ব বেড়েছে নন্দীগ্রামের জননেতার, ততই শুভেন্দুর প্রতি আরও তীক্ষ্ণ হয়েছে কল্যাণের আক্রমণ ৷ এদিন সাংসদ দাবি করেন, ‘অনেক আগে থেকেই আমি এসব জানতাম ৷ এক বিজেপি সাংসদ আমাকে শুভেন্দুর করা মেসেজ দেখিয়েছিল ৷ একবছর আগে থেকেই অমিত শাহের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করছিল ও ৷’

    সবমিলিয়ে শাহের বাংলা সফরের আগেই বাংলার রাজনৈতিক ময়দানে আরও চড়ছে উত্তাপ ৷ ভাঙা ঘর সামলাতে নাজেহাল তৃণমূল ৷ শাসকদলের রক্তক্ষরণ যে আরও বাড়বে তারই ইঙ্গিত দিচ্ছে বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি ৷

    Published by:Elina Datta
    First published: